‘বিশ্বাসঘাতক’ ট্রাম্পের অভিশংসন চান বাইডেন

  যুগান্তর ডেস্ক ১১ অক্টোবর ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে অভিশংসনের আহ্বান জানিয়েছেন ডেমোক্রেটিক প্রেসিডেন্ট প্রার্থী ও সাবেক ভাইস প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। তিনি বলেছেন, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করেছেন। তাকে অভিশংসন করা উচিত।
ছবি: সংগৃহীত

প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে অভিশংসনের আহ্বান জানিয়েছেন ডেমোক্রেটিক প্রেসিডেন্ট প্রার্থী ও সাবেক ভাইস প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। তিনি বলেছেন, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করেছেন। তাকে অভিশংসন করা উচিত।

ট্রাম্পের ইউক্রেন কেলেঙ্কারিতে বুধবার প্রথমবারের মতো মুখ খুলে ট্রাম্পের অভিশংসনে সবাইকে একযোগে কাজ করার আহ্বান জানান তিনি। বাইডেনের এ আহ্বানে আরও ক্ষেপেছেন ট্রাম্প। প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই তার নিজস্ব স্টাইলে সমালোচনার তোপ দেগেছেন।

অভিশংসন চেষ্টার এ সংঘাত সুপ্রিমকোর্টেই ফয়সালা হবে বলে হুশিয়ারি দিয়েছেন তিনি।

এদিকে সামরিক সহায়তা তহবিল ছাড়ের বিনিময়ে বাইডেন ও ছেলের দুর্নীতির তদন্ত করতে চাপ ট্রাম্প দিয়েছিলেন একথা অস্বীকার করেছেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভ­াদিমির জিলেনস্কি। বলেছেন, ‘ফোনালাপে কোনো ব্ল্যাকমেইলের ঘটনা ঘটেনি।’ খবর রয়টার্স ও এএফপির।

ক্ষমতা গ্রহণের পর থেকে ট্রাম্পের অভিশংসন নিয়ে আলোচনা-বিতর্ক চলে আসছে। পরবর্তী প্রেসিডেন্ট নির্বাচনকে সামনে রেখে এবারই প্রথম অভিশংসনের লক্ষ্যে কংগ্রেসীয় কমিটির তদন্ত শুরু হয়েছে।

তদন্ত কার্যক্রমকে একপেশে, অবৈধ ও অসাংবিধানিক দাবি করে হোয়াইট হাউস বলেছে, প্রেসিডেন্ট বা তার প্রশাসন এই তদন্তে কোনো ধরনের সহায়তা করবে না। যে কারণে এ অভিশংসন প্রক্রিয়া শুরু হয় তার সূত্রপাত অনেকটা বাইডেনকে কেন্দ্র করেই।

তদন্তের সূত্রপাত ২৫ জুলাইয়ে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট জিলেনস্কির সঙ্গে ট্রাম্পের গোপন টেলিফোন আলাপচারিতা নিয়ে।

২০২০ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের নিজের সম্ভাব্য প্রতিদ্বন্দ্বী বাইডেন ও তার ছেলে হান্টারের অতীত ব্যবসার দুর্নীতির তদন্তের জন্য জিলেনস্কিকে চাপ দেন ট্রাম্প। বিনিময়ে ইউক্রেনের জন্য সামরিক সহায়তা তহবিল অনুমোদন দেয়ার প্রতিশ্রুতি দেন।

গত মাসের শেষ দিকে এ কথোপকথনের তথ্য ফাঁস করে দেন কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থার (সিআইএ) অজ্ঞাতনামা এক কর্মকর্তা। ট্রাম্পের অভিশংসন প্রক্রিয়া নিয়ে সরাসরি কোনো মন্তব্য করা থেকে এতদিন বিরত ছিলেন বাইডেন।

চলতি সপ্তাহে লেখা এক মতামত কলামে তিনি বলেছিলেন, এ ব্যাপারে কংগ্রেস তার নিজের দায়িত্ব পালন করবে। বুধবার নিউ হ্যাম্পশায়ারে নির্বাচনী প্রচারণাকালে মনোনয়ন লড়াইয়ের এগিয়ে থাকা এ ডেমোক্র্যাট নেতা প্রথমবারের মতো বিরোধী প্রার্থী ট্রাম্পের ওপর চরম আক্রমণ করেন।

বলেন, ‘নিজের কথা আর কর্মেই প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প নিজেকে অপরাধীতে পরিণত করেছেন। ন্যায়বিচারের পথে বাধার সৃষ্টি, কংগ্রেসের তদন্তের সহযোগিতা করতে অস্বীকারের মাধ্যমে তিনি ইতিমধ্যে অপরাধ করেছেন।’

তিনি আরও বলেন, ‘বিশ্ব ও মার্কিন জনগণের দৃষ্টিতে প্রেসিডেন্ট হিসেবে ট্রাম্প তার শপথের লঙ্ঘন করেছেন, জাতির সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করেছেন এবং অভিশংসনযোগ্য কাজ করেছেন।’ বাইডেন আরও বলেন, ‘তিনি সংবিধানের ওপর আক্রমণ করেছেন। সেটা আমরা কখনোই হতে দেব না।

আমাদের সংবিধান, আমাদের গণতন্ত্র এবং আমাদের মৌলিক মূল্যবোধ সমুন্নত রাখার স্বার্থে তাকে অভিশংসন করা উচিত।’ বাইডেনের এ বক্তব্যের সঙ্গে সঙ্গে একের পর এক টুইটার বার্তায় জবাব দিয়েছেন ট্রাম্প।

বলেছেন, ‘এটা দেখা খুব মর্মান্তিক যে, জো বাইডেন তার ছেলে হান্টারের সঙ্গে মিলে মার্কিন করদাতাদের ক্ষতি করে অন্তত দুটি দেশের লাখ লাখ ডলার তছরুপ করেছেন।

ঘটনাপ্রবাহ : মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন-২০২০

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×