ভারতের ক্ষতি হবে ৯ লাখ কোটি রুপি
jugantor
ভারতের ক্ষতি হবে ৯ লাখ কোটি রুপি

  যুগান্তর ডেস্ক  

২৭ মার্চ ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

করোনাভাইরাসের প্রভাবে ভারতের আর্থিক ক্ষতি হবে নয় লাখ কোটি রুপি। বুধবার এ তথ্য জানিয়েছে ব্রিটিশ ব্রোকারেজ সংস্থা বার্কলেজ।

করোনাভাইরাসের প্রভাবে ভারতের আর্থিক ক্ষতি হবে নয় লাখ কোটি রুপি। বুধবার এ তথ্য জানিয়েছে ব্রিটিশ ব্রোকারেজ সংস্থা বার্কলেজ।

আর্থিক ধাক্কা সামলাতে অন্তত দুই হাজার ২০০ কোটি ডলারের প্যাকেজ ঘোষণা করেছে নরেন্দ্র মোদির সরকার।

বার্কলেজের সমীক্ষায় বলা হয়েছে, ভারতে চার সপ্তাহ সম্পূর্ণ লকডাউন চলবে। আংশিক লকডাউন চলবে আরও প্রায় আট সপ্তাহ। অর্থাৎ ২০২০-২১ অর্থবছরের প্রথম ত্রৈমাসিকের প্রায় পুরোসময়ে এর প্রভাব থাকবে।

এতে চলতি বছরে প্রবৃদ্ধির হার আড়াই শতাংশে নামতে পারে। ২০২০-২১ অর্থবছরে তা হতে পারে সাড়ে তিন শতাংশ। খবর এনডিটিভির।

রিপোর্টে দাবি করা হয়েছে, কেন্দ্রীয়ভাবে ভারত মঙ্গলবার গভীর রাত থেকে লকডাউন কার্যকর করলেও দেশটির বিভিন্ন রাজ্য তার আগে থেকেই লকডাউন শুরু করেছিল। যার প্রভাবে অর্থনৈতিক ক্ষতি দাঁড়াতে পারে নয় লাখ কোটি রুপি।

তার মধ্যে শুধু দেশটির কেন্দ্রীয় লকডাউনেই ক্ষতি হবে সাত লাখ কোটি রুপি। মূল্যায়ন সংস্থা কেয়ার রেটিংস বলছে, চলতি অর্থবছরের চতুর্থ ত্রৈমাসিকে প্রবৃদ্ধি দাঁড়াতে পারে দেড় থেকে আড়াই শতাংশ পর্যন্ত।

করোনার ভয়ঙ্কর পরিস্থিতি মোকাবেলায় দুই হাজার ২০০ কোটি ডলার (এক লাখ ৭০ হাজার কোটি রুপি) প্যাকেজ ঘোষণা করেছেন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ। এই অর্থ থেকে দরিদ্র শ্রেণির মানুষের জন্য নগদ ও খাদ্যে ভর্তুকি দেয়া হবে বলেও জানান তিনি।

ভারতের ক্ষতি হবে ৯ লাখ কোটি রুপি

 যুগান্তর ডেস্ক 
২৭ মার্চ ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ
করোনাভাইরাসের প্রভাবে ভারতের আর্থিক ক্ষতি হবে নয় লাখ কোটি রুপি। বুধবার এ তথ্য জানিয়েছে ব্রিটিশ ব্রোকারেজ সংস্থা বার্কলেজ।
ছবি: এএফপি

করোনাভাইরাসের প্রভাবে ভারতের আর্থিক ক্ষতি হবে নয় লাখ কোটি রুপি। বুধবার এ তথ্য জানিয়েছে ব্রিটিশ ব্রোকারেজ সংস্থা বার্কলেজ।

আর্থিক ধাক্কা সামলাতে অন্তত দুই হাজার ২০০ কোটি ডলারের প্যাকেজ ঘোষণা করেছে নরেন্দ্র মোদির সরকার।

বার্কলেজের সমীক্ষায় বলা হয়েছে, ভারতে চার সপ্তাহ সম্পূর্ণ লকডাউন চলবে। আংশিক লকডাউন চলবে আরও প্রায় আট সপ্তাহ। অর্থাৎ ২০২০-২১ অর্থবছরের প্রথম ত্রৈমাসিকের প্রায় পুরোসময়ে এর প্রভাব থাকবে।

এতে চলতি বছরে প্রবৃদ্ধির হার আড়াই শতাংশে নামতে পারে। ২০২০-২১ অর্থবছরে তা হতে পারে সাড়ে তিন শতাংশ। খবর এনডিটিভির।

রিপোর্টে দাবি করা হয়েছে, কেন্দ্রীয়ভাবে ভারত মঙ্গলবার গভীর রাত থেকে লকডাউন কার্যকর করলেও দেশটির বিভিন্ন রাজ্য তার আগে থেকেই লকডাউন শুরু করেছিল। যার প্রভাবে অর্থনৈতিক ক্ষতি দাঁড়াতে পারে নয় লাখ কোটি রুপি।

তার মধ্যে শুধু দেশটির কেন্দ্রীয় লকডাউনেই ক্ষতি হবে সাত লাখ কোটি রুপি। মূল্যায়ন সংস্থা কেয়ার রেটিংস বলছে, চলতি অর্থবছরের চতুর্থ ত্রৈমাসিকে প্রবৃদ্ধি দাঁড়াতে পারে দেড় থেকে আড়াই শতাংশ পর্যন্ত।

করোনার ভয়ঙ্কর পরিস্থিতি মোকাবেলায় দুই হাজার ২০০ কোটি ডলার (এক লাখ ৭০ হাজার কোটি রুপি) প্যাকেজ ঘোষণা করেছেন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ। এই অর্থ থেকে দরিদ্র শ্রেণির মানুষের জন্য নগদ ও খাদ্যে ভর্তুকি দেয়া হবে বলেও জানান তিনি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস