বরিস আমার হৃদয় ভেঙে দিয়েছে: ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সম্পর্কের কথা বললেন সেই নারী

  যুগান্তর ডেস্ক ১৮ নভেম্বর ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের সঙ্গে সম্পর্ক নিয়ে মুখ খুললেন কথিত মার্কিন ব্যবসায়ী জেনিফার আরকিউরি। তিনি বলেছেন, ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী তার হৃদয় ভেঙে দিয়েছেন। এতে আমি চরমভাবে অপমানিত।
ছবি: এএফপি

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের সঙ্গে সম্পর্ক নিয়ে মুখ খুললেন কথিত মার্কিন ব্যবসায়ী জেনিফার আরকিউরি। তিনি বলেছেন, ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী তার হৃদয় ভেঙে দিয়েছেন। এতে আমি চরমভাবে অপমানিত।

জেনিফার বলেন, জনসন আমার সঙ্গে এক রাতের যাত্রীর মতো আচরণ করে একপাশে ফেলে দিয়েছেন। এতে আমার হৃদয় ভেঙে গেছে এবং চরমভাবে অপমানিত।

রোববার এক সংক্ষিপ্ত সাক্ষাৎকারে সরাসরি জনসনকে সম্বোধন ধরে আইটিভি এক্সপোজার প্রোগ্রামকে বলেন, অলস, নিষ্কর্মাদের মতো তুমি আমাকে যেভাবে ফেলে দিয়েছ, তাতে আমি ভীষণ মন খারাপ করে আছি। আমি জানি না তুমি আমাকে কেন রেখেছিলে এবং আবার এড়িয়ে গেলে! যেন আমি কোনো ক্ষণিকের বাসিন্দা, যেন আমি এমন কেউ যে, যাকে তুমি বারে নিয়ে আসলে আমোদ করার জন্য।

কিন্তু তুমি জানতে, আমি তেমনটা ছিলাম না। তিনি বলেন, ‘আমি এতটাই হতাশ ও অপমানিত হয়েছি যে, যা মানা কঠিন।’ জনসন ২০০৮ থেকে ২০১৬ সাল পর্যন্ত লন্ডনের মেয়র ছিলেন।

আগামী মাসে প্রত্যাশিত সাধারণ নির্বাচনের জন্য ডাউনিং স্ট্রিটে পাঁচ বছরের মেয়াদে লড়াই করছেন তিনি। এ নিয়ে তুমুল নির্বাচনী প্রচারণায় ব্যস্ত। প্রধানমন্ত্রী অবশ্য আরকিউরির বিষয়টিকে অন্যভাবে নিয়েছেন।

তিনি বলেছেন, আরকিউরির সঙ্গে তার এমন কোনো সম্পর্ক নেই, যা বলা হচ্ছে। তবে অভিযোগ আছে, লন্ডনের মেয়র থাকাকালীন জেনিফারকে মেয়রের নেতৃত্বে তিনটি বিদেশি বাণিজ্য মিশনের মাধ্যমে ১২৬,০০০ পাউন্ড তথা ১৬৩,০০০ ডলার বা ১৪৭,০০০ ইউরো দেয়া হয়েছিল।

তিনি জোর দিয়ে বলেছেন, তা সম্পূর্ণ স্বচ্ছতার সঙ্গেই করা হয়েছিল।

বরিস জনসনের এই কথিত বান্ধবী জেনিফার আরকিউরি একজন আমেরিকান ব্যবসায়ী। তার একটি তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান আছে।

বরিস জনসন এই প্রতিষ্ঠানটিকে বিভিন্ন আর্থিক অনুদান দেয়া এবং জেনিফার আরকিউরিকে সরকারি খরচে বিভিন্ন দেশে ভ্রমণে নিয়ে যেতে তার অফিসকে ব্যবহার করেন, এমন অভিযোগ আছে।

সরকারের একটি ঊর্ধ্বতন সূত্র বলছে, এই অভিযোগটি এমন এক সময় তোলা হচ্ছে, যখন কনজারভেটিভ পার্টির সম্মেলন শুরু হচ্ছে। এটি যে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত তা স্পষ্ট।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×