ভারতীয় কর্মীদের বেধড়ক মারধর করেছে পাকিস্তান
jugantor
ভারতীয় কর্মীদের বেধড়ক মারধর করেছে পাকিস্তান

  যুগান্তর ডেস্ক  

১৭ জুন ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ভারতীয় কর্মীদের বেধড়ক মারধর করেছে পাকিস্তান

পাকিস্তানের ইসলামাবাদে ভারতীয় হাইকমিশনের দুই কর্মীকে অপহরণ করা হয়েছিল। তাদের রড বা কাঠ দিয়ে বেধড়ক মারধর করা হয়েছে।

নোংরা পানি পান করতে বাধ্য করা হয়েছে বলে মঙ্গলবার সংবাদ প্রকাশ করেছে ভারতীয় গণমাধ্যম হিন্দুস্থান টাইমস। সোমবার সকাল থেকে ওই দুই হাইকমিশন কর্মীর খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না।

প্রাথমিকভাবে পাকিস্তানের তরফে গা-ছাড়া মনোভাব দেখানো হয়। ইতোমধ্যে ডেকে পাঠানো হয় দিল্লিতে পাকিস্তানের দূতাবাসের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সৈয়দ হায়দার শাহকে।

নয়াদিল্লি সাফ জানিয়ে দেয়, পাকিস্তানে ভারতীয় হাইকমিশনের কর্মীদের নিরাপত্তার যাবতীয় দায়িত্ব ইমরান খান প্রশাসনের।

শেষপর্যন্ত ভারতের চাপের মুখে সাত ঘণ্টা টানাপোড়েনের পর দুই কর্মীকে ভারতীয় হাইকমিশনের হাতে তুলে দেয়া হয়। তাদের শরীরে ক্ষত ধরা পড়ে। গলা, মুখসহ শরীরের বিভিন্ন জায়গায় তাদের মারাত্মক আঘাত লেগেছে।

হিন্দুস্থান টাইমস তাদের প্রতিবেদনে সূত্রের বরাতে জানিয়েছে, সোমবার ৮টা ৩০ মিনিট থেকে ৮টা ৪৫ মিনিটের মধ্যে হাইকমিশনের কাছের একটি পেট্রল পাম্প থেকে দুই কর্মীকে তুলে নিয়ে যায় ১৫-১৬ জনের একটি সশস্ত্র দল। তারা ৫-৬টি গাড়িতে করে এসেছিল।

হাইকমিশনের কর্মীদের চোখ বেঁধে তাদের হাতকড়া পরানো হয়। মাথার ওপর ছুড়ে দেয়া হয় রুকস্যাক।

সেখান থেকে তাদের মিনিটদশেক দূরত্বের একটি জায়গায় নিয়ে যাওয়া হয়। দুপুর ২টা পর্যন্ত তাদের জিজ্ঞাসাবাদ চলে। সেই সময় তাদের রড বা কাঠ জাতীয় কিছু দিয়ে বেধড়ক মারধর করা হয়। নোংরা পানি পান করতেও বাধ্য করা হয়।

সূত্রের খবর, দুই কর্মীর কাছ থেকে হাইকমিশনের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা থেকে শুরু করে সব কর্মীদের বিষয়ে খুঁটিনাটি জানা যায়।

খবরে আরও প্রকাশ, হাইকমিশনের ওই দুই কর্মী দুর্ঘটনা ঘটিয়েছেন বলে তাদের স্বীকার করতে বাধ্য করা হয়। সেই স্বীকারোক্তির ভিডিও করে রাখে অপহরণকারীরা।

ভারতীয় কর্মীদের বেধড়ক মারধর করেছে পাকিস্তান

 যুগান্তর ডেস্ক 
১৭ জুন ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ
ভারতীয় কর্মীদের বেধড়ক মারধর করেছে পাকিস্তান
ছবি: সংগৃহীত

পাকিস্তানের ইসলামাবাদে ভারতীয় হাইকমিশনের দুই কর্মীকে অপহরণ করা হয়েছিল। তাদের রড বা কাঠ দিয়ে বেধড়ক মারধর করা হয়েছে।

নোংরা পানি পান করতে বাধ্য করা হয়েছে বলে মঙ্গলবার সংবাদ প্রকাশ করেছে ভারতীয় গণমাধ্যম হিন্দুস্থান টাইমস। সোমবার সকাল থেকে ওই দুই হাইকমিশন কর্মীর খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না।

প্রাথমিকভাবে পাকিস্তানের তরফে গা-ছাড়া মনোভাব দেখানো হয়। ইতোমধ্যে ডেকে পাঠানো হয় দিল্লিতে পাকিস্তানের দূতাবাসের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সৈয়দ হায়দার শাহকে।

নয়াদিল্লি সাফ জানিয়ে দেয়, পাকিস্তানে ভারতীয় হাইকমিশনের কর্মীদের নিরাপত্তার যাবতীয় দায়িত্ব ইমরান খান প্রশাসনের।

শেষপর্যন্ত ভারতের চাপের মুখে সাত ঘণ্টা টানাপোড়েনের পর দুই কর্মীকে ভারতীয় হাইকমিশনের হাতে তুলে দেয়া হয়। তাদের শরীরে ক্ষত ধরা পড়ে। গলা, মুখসহ শরীরের বিভিন্ন জায়গায় তাদের মারাত্মক আঘাত লেগেছে।

হিন্দুস্থান টাইমস তাদের প্রতিবেদনে সূত্রের বরাতে জানিয়েছে, সোমবার ৮টা ৩০ মিনিট থেকে ৮টা ৪৫ মিনিটের মধ্যে হাইকমিশনের কাছের একটি পেট্রল পাম্প থেকে দুই কর্মীকে তুলে নিয়ে যায় ১৫-১৬ জনের একটি সশস্ত্র দল। তারা ৫-৬টি গাড়িতে করে এসেছিল।

হাইকমিশনের কর্মীদের চোখ বেঁধে তাদের হাতকড়া পরানো হয়। মাথার ওপর ছুড়ে দেয়া হয় রুকস্যাক।

সেখান থেকে তাদের মিনিটদশেক দূরত্বের একটি জায়গায় নিয়ে যাওয়া হয়। দুপুর ২টা পর্যন্ত তাদের জিজ্ঞাসাবাদ চলে। সেই সময় তাদের রড বা কাঠ জাতীয় কিছু দিয়ে বেধড়ক মারধর করা হয়। নোংরা পানি পান করতেও বাধ্য করা হয়।

সূত্রের খবর, দুই কর্মীর কাছ থেকে হাইকমিশনের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা থেকে শুরু করে সব কর্মীদের বিষয়ে খুঁটিনাটি জানা যায়।

খবরে আরও প্রকাশ, হাইকমিশনের ওই দুই কর্মী দুর্ঘটনা ঘটিয়েছেন বলে তাদের স্বীকার করতে বাধ্য করা হয়। সেই স্বীকারোক্তির ভিডিও করে রাখে অপহরণকারীরা।

 

ঘটনাপ্রবাহ : কাশ্মীর সংকট