ব্রিটেনে দাঙ্গা হবে পথে পথে

সরকারের প্রাক-মূল্যায়ন প্রতিবেদন

  যুগান্তর ডেস্ক ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

যুক্তরাজ্যে বরিস জনসনের পরিকল্পনা অনুসারে চুক্তিহীন ব্রেক্সিট (নো ডিল ব্রেক্সিট) বাস্তবায়ন হলে দেশে খাদ্য সংকট দেখা দেবে। বাড়বে খাবারের দাম। ওষুধ ও চিকিৎসা সরঞ্জাম সরবরাহ কমে যাবে। সমুদ্রে পণ্য পরিবহন রুটে ভয়াবহ বিশৃঙ্খলা দেখা দেবে।
ছবি: সংগৃহীত

যুক্তরাজ্যে বরিস জনসনের পরিকল্পনা অনুসারে চুক্তিহীন ব্রেক্সিট (নো ডিল ব্রেক্সিট) বাস্তবায়ন হলে দেশে খাদ্য সংকট দেখা দেবে। বাড়বে খাবারের দাম। ওষুধ ও চিকিৎসা সরঞ্জাম সরবরাহ কমে যাবে। সমুদ্রে পণ্য পরিবহন রুটে ভয়াবহ বিশৃঙ্খলা দেখা দেবে।

ফলে যুক্তরাজ্যের পথে পথে দেখা দেবে দাঙ্গা-হাঙ্গামা, নানা অরাজকতা। বুধবার প্রকাশিত ব্রিটিশ সরকারেরই এক প্রাক-মূল্যায়ন নথিতে এমন সতর্ক করা হয়েছে।

চুক্তি ছাড়াই ব্রেক্সিট কার্যকর হলে তা নিয়ে পক্ষে-বিপক্ষে পাল্টাপাল্টি বিক্ষোভ হতে পারে, যা দেশজুড়ে অরাজক পরিস্থিতির জন্ম দিতে পারে বলেও এতে আশঙ্কা প্রকাশ করা হয়েছে।

‘অপারেশন ইয়োলোহ্যামার’ নামের এ প্রাক-মূল্যায়ন নথিটি বরিস জনসন যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী হওয়ার নয় দিন পর গত ২ আগস্ট প্রস্তুত হয়েছিল বলে জানিয়েছে রয়টার্স।

জনসনের পরিকল্পনার সাপেক্ষে ৩১ অক্টোবর যুক্তরাজ্য চুক্তিহীন ব্রেক্সিটের মাধ্যমে ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) থেকে বিচ্ছিন্ন হলে সম্ভাব্য সবচেয়ে বাজে যে পরিস্থিতি দেখা দিতে পারে, তার ধারণা পেতেই এ মূল্যায়ন তৈরি করা হয়।

‘নো ডিল ব্রেক্সিট’ হলে পণ্যবাহী লরিগুলোর ইংলিশ চ্যানেল পাড়ি দিতে আড়াই দিন পর্যন্ত অপেক্ষা এবং ব্রিটিশ নাগরিকদের ইইউ সীমান্ত চৌকিগুলোতে অধিকতর তল্লাশির মুখোমুখি হতে হবে বলেও নথিটিতে ধারণা দেয়া হয়েছে।

এতে বলা হয়, সুনির্দিষ্ট ধরনের টাটকা খাদ্যের সরবরাহ কমে আসবে। তখন আতঙ্কিত মানুষের বেশি খাদ্য ক্রয়ের ঝুঁকিও থাকছে, যা খাদ্য ঘাটতির কারণ হতে পারে।

চুক্তি ছাড়া ব্রেক্সিটের পর প্রথম দিনই ইংলিশ চ্যানেল পাড়ি দেয়া যানবাহনের সংখ্যা এখনকার তুলনায় ৬০ শতাংশ পর্যন্ত কমে যেতে পারে। ব্রেক্সিট কার্যকরের পর এমন বাজে পরিস্থিতি তিন মাস পর্যন্ত থাকতে পারে বলেও এতে ধারণা দেয়া হয়েছে। যানবাহনের লম্বা লাইনের কারণে জ্বালানি সরবরাহ এবং লন্ডন ও দক্ষিণ-পূর্ব ইংল্যান্ডে পণ্য সরবরাহে বিঘ্ন ঘটবে বলেও আশঙ্কা করা হয়েছে।

‘নো ডিল ব্রেক্সিটে’ সীমান্তের বাইরে থাকা অর্থনৈতিক কার্যক্রম এবং পুলিশ ও নিরাপত্তরক্ষীদের মধ্যে তথ্যের আদান-প্রদানেও নেতিবাচক প্রভাব পড়তে পারে।

১৮ আগস্ট সানডে টাইমস প্রথম ‘অপারেশন ইয়োলোহ্যামার’ সংক্রান্ত নথি প্রকাশ করে। ‘নো ডিল ব্রেক্সিট’ প্রস্তুতি দেখভালের দায়িত্বে থাকা মন্ত্রী মাইকেল গোভ সেসময় ওই নথিকে ‘পুরনো’ এবং নয় সরকারের ব্রেক্সিট প্রস্তুতির সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ বলে মন্তব্য করেছিলেন।

বুধবার গোভ বলেছেন, পর্যালোচনার পরই পাঁচ পৃষ্ঠার নথিটিতে থাকা মূল্যায়নগুলো প্রকাশিত হয়েছে। নথিটি চুক্তি ছাড়া ব্রেক্সিটের ভয়াবহ ঝুঁকির ব্যাপারটি নিশ্চিত করেছে বলে দাবি বিরোধী লেবার পার্টির।

দলটির ব্রেক্সিটবিষয়ক মুখপাত্র কেইর স্টার্মার বলেন, ‘নো ডিল ব্রেক্সিটের পরিণতি নিয়ে বরিস জনসন যে ব্রিটিশ জনগণের সঙ্গে অসততা করেছেন, তা এখন স্বীকার করে নেয়া উচিত।’ এ নথি প্রকাশের পর দলটি পুনরায় পার্লামেন্ট চালুর আহ্বান জানিয়েছে।

ঘটনাপ্রবাহ : ব্রেক্সিট ইস্যু

আরও
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×