এক দিনেই ৮ লাখ ডলারের গহনা

নাজিব রাজাকের ওয়ানএমডিবি তহবিল কেলেঙ্কারি শুনানি

  যুগান্তর ডেস্ক ১৭ জুলাই ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

মালয়েশিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাকের ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করে এক দিনে আট লাখ মার্কিন ডলারের অলংকার কেনা হয়েছিল। ইতালির একটি অলংকারের দোকান থেকে এসব কেনা হয়েছিল বলে কুয়ালালামপুরের আদালতে জানিয়েছেন সরকারি কৌঁসুলিরা। মঙ্গলবার আদালতে ওয়ানএমডিবি তহবিল কেলেঙ্কারির শুনানিতে এ তথ্য জানিয়েছেন তারা। খবর দ্য গার্ডিয়ানের। আদালতে বলা হয়েছে, ২০১৪ সালের ৮ আগস্ট ইতালিতে সুইস অলংকার বিক্রেতা প্রতিষ্ঠান ডি গ্রিসোগোনো থেকে নাজিব রাজাকের ভিসা ও মাস্টারকার্ডের প্লাটিনাম ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করে আট লাখ তিন হাজার মার্কিন ডলারের অলংকার কেনা হয়। এর কয়েক মাস পর হাওয়াইয়ের একটি বুটিকের দোকান থেকে এক লাখ আট হাজার মার্কিন ডলারের পণ্য কেনা হয়। একই ক্রেডিট কার্ডে এক লাখ ২৭ হাজার রিঙ্গিত (মালয়েশিয়ার মুদ্রা) খরচ করা হয় ব্যাংককের বিলাসবহুল শাংরি-লা হোটেলে। এই লেনদেনের সবক’টির অর্থ পরিশোধ করা হয়েছিল নাজিবের অ্যামব্যাংকের হিসাব থেকে।

২০১৮ সালে ক্ষমতা থেকে বিদায় নেয়া নাজিবের বিরুদ্ধে সরকারি তহবিলের অর্থ আত্মসাৎসহ একাধিক দুর্নীতির মামলা চলছে। ওই মামলাগুলোতে প্রমাণ হিসেবে এই ক্রেডিট কার্ডের বিলগুলো আদালতে উপস্থাপন করা হয়।

মালয়েশিয়ার অর্থনীতির উন্নয়নের জন্য ২০০৯ সালে ওয়ানএমডিবি তহবিল গঠন করা হয়েছিল। নাজিবের বিরুদ্ধে অভিযোগ, ওই তহবিলের ৪০০ কোটি মার্কিন ডলার নাজিবের জ্ঞাতসারে দুর্নীতির মাধ্যমে বিশ্বব্যাপী খরচ করা হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে চলচ্চিত্রে বিনিয়োগ, প্রমোদতরী ক্রয়, আবাসন খাতে ব্যয় এবং তারকাদের নিয়ে বিনোদন। অভিযোগ রয়েছে, তহবিল থেকে ৬০ কোটি ৮১ লাখ মার্কিন ডলার গেছে নাজিবের ব্যক্তিগত ব্যাংক হিসাবে। এই অর্থ ব্যয় করা হয়েছে নাজিব ও তার স্ত্রী রোজমাহ মানসুরের বিলাসবহুল চাহিদা মেটাতে।

ক্ষমতা থেকে বিদায়ের পর গত বছর নাজিবের বাড়িতে অভিযান চালিয়েছিল মালয়েশিয়ার পুলিশ। ওই সময় তার বাড়ি থেকে ২৭ কোটি ৩০ লাখ ডলারের বিলাসবহুল পণ্য জব্দ করা হয়, যার মধ্যে রয়েছে এক হাজার ৪০০ গহনা, ৫৬৭টি হাতব্যাগ, ৪২৩টি ঘড়ি, দুই হাজার ২০০ আংটি, এক হাজার ৬০০ ব্রোচ এবং ১৪টি টায়রা।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×