বানরে পাড়া নারকেলের পণ্য বর্জন

  যুগান্তর ডেস্ক ০৫ জুলাই ২০২০, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

বানর দিয়ে পাড়া নারকেলের পণ্য বিক্রি বর্জন করল থাইল্যান্ডের সুপারমার্কেটগুলো। দেশটিতে বানরের গলায় শেকল বেঁধে আকাশচুম্বী গাছগুলো থেকে নারিকেল পাড়ার কৌশল দিন দিন বাড়ছে। একেকটা বানর দিয়ে প্রতিদিন অন্তত ১০০০টি নারকেল পাড়ে ব্যবসায়ীরা। এমন তথ্য সামনে আসার পরে নিজেদের সুপারশপগুলোতে নারকেলের পানি ও তেলের তৈরি জিনিসপত্র বিক্রি বন্ধ করে দিয়েছে দেশটির বেশ কিছু সুপারমার্কেট। বিবিসি।

শুক্রবার থাইল্যান্ডের প্রাণী অধিকার সংগঠন পিপল ফর এথিকাল ট্রিটমেন্ট অব অ্যানিম্যাল (পেটা) এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, থাইল্যান্ডে এসব বানরকে নারকেল পাড়ার মেশিন হিসেবে ব্যবহার করা হয়। তারই প্রতিক্রিয়ায় দেশটির বড় বড় সুপারমার্কেট ওয়েট্রস, ওকাডো, কো-অপ এবং বুটস কিছু কিছু পণ্য বিক্রি করা বন্ধ করে দিয়েছে। দেশটির প্রধানমন্ত্রীর বাগদত্তা ক্যারি সিমন্ডও এদিন এক টুইটে সব সুপারমার্কেটকে সেসব পণ্য বর্জন করার আহ্বান জানান।

একই সময়ে মরিসনও জানিয়েছে, বানরের পেড়ে আনা নারকেল দিয়ে বানানো জিনিসপত্র সরিয়ে ফেলেছে তারা। এক বিবৃতিতে ওয়েট্রস জানিয়েছে, আমাদের প্রাণীকল্যাণ নীতি অনুযায়ী, বানর শ্রমের মাধ্যমে তৈরি হওয়া কোনো পণ্য বিক্রি না করতে আমরা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। কো-অপ জানিয়েছে, খুচরা বিক্রেতা হিসেবে আমাদের কোনো পণ্যের উপাদান সংগ্রহের জন্য বানর শ্রমের অনুমতি দেব না। পেটা জানিয়েছে, তারা থাইল্যান্ডে এমন আটটি ফার্ম পেয়েছে যারা দেশের বাইরেও রফতানি কাজে ব্যবহারের জন্য নারকেল পাড়ার কাজ করায় বানরকে দিয়ে। যেখানে একজন মানুষ দিনে ৮০টি নারকেল পাড়তে পারে সেখানে বানর পারে ১০০০টি। তারা প্রাণীদের স্কুলও আবিষ্কার করেছে। যেখানে প্রাণীদের ফল পাড়া, বাইকে চড়া, বাস্কেটবল খেলা শেখানো হয় পর্যটকদের মনোরঞ্জনের জন্য। তাদের কাউকে কাউকে শিশু অবস্থাতেই অবৈধভাবে আটক করা হয় এবং এ ধরনের আচরণে তাদের মধ্যে চাপ তৈরি করা হয়। বানরগুলোকে পুরনো টায়ারের সঙ্গে শিকল বেঁধে রাখা হয় অথবা এমন ছোট কিছু খাঁচায় রাখা হয় যেখানে সে ঘুরতেও পারে না।

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত