বাঘিনীর খোঁজে ৮০৭ মাইল হাঁটল বাঘ

  যুগান্তর ডেস্ক ০৩ ডিসেম্বর ২০১৯, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

বাঘিনীর খোঁজে ভারতীয় এক বাঘ রেকর্ড পরিমাণ পথ পাড়ি দিয়েছে। পাঁচ মাস ধরে বাঘটি ১ হাজার ৩০০ কিলোমিটার (৮০৭ মাইল) হেঁটেছে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, আড়াই বছরের এ পুরুষ বাঘটি সঙ্গী, শিকার অথবা আশ্রয়ের খোঁজে এত পথ পাড়ি দিয়েছে।

বিবিসি জানায়, বাঘটির শরীরে ট্র্যাকিং যন্ত্র রেডিওকোলার লাগানো ছিল। জুনে মহারাষ্ট্রের বন্যপ্রাণী অভয়ারণ্য থেকে যাত্রা শুরু করে বাঘটি। প্রাণীটি কৃষি জমি, পানি, হাইওয়ে রাস্তা অতিক্রম করে প্রতিবেশী রাজ্য তেলেঙ্গানায় প্রবেশ করেছে।

এ যাত্রাপথে বাঘটির আক্রমণে এক ব্যক্তি আহত হন। বাঘটি বনে বিশ্রাম নেয়ার সময় সেখান অকস্মাৎভাবে ওই ব্যক্তি ঢুকে পড়লে হামলার শিকার হন।

টি১ নামের একটি নারী বাঘের তিন পুরুষ বাঘের একটি সি১ নামের এ বাঘটি। মহারাষ্ট্রের তিপেস্বর বন্যপ্রাণী অভয়ারণ্য ১০টি বাঘের আবাসস্থল। ফেব্রুয়ারিতে রেডিওকোলার বসানো হয় বাঘটির শরীরে।

ভারতের বন্যপ্রাণী ইন্সটিটিউটের জ্যেষ্ঠ জীববিজ্ঞানী ড. বেলাল হাবিব বলেন, বাঘটি সম্ভবত তার উপযুক্ত আবাসস্থল, খাদ্য বা একজন সঙ্গী খুঁজছে। এটি দিনে বনজঙ্গলে লুকিয়ে ছিল এবং রাতের আঁধারে পথ হেঁটেছে।

খাবারের জন্য শিকার করেছে বন্যশূকর ও গবাদিপশু। মহারাষ্ট্রের সাতটি জেলা ঘুরে তেলেঙ্গানায় প্রবেশ করেছে বাঘটি। এ অঞ্চল দিয়ে বাঘ চলাচল করছে, বিষয়টি মানুষ বুঝতে পারিনি বলেও জানান বেলাল।

বন কর্মকর্তারা বলছেন, কোনো ধরনের দুর্ঘটনা এড়াতে বাঘটিকে এখন আটক করা হতে পারে এবং পাশের বনে স্থানান্তর করা হতে পারে। কারণ বাঘটির শরীরে বসানো রেডিওকোলারের ব্যাটারির চার্জ এরই মধ্যে ৮০ শতাংশ কমে গেছে। এজন্য তার সঙ্গে শিগগিরই যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হওয়ার আশঙ্কা করছেন বন কর্মকর্তারা।

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত