সচিবালয় থেকে নামিয়ে ফেলা হল কাশ্মীরের পতাকা

  যুগান্তর ডেস্ক ২৬ আগস্ট ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ অধিকার বাতিলের পর রোববার রাজ্যটির সচিবালয় ভবন থেকে নামিয়ে ফেলা হয়েছে কাশ্মীরের আগের পতাকা। সেখানে এখন টানানো হয়েছে ভারতীয় তিন রঙের পতাকা। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়া টুডে এ খবর জানিয়েছে।

ভারতীয় কর্মকর্তারা বলছেন, ৩৭০ ধারা বিলোপের পর এখন থেকে কাশ্মীরে ভারতের পতাকাই টানানো হবে। এখন থেকে সব সরকারি কার্যালয়ে এই আইন মেনে চলা হবে।

ইন্ডিয়া টুডে জানায়, এখন পর্যন্ত সব সরকারি ভবন থেকে কাশ্মীরের পতাকা নামানো হয়নি। গত সপ্তাহে সচিবালয় ভবনে কেন্দ্র ও রাজ্যের পতাকা টানানো ছিল।

জম্মু-কাশ্মীর সরকারের একটি শীর্ষ সূত্র জানায়, ৩৭০ ধারা বিলোপের ধারাবাহিকতায় পতাকা নামানো হচ্ছে। ৩১ অক্টোবর থেকে রাজ্যকে দ্বিখণ্ডিত করার সঙ্গে এর সম্পর্ক নেই।

আরেকটি শীর্ষ সূত্র জানায়, পার্লামেন্টের প্রবেশাধিকার দেয়া হয়েছে এবং সব সরকারি ভবনে জাতীয় পতাকা টানানো হবে।

ভারত যুদ্ধ চাপিয়ে দিলে শেষ করবে পাকিস্তান : কাশ্মীর ছাড়া ভারতের সঙ্গে কোনো সংলাপ নয়। তারা যদি যুদ্ধ চাপিয়ে দেয়ার চেষ্টা করে কখনও, তবে পাকিস্তান সেই যুদ্ধ শেষ করবে। সেই যুদ্ধ শুধু শ্রীনগর অথবা জম্মুতে শেষ হবে না।

তা শেষ হবে দিল্লিতে। ভারতকে উদ্দেশ করে এমন কড়া বার্তা দিয়েছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের তথ্যবিষয়ক বিশেষ সহকারী ড. ফিরদৌস আশিক আওয়ান। ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংয়ের যুদ্ধ হিস্টেরিয়া সৃষ্টির বিষয়ে তিনি এমন কথা বলেছেন। তিনি রাজনাথ সিংয়ের হুমকির জবাব দিয়েছেন ওই ভাষা ব্যবহার করে। ফিরদৌস আশিক আওয়ান শনিবার পাকিস্তানে গভর্নর হাউসে এক সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন। এ খবর দিয়েছে অনলাইন ডন।

সেখানে তিনি বলেন, পাকিস্তান কখনও যুদ্ধ শুরু করবে না। লঙ্ঘন করবে না আন্তর্জাতিক আইন। কিন্তু যদি যুদ্ধ চাপিয়ে দেয়া হয় তাহলে সশস্ত্র বাহিনীর পাশাপাশি প্রতিজন পাকিস্তানি যুদ্ধ করবেন। তিনি আন্তর্জাতিক সংগঠন ও মানবাধিকারের চ্যাম্পিয়নদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, ভারতের আসল চেহারা বিশ্বের সামনে তুলে ধরতেই হবে। কাশ্মীরে মুসলিমদের বিরুদ্ধে গণহত্যা চালানোর জন্য তৈরি হচ্ছে ভারত।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×