ট্রাম্পের বিশ্বাসঘাতকতা নিয়ে ডেমোক্র্যাটদেরও ক্ষোভ

  যুগান্তর ডেস্ক ১৭ অক্টোবর ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

সিরিয়ায় কুর্দিদের সঙ্গে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিশ্বাসঘাতকতায় এবার ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন বিরোধী ডেমোক্রেটিক দলের মনোনয়নপ্রত্যাশী নেতারা। সিরিয়া থেকে অপ্রত্যাশিতভাবে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারে তার সিদ্ধান্তেরও সমালোচনা করেন।
ছবি: সংগৃহীত

সিরিয়ায় কুর্দিদের সঙ্গে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিশ্বাসঘাতকতায় এবার ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন বিরোধী ডেমোক্রেটিক দলের মনোনয়নপ্রত্যাশী নেতারা। সিরিয়া থেকে অপ্রত্যাশিতভাবে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারে তার সিদ্ধান্তেরও সমালোচনা করেন।

একযোগে আক্রমণ শানিয়ে নেতারা বলেছেন, দীর্ঘ সময়ের পরীক্ষিত মিত্র কুর্দিদের মৃত্যুমুখে ঠেলে দিয়েছেন ট্রাম্প। বিপরীতে রাশিয়া ও সিরিয়ার মতো শত্রুপক্ষের হাত শক্ত করছেন। মঙ্গলবার ওহাইও রাজ্যে বিতর্ককালে ট্রাম্পের পররাষ্ট্রনীতির সমালোচনা করে এসব কথা বলেন ডেমোক্রেটিক নেতা।

এর আগে মার্কিন প্রেসিডেন্টের সিরিয়া নীতিতে ক্ষোভ ও হতাশা প্রকাশ করেন মার্কিন সেনাবাহিনী ও প্রতিরক্ষা বিভাগের কর্মকর্তারা। খবর এএফপি ও রয়টার্সের।

এদিকে ট্রাম্পের অভিশংসন তদন্তে নাটকীয় অগ্রগতি হয়েছে বলে জানিয়েছেন কংগ্রেসের তদন্তকারী কর্মকর্তারা। হাউস ইনটেলিজেন্স কমিটির চেয়ারম্যান অ্যাডাম স্কিফ মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে জানান, অন্তত পাঁচজন সাক্ষী প্রেসিডেন্টে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দিয়ে সহযোগিতা করেছেন।

তারা সাক্ষ্য দিয়েছেন, আসন্ন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে অন্যতম রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ জো বাইডেন ও তার ছেলে হান্টার বাইডেনের বিরুদ্ধে তদন্ত করতে ইউক্রেনকে অবৈধভাবে চাপ দেন ট্রাম্প।

ক্ষমতার অপব্যবহারের সুস্পষ্ট এই অভিযোগ আনুষ্ঠানিক অভিশংসন এগিয়ে নিতে সাহায্য করবে বলে মনে করছেন স্কিফ। সিরিয়া থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের পর মঙ্গলবার প্রথমবারের মতো বিতর্কে অংশ নেন ১২ ডেমোক্র্যাট নেতা।

বিতর্ক মঞ্চে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ অবস্থান নিয়ে তারা বলেন, ‘রিপাবলিকান প্রেসিডেন্ট বেপরোয়া হয়ে উঠেছেন। তিনি বিশ্বজুড়ে মার্কিন স্বার্থের জন্য হুমকিস্বরূপ।’

প্রগতিশীল হিসেবে পরিচিত এলিজাবেথ ওয়ারেনসহ কয়েক নেতা মন্তব্য করেছেন, ‘প্রসিডেন্ট নির্বাচিত হলে মধ্যপ্রাচ্য থেকে মার্কিন সেনা উপস্থিতির ইতি টানবেন।’ ওয়ারেন বলেছেন, ‘ট্রাম্প স্বৈরশাসকদের সঙ্গে দহরম-মহরম ট্রাম্পের। তিনি আমাদের মিত্রদের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করছেন এবং যুক্তরাষ্ট্রের অর্থে নিজের পেট মোটা করছেন।’

দেশে দেশে আমেরিকার সংঘাতের ইতি টানতে কাজ করার প্রতিশ্রুতি জানিয়েছেন ভারতীয় বংশোদ্ভূত কংগ্রেসম্যান তুলসি গ্যাবার্ড। প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হলে সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদের সঙ্গে কাজ করবেন এবং তার সরকারের সুরক্ষা দেয়ার কথাও বলেছেন তিনি।

তিনি বলেন, ‘৭ বছরের মিত্র কুর্দিদের রক্তে রঞ্জিত প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের হাত। কিন্তু এই একই কাজ বছরের পর বছর করে যাচ্ছে উভয় দলের রাজনীতিকরা।

ঘটনাপ্রবাহ : সিরিয়ায় অপারেশন পিস স্প্রিং

আরও
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×