বাতাস থেকে খাবার পানি

  যুগান্তর ডেস্ক ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ভারতের হায়দারাবাদের সেকেন্দ্রাবাদ রেল স্টেশনে পাওয়া যাচ্ছে বাতাস থেকে তৈরি বিশুদ্ধ খাবার পানি। প্রযুক্তির নাম মেঘদূত। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির উৎসাহে, মেক ইন ইন্ডিয়া প্রকল্পে এই প্রযুক্তি বানিয়েছে মৈত্রী অ্যাপটেক নামে একটি ভারতীয় সংস্থা। শহরের নামি পানির কোম্পানিগুলো যখন ১ লিটার পানি বেচছে ২০ টাকায়, এই পানি মিলছে অর্ধেকেরও কম দামে।

এক লিটারের একটি পানির বোতলের দাম পড়ছে ৮ রুপি। ক্রেতা বোতল দিলে মাত্র ৫ রুপিতেই মিলবে এক লিটার পানি। ইকোনমিক টাইমস। ভারতীয় গবেষণা দলের বিজ্ঞানীরা বলছেন, এ পানি থেকে লবণ সরাতে আমাদের বেগ পেতে হয়েছে। এ সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে প্রযুক্তিটিতে হাইড্রোজেল ব্যবহার করেছেন বিজ্ঞানীরা, যা ক্যালসিয়াম ক্লোরাইডকে সলিড থাকতে সাহায্য করেছে। এছাড়াও এই যন্ত্রে ব্যবহার হয়েছে ছোট কার্বন টিউব। ৬০ শতাংশ আর্দ্রতায় ৩৫ গ্রামের একটি যন্ত্র এক রাতে বাতাস থেকে ৩৭ গ্রাম পানি সংগ্রহ করেছে। পরদিন সূর্য উঠলে এই পানি আবার বাতাসে ফিরে গিয়েছে। কম খরচে ভালো পারফর্ম করার জন্য নাম রয়েছে হাইড্রোজেলের।

তাই এই ডিভাইসে হাইড্রোজেল ব্যবহার করেছেন বিজ্ঞানীরা।

তবে এখনও এই ডিভাইস বাণিজ্যিকভাবে তৈরির পরিকল্পনা হয়নি। ভারতীয় এ সংস্থাটি কীভাবে বাতাস থেকে জল তৈরি করছে, তা অবশ্য জানা যায়নি।

বাতাস থেকে খাবার পানি সংগ্রহ করার এ প্রযুক্তি এক বছর আগেই আবিষ্কার করেন সৌদি আরবের বিজ্ঞানীরা। সম্প্রতি তারা একটি ডিভাইস তৈরি করেন, যা বাতাস থেকে পানি সংগ্রহ করতে পারে। পরে সূর্যের তাপে তা আবার বাতাসে ছেড়ে দিতে পারবে। বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন যে সব প্রত্যন্ত অঞ্চলে পানির অভাব চরমে সেসব এলাকায় দারুন সফল হবে নতুন এ যন্ত্র।

বিশ্বের বাতাসে মোট ১৩ ট্রিলিয়ন টন পানি রয়েছে। এই পানি খুব সহজেই স্বচ্ছ পানীয় হিসেবে ব্যবহার করা যাবে। এর আগে একাধিক উপায়ে পানি সংগ্রহ করার কাজ হলেও সবক’টি খুব ব্যয়সাপেক্ষ ছিল।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

 
×