আয়ারল্যান্ডে আরেক হংকং গড়বেন ধনকুবের

  যুগান্তর ডেস্ক ৩১ জুলাই ২০২০, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

হংকংত্যাগী প্রায় ৫০ হাজার মানুষের জন্য আয়ারল্যান্ডে দ্বীপ কিনে আরেকটি হংকং শহর গড়ে তুলতে চান আধা স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চলটির এক ধনকুবের। আয়ারল্যান্ডের রাজধানী ডাবলিন ও বেলফাস্টের মধ্যবর্তী ৫০ হাজার বর্গকিলোমিটারের একটি স্থানে নতুন এ শহর গড়ে উঠবে। নতুন এ শহরের নাম হবে ‘নেক্সপলিস’। নয়া শহরটিকে বাস্তবায়নে রূপ দেয়ার স্বপ্ন দেখছেন আন্তর্জাতিক চার্টার সিটি ইনভেস্টমেন্ট কোম্পানি ভিক্টোরিয়া হার্ভার গ্রুপের (ভিএইচজি) প্রতিষ্ঠাতা ইভান কো। নতুন এ শহরে থাকবে স্কুল, যেখানে ক্যান্টনিজ (চীনের গুয়াংঝু প্রদেশের একটি ভাষা) থেকে শুরু করে আইরিশ ভাষা শেখানো হবে। ইভান কো ছয়টি স্থানকে প্রাথমিকভাবে মনোনয়ন করেছিলেন। এর মধ্যে নর্দান আয়ারল্যান্ড সীমান্তের ড্রোগেদা ও ডুনডাল্ক শহরের মাঝের একটি স্থানকে চূড়ান্ত করেছেন। এটি ডাবলিন বিমানবন্দর থেকে খুবই কাছে। মঙ্গলবার ইভান দ্য গার্ডিয়ানকে বলেন, ‘আমরা আয়ারল্যান্ডকে ভালোবাসি। সেখানে কর্পোরেট কর খুবই কম। শক্তিশালী ম্যানুফ্যাকচারিং ও বায়োমেডিকেল কোম্পানি রয়েছে দেশটিতে। টেক জায়ান্টদের ইউরোপিয়ান সদর দফতরও রয়েছে। সব মিলিয়ে আমি মনে করি, আয়ারল্যান্ড খুবই ভালো।’ আয়ারল্যান্ডের জনঘনত্ব কম হওয়াও দেশটিকে পছন্দের তালিকায় রাখা অন্যতম প্রধান কারণ বলেও জানিয়েছেন ইভান কো। আয়ারল্যান্ডের পররাষ্ট্রবিষয়ক বিভাগের মুখপাত্র বলেছেন, ‘ইভান কোর সঙ্গে আমাদের এ বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে নেয়া এ প্রাথমিক পদক্ষেপের বিষয়ে বিভাগের কর্মকর্তাদের সঙ্গে নির্দিষ্ট ব্যক্তির যোগাযোগ কম ছিল। ফলে অধিদফতরের পক্ষ থেকে আর কোনো পদক্ষেপ নেয়া হয়নি।’ আয়ারল্যান্ড ও অন্যান্য দফতরের প্রতিক্রিয়ার পর মাঠে নামেন ইভান কো। তিনি বলেন, ‘প্রথমে হংকং মডেল যথাযথ ছিল না। এতে অন্যান্য জনসংখ্যা থেকে হংকংয়ের মানুষ পৃথক হয়ে যেত। এজন্য আরেকটি মডেল হাতে নেয়া হয়।’

আয়ারল্যান্ডের রাজনৈতিক পদ্ধতির কথা মাথায় রেখেই পরবর্তী মডেলের নকশা করা হয়েছে। ইভান বলেন, ‘আমাদের কোনো আলাদা সীমান্ত বা দেশ নেই। শুধু নতুন শহরে হংকংয়ের মানুষ

একত্রে বসবাস করবেন। একই সঙ্গে স্থানীয় ব্যবসায়ীদের সঙ্গে মিলে কাজ করবে, এতে উভয় পক্ষই উপকৃত হবে।’ গার্ডিয়ান বলছে, করোনাভাইরাস মহামারী কড়াকড়ি শিথিল হলে চলতি বছরের শেষদিকে আয়ারল্যান্ডের প্রতিনিধিদের সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করবেন ইভান। এছাড়া স্থানীয় মানুষের সঙ্গে সাক্ষাৎ ও সম্ভাব্য স্থানটি পরিদর্শন করারও ইচ্ছা আছে তার।

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত