স্যান্ডার্সকে প্রেসিডেন্ট হতে দেবে না ইহুদিরা

হিলারিকে রানিংমেট করবেন ব্লুমবার্গ

  যুগান্তর ডেস্ক ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ছবি: সংগৃহীত

যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে প্রথম সম্ভাবনাময় ইহুদি প্রেসিডেন্ট প্রার্থী বার্নি স্যান্ডার্সকে প্রেসিডেন্ট হতে না দিতে জোর প্রচারণা চালাচ্ছে ইহুদিরা। ভারমন্টের এ সিনেটরের বিরুদ্ধে প্রচারণার অর্থ জোগানে সহায়তা করছে ইসরাইলপন্থী বৃহত্তম লবি গ্রুপ আমেরিকান ইসরাইল পাবলিক অ্যাফেয়ার্স কমিটি (আইপ্যাক)।

বর্তমানে ডেমোক্রেটিক দলের অভ্যন্তরীণ মনোনয়ন লড়াইয়ে গুরুত্বপূর্ণ রাজ্য নেভাদায় এ প্রচারণা শুরু হয়েছে। টেলিভিশন থেকে শুরু করে অনলাইনে বিজ্ঞাপন আকারে স্যান্ডার্সের বিপক্ষে নেতিবাচক প্রচার চালানো হচ্ছে।

এসব বিজ্ঞাপনে সরাসরি অর্থ ঢালছে ‘ডেমোক্রেটিক মেজরিটি ফর ইসরাইল’ (ডিএমএফআই) নামে একটি গোষ্ঠী, যেটি প্রতিষ্ঠা করেছেন আইপ্যাকের দীর্ঘদিনের কৌঁসুলি মার্ক মেলম্যান।

এর আগে আইওয়া রাজ্যেও নির্বাচনের আগে আগে স্যান্ডার্সের বিরুদ্ধে বিপুল অঙ্কের অর্থ ব্যয় করে বিজ্ঞাপন প্রচার করে ওই সংগঠন। দুইটি সূত্রের বরাতে দ্য ইন্টারসেপ্ট জানিয়েছে, এই সংগঠন সৃষ্টি ও অর্থায়নে নেপথ্যে থেকে ভূমিকা রাখছে আইপ্যাক।

ডেমোক্রেট সমর্থকদের ব্যানারে পরিচালিত সংগঠনটি অবশ্য সরাসরি স্যান্ডার্সের বিভিন্ন নীতিমালা নিয়ে কথা বলছে না। বরং যুক্তি হিসেবে হাজির করা হচ্ছে যে, মূল নির্বাচনে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে জয়ের সক্ষমতা নেই স্যান্ডার্সের।

আইওয়া রাজ্যে বিজ্ঞাপন প্রচারে ৮ লাখ ডলার ব্যয় করেছিল ডিএমএফআই। তবে নেভাদায় কত টাকার বিজ্ঞাপন প্রচার করা হবে, তা এখনও জানানো হয়নি। আইপ্যাক তাদের সমর্থক ও দাতাগোষ্ঠীকে বলছে, ডিএমএফআইকে অর্থ দেয়া হলে সেটি আইপ্যাককে অর্থ দেয়া বলে গণ্য হবে।

তবে ডিএমএফআই’র মুখপাত্র র‌্যাচেল রোজেন বলেন, আমরা যদ্দূর জানি, এ ধরনের কোনো সহযোগিতার কথা একেবারেই অসত্য। তবে আমরা যেহেতু আলাদা সংগঠন, ফলে অন্য একটি সংগঠন কী করছে, তা আমরা বলতে পারব না। এ ব্যাপারে আইপ্যাকের সঙ্গে যোগাযোগ করাই ভালো।

অপরদিকে আইপ্যাক বিষয়টি অস্বীকার করেছে। সংস্থাটির মুখপাত্র মার্শাল উইটম্যান এক ইমেইল বিবৃতিতে বলেছে, ‘আইপ্যাক কোনো রাজনৈতিক অ্যাকশন কমিটির বিজ্ঞাপন প্রচারণায় সম্পৃক্ত নয়। এ অভিযোগের কোনো ভিত্তি নেই।’

মূলত মার্কিন প্রেসিডেন্ট পদে ডেমোক্রেট দলীয় মনোনয়নপ্রত্যাশীদের মধ্যে বার্নি স্যান্ডার্স ফিলিস্তিনি স্বাধিকার নিয়ে বেশি সরব। নিজে ইহুদি হলেও তিনিই একমাত্র প্রার্থী যিনি প্রকাশ্যেই বলছেন, ইসরাইলি ও ফিলিস্তিনি প্রত্যেকেরই রয়েছে সমান অধিকার।

এছাড়া তার প্রচারশিবিরে সরাসরি সম্পৃক্ততা রয়েছে ২ মুসলিম নারী কংগ্রেস সদস্যের, যারা প্রকাশ্যেই ইসরাইলের বিরোধী। আরেক প্রগতিশীল নারী কংগ্রেস সদস্য বেটি ম্যাকালাম গত বুধবার আইপ্যাকের কড়া সমালোচনা করে বলেন, আইপ্যাক স্যান্ডার্সের বিরুদ্ধে বিদ্বেষ উসকে দিচ্ছে।

সম্প্রতি আইপ্যাকের সোস্যাল মিডিয়া পেইজে ম্যাকালাম ও ২ নারী মুসলিম কংগ্রেস সদস্য রাশিয়া তিলাইব ও ইলহান ওমরের ছবি যুক্ত করে বলা হয়, কংগ্রেসের এই উগ্রবাদীরা হয়তো জঙ্গিগোষ্ঠী আইএস’র চেয়েও বেশি ভয়ংকর। ওই ঘটনার পর ভয়াবহ সমালোচনার মুখে আইপ্যাক ক্ষমা চায়। এছাড়া কংগ্রেসে ডেমোক্র্যাট দলীয় নেতাদের সঙ্গে দেখা করে ক্ষমা চেয়ে ব্যাখ্যা দিতে বাধ্য হন প্রতিষ্ঠানটির নেতারা।

স্যান্ডার্স দীর্ঘদিন ধরেই ইসরাইলের প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের শর্তহীন সমর্থনের সমালোচক। তিনি অক্টোবরে বলেছেন, প্রেসিডেন্ট হলে তিনি ইসরাইলকে দেয়া মার্কিন সামরিক সহায়তার সঙ্গে শর্ত যুক্ত করবেন যেন ইসরাইল তার বসতি স্থাপন নীতি পরিবর্তন করে।

ঘটনাপ্রবাহ : মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন-২০২০

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত