ছোট খবর

লকডাউনে নারী নির্যাতন বাড়ছে

  ০৭ এপ্রিল ২০২০, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

করোনাভাইরাসের মহামারী ঠেকাতে বিশ্বজুড়ে লকডাউনের মধ্যে ভয়াবহভাবে বাড়ছে নারী নির্যাতন। সামাজিক ও অর্থনৈতিক কারণে মানসিক চাপের কারণে পুরুষের সহিংসতার শিকার হচ্ছে নারী ও মেয়েশিশুরা। এমন পরিস্থিতিতে নারীদের সুরক্ষা নিশ্চিত করতে দেশে দেশে সরকারগুলোর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরাস। রোববার নিউইয়র্কে জাতিসংঘ সদর দফতর থেকে দেয়া বিবৃতি ও ভিডিওবার্তায় তিনি বলেন, বিশ্ব করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করছে। কিন্তু এর মধ্যেও সহিংসতা থেমে নেই। অনেক নারী ও মেয়েশিশু ঝুঁকিতে রয়েছে। তাদের নিরাপদ করতে হবে।

গুতেরাস বলেন, কয়েক সপ্তাহে অর্থনৈতিক ও সামাজিক চাপ এবং আতঙ্ক বেড়েছে। এর মধ্যেই আমরা নারী ও শিশুর প্রতি ভয়াবহ সহিংসতা দেখেছি। সব সরকারকে করোনা মোকাবেলার অংশ হিসেবে নারী নির্যাতন প্রতিরোধেও পরিকল্পনা করার আহ্বান জানান তিনি। নির্যাতনকারীদের সতর্ক না করেই নারীরা যাতে সহায়তা পেতে পারে, সেজন্য ওষুধ ও মুদি দোকানে জরুরি সতর্ক সিস্টেম চালু করার আহ্বান জানান গুতেরাস। তিনি বলেন, আমরা যেভাবে করোনা প্রতিরোধ করছি, একইভাবে সবাই মিলে বাড়ি থেকে যুদ্ধক্ষেত্র- সব জায়গায় নারীর প্রতি সহিংসতা অবশ্যই প্রতিরোধ করতে পারি।

জাতিসংঘের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত ওই বিবৃতিতে আরও বলা হয়, করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের আগে পরিসংখ্যানে দেখা গিয়েছিল বিশ্বের প্রায় এক-তৃতীয়াংশ নারী কোনো না কোনো সময় নির্যাতনের মুখোমুখি হয়েছেন। তবে এই সংখ্যা দ্রুত বাড়ছে। গুতেরেস বলেন, এই ইস্যুটি উন্নত ও দরিদ্র অর্থনীতির দেশ উভয়কেই প্রভাবিত করে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের এক-চতুর্থাংশ কলেজছাত্রী যৌন নির্যাতন বা দুর্ব্যবহারের কথা জানিয়েছেন। অপরদিকে আফ্রিকার সাব সাহারান দেশগুলোতে ৬৫ শতাংশ নারী সরাসরি নির্যাতনের শিকার। বিবৃতিতে বলা হয়েছে, লকডাউনের প্রথম সপ্তাহেই ভারতে নারী নির্যাতন প্রায় দ্বিগুণ হয়েছে। তুরস্কে সবাইকে ঘরে থাকার নির্দেশনা দেয়ার পর থেকে নারী-হত্যার হার বেড়েছে।

 

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত