ক্যালকুলেটরে জানা যাবে করোনা রোগীর মৃত্যু ঝুঁকি

ইউনিভার্সিটি কলেজ লন্ডন ও ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের আবিষ্কার

  যুগান্তর ডেস্ক ১৪ মে ২০২০, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ব্রিটিশ বিজ্ঞানীরা এমন একটি ক্যালকুলেটর আবিষ্কার করেছেন যা কোভিড-১৯ আক্রান্ত ব্যক্তির মৃত্যু ঝুঁকি জানিয়ে দেবে। এটি অবিষ্কার করেছেন ইউনিভার্সিটি কলেজ লন্ডন ও ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশেষজ্ঞরা। ওই ক্যালকুলেটরে হিসাব করে তারা বলেছেন, লকডাউন ওঠার পর ব্রিটেনের ৮০ লাখের বেশি উচ্চ ঝুঁকিপূর্ণ মানুষের বাড়িতে থাকতে হবে। তাদের দাবি, ঝুঁকিপূর্ণ ব্রিটিশদের করোনা থেকে বাঁচাতে এবং পরবর্তী বছরে মৃত্যুর সংখ্যা ৭৩ হাজারের নিচে রাখার এটাই একমাত্র উপায়।

বিজ্ঞানীরা আরও সতর্ক করে দিয়ে বলেছেন, খুব দ্রুত নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করলে মৃতের সংখ্যা চার লাখ ছাড়িয়ে যাবে এবং করোনা সংক্রমণের হার নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাবে। খবর দ্য সানের।

সম্প্রতি চিকিৎসা বিষয়ক সাময়িকী ল্যানসেটে গবেষণাটি প্রকাশিত হয়েছে। গবেষণায় ৩৮ লাখ মানুষের স্বাস্থ্য রেকর্ড বিশ্লেষণ করা হয়েছে। এতে দেখা গেছে, এক বছরের মধ্যে মহামারীতে অতিরিক্ত ৩৭ হাজার থেকে ৭৩ হাজার মানুষের মৃত্যু হতে পারে।

গবেষকরা হুশিয়ারি দিয়েছেন যে, হৃদরোগ বা ডায়াবেটিসে ভোগা লোকদের মৃত্যু ঝুঁকি অন্য ব্রিটিশদের তুলনায় পাঁচগুণ বেশি। ৭০ বছরের বেশি বয়সীরা সবচেয়ে বেশি ঝুঁকিতে।

গবেষকরা হিসাব করে দেখেছেন যে, যুক্তরাজ্যে ৮৪ লাখ নাগরিকের মৃত্যু ঝুঁকি সবচেয়ে বেশি, তাদের বাইরে যাওয়া এড়িয়ে চলা উচিত। ব্রিটিশরা যাতে নিজেরাই নিজেদের ঝুঁকি যাচাই করতে পারে সেজন্য গবেষকদের দলটি কোভিড-রিস্ক ক্যালকুলেটর তৈরি করেছে। গবেষকদের প্রধান ড. অমিতাভ ব্যানার্জি বলেছেন, ‘বয়স্ক লোকেরা, যারা ইতোমধ্যে এক বা একাধিক স্বাস্থ্যগত জটিলতায় রয়েছেন তারা চরম ঝুঁকিতে রয়েছেন। বিভিন্ন পরিস্থিতির ডেটা মডেলিং ব্যবহার করে আমাদের অনুসন্ধানে দেখা গেছে যে, এসব দুর্বল ব্যক্তির মৃত্যু ঝুঁকি উল্লেখযোগ্য পরিমাণে বৃদ্ধি পেয়েছে এবং তারা লকডাউন শিথিলতাকে এড়িয়ে না গেলে হাজার হাজার মৃত্যু ঠেকানো যাবে না।’ তিনি আরও বলেন, ‘আমাদের ক্যালকুলেটরটি প্রথম কোনো যন্ত্র যা ডাক্তার, স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ এবং জনসাধারণকে করোনায় মৃত্যু ঝুঁকি জানিয়ে দেবে।’

ক্যালকুলেটরটি ব্যক্তির বয়স, লিঙ্গ এবং অন্তর্নিহিত স্বাস্থ্য পরিস্থিতি বিবেচনায় নিয়ে করোনায় মৃত্যুহার প্রভাব মূল্যায়ন করে। বর্তমানে ক্যালকুলেটরটিতে কিছু সমস্যা দেখা দিচ্ছে এবং কিছু ব্যবহারকারীর পক্ষে এটি কাজ করছে না। করোনা মহামারী শুরু হওয়ার আগে ৭০ বছরের কম বয়সীদের গড় ঝুঁকি ছিল দশমিক ছয় শতাংশ। নাগরিকদের একটি অন্তর্নিহিত স্বাস্থ্য সমস্যার ক্ষেত্রে ঝুঁকি ছিল তিন দশমিক পাঁচ শতাংশ এবং দুটির ক্ষেত্রে ৭ দশমিক ৫ শতাংশ। ডা ব্যানার্জি বলেছেন, ‘আমাদের ক্যালকুলেটরটি বয়স এবং লিঙ্গ বিবেচনায় নিয়ে এক বছরের মৃত্যু ঝুঁকি সরবরাহ করে। বর্তমান জরুরি পরিস্থিতিতে নির্ভরযোগ্য স্বাস্থ্যের তথ্যের ভিত্তিতে কারা ঝুঁকিতে রয়েছেন সে সম্পর্কে আরও উন্নত ধারণা বিকাশের প্রয়োজন।’ ব্রিটেনে করোনাভাইরাসের মহামারীতে মৃত্যুর সংখ্যা ৩২ হাজার ৬৯২, যা ইউরোপের দেশগুলোর মধ্যে সর্বোচ্চ। দেশটিতে আক্রান্ত হয়েছেন দুই লাখ ২৬ হাজার ৪৬৩ জন। ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের করোনাভাইরাস মোকাবেলার কৌশল এবং যোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে।

 

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত