ড্রোনের মাধ্যমে কাশ্মীরে অস্ত্র পাঠাচ্ছে পাকিস্তান
jugantor
ড্রোনের মাধ্যমে কাশ্মীরে অস্ত্র পাঠাচ্ছে পাকিস্তান

  যুগান্তর ডেস্ক  

২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ভারতশাসিত কাশ্মীর তথা জম্মু ও কাশ্মীরে ড্রোনের মাধ্যমে অর্থ ও অস্ত্র পাঠানো হচ্ছে বলে দাবি করেছে ভারত। জম্মু ও কাশ্মীরের রাজৌরি জেলায় ভারতীয় রুপি পাঠানো হয়। এ ঘটনায় লস্কর-ই-তাইয়েবার তিন সন্ত্রাসীকে লাইন অব কন্ট্রোলের কাছ থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

পুলিশ ও সীমান্তরক্ষী ৩৮ রাষ্ট্রীয় রাইফেলের যৌথ অভিযানে তাদের গ্রেফতার করা হয়। তাদের কাছে থাকা পেনড্রাইভ থেকে এ সংক্রান্ত বিভিন্ন তথ্য ও অস্ত্র-অর্থ পাঠানোর ছক উদ্ধার করা হয়েছে। টাইমস অব ইন্ডিয়া।

এর আগে সেখান থেকে বিপুল পরিমাণ অস্ত্র ও বিভিন্ন সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়। গ্রেফতার তিন সন্ত্রাসীর দু’জন কাশ্মীরের বাসিন্দা।

তারা পাকিস্তানের ভেতর থেকে ভারতীয় অংশে ড্রোনে অস্ত্র ও অন্যান্য সরঞ্জাম তুলে দেয়ার জন্য এসেছিল। এছাড়া বালাকোট সীমান্তে হেরোইন উদ্ধার করার কথাও জানিয়েছে ভারতীয় পুলিশ।

পাকিস্তান ও এর বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থা সীমান্তে শান্তি-শৃঙ্খলা নষ্টের জন্য সব সময় তৎপর থাকে বলে ভারতের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়।

উল্লেখ্য, ভারত বিভিন্ন সময় সীমান্ত পেরিয়ে সন্ত্রাসী হামলার অভিযোগ করে থাকে পাকিস্তানের বিপক্ষে। দেশটির পুলিশ জানাচ্ছে, পুলিশ, সামরিক ও সীমান্তরক্ষী বাহিনীর যৌথ অভিযানে সীমান্ত এলাকায় ভালো ফল পাওয়া যাচ্ছে। অনেক সন্ত্রাসী হামলা নস্যাৎ করে দেয়ার পাশাপাশি অস্ত্র, গোলাবারুদ ও মাদকদ্রব্য উদ্ধার করা সম্ভব হচ্ছে।

পাকিস্তান সীমান্তে অতিরিক্ত ৩ হাজার সেনা মোতায়েন ভারতের : লাদাখে চীন-ভারতের উত্তেজনার কারণে সেখানে বিপুল সেনা মোতায়েন করেছে দিল্লি। এরই মধ্যে পাকিস্তানের সন্ত্রাসীদের অনুপ্রবেশ ঠেকাতে কাশ্মীর সীমান্তে অতিরিক্ত তিন হাজার সেনা মোতায়েন করেছে ভারত। শনিবার এ খবর জানিয়েছে ইন্ডিয়া টুডে।

সূত্রের বরাতে বলা হয়েছে, সেনারা নিয়ন্ত্রণরেখায় সন্ত্রাসীদের অনুপ্রবেশ ঠেকাতে সক্ষম হয়েছে। অতিরিক্ত সেনা সীমান্তে সন্ত্রাসীদের বড় ধরনের প্রায় সব অনুপ্রবেশের চেষ্টা বন্ধ করতে সক্ষম হবে। সম্প্রতি গারেজ সেক্টরে সেনাবাহিনী অনুপ্রবেশ ঠেকাতে সফল হয়েছে।

সূত্রটি বলছে, পাকিস্তান নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরে কয়েক ব্যাটালিয়ন অতিরিক্তে সেনা মোতায়েন করেছে ইসলামাবাদ। চীনকে সমর্থন জানাতে ভারতের ওপর বাড়তি চাপ প্রয়োগের অংশ হিসেবে এই সেনাদের মোতায়েন করা হয়েছে কিনা তা স্পষ্ট নয়। সম্প্রতি কাশ্মীরের শ্রীনগর সফর করেন ভারতের সেনাপ্রধান মনোজ মুকুন্দ নারাভানে।

তিনি প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখার পরিস্থিতিও খতিয়ে দেখেন। এ সময় সেনা কর্মকর্তারা তাকে নিরাপত্তা পরিস্থিতির বিষয়টি জানান। এরপরই পাক সীমান্তে অতিরিক্ত সেনা মোতায়েন করা হল।

ড্রোনের মাধ্যমে কাশ্মীরে অস্ত্র পাঠাচ্ছে পাকিস্তান

 যুগান্তর ডেস্ক 
২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ভারতশাসিত কাশ্মীর তথা জম্মু ও কাশ্মীরে ড্রোনের মাধ্যমে অর্থ ও অস্ত্র পাঠানো হচ্ছে বলে দাবি করেছে ভারত। জম্মু ও কাশ্মীরের রাজৌরি জেলায় ভারতীয় রুপি পাঠানো হয়। এ ঘটনায় লস্কর-ই-তাইয়েবার তিন সন্ত্রাসীকে লাইন অব কন্ট্রোলের কাছ থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

পুলিশ ও সীমান্তরক্ষী ৩৮ রাষ্ট্রীয় রাইফেলের যৌথ অভিযানে তাদের গ্রেফতার করা হয়। তাদের কাছে থাকা পেনড্রাইভ থেকে এ সংক্রান্ত বিভিন্ন তথ্য ও অস্ত্র-অর্থ পাঠানোর ছক উদ্ধার করা হয়েছে। টাইমস অব ইন্ডিয়া।

এর আগে সেখান থেকে বিপুল পরিমাণ অস্ত্র ও বিভিন্ন সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়। গ্রেফতার তিন সন্ত্রাসীর দু’জন কাশ্মীরের বাসিন্দা।

তারা পাকিস্তানের ভেতর থেকে ভারতীয় অংশে ড্রোনে অস্ত্র ও অন্যান্য সরঞ্জাম তুলে দেয়ার জন্য এসেছিল। এছাড়া বালাকোট সীমান্তে হেরোইন উদ্ধার করার কথাও জানিয়েছে ভারতীয় পুলিশ।

পাকিস্তান ও এর বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থা সীমান্তে শান্তি-শৃঙ্খলা নষ্টের জন্য সব সময় তৎপর থাকে বলে ভারতের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়।

উল্লেখ্য, ভারত বিভিন্ন সময় সীমান্ত পেরিয়ে সন্ত্রাসী হামলার অভিযোগ করে থাকে পাকিস্তানের বিপক্ষে। দেশটির পুলিশ জানাচ্ছে, পুলিশ, সামরিক ও সীমান্তরক্ষী বাহিনীর যৌথ অভিযানে সীমান্ত এলাকায় ভালো ফল পাওয়া যাচ্ছে। অনেক সন্ত্রাসী হামলা নস্যাৎ করে দেয়ার পাশাপাশি অস্ত্র, গোলাবারুদ ও মাদকদ্রব্য উদ্ধার করা সম্ভব হচ্ছে।

পাকিস্তান সীমান্তে অতিরিক্ত ৩ হাজার সেনা মোতায়েন ভারতের : লাদাখে চীন-ভারতের উত্তেজনার কারণে সেখানে বিপুল সেনা মোতায়েন করেছে দিল্লি। এরই মধ্যে পাকিস্তানের সন্ত্রাসীদের অনুপ্রবেশ ঠেকাতে কাশ্মীর সীমান্তে অতিরিক্ত তিন হাজার সেনা মোতায়েন করেছে ভারত। শনিবার এ খবর জানিয়েছে ইন্ডিয়া টুডে।

সূত্রের বরাতে বলা হয়েছে, সেনারা নিয়ন্ত্রণরেখায় সন্ত্রাসীদের অনুপ্রবেশ ঠেকাতে সক্ষম হয়েছে। অতিরিক্ত সেনা সীমান্তে সন্ত্রাসীদের বড় ধরনের প্রায় সব অনুপ্রবেশের চেষ্টা বন্ধ করতে সক্ষম হবে। সম্প্রতি গারেজ সেক্টরে সেনাবাহিনী অনুপ্রবেশ ঠেকাতে সফল হয়েছে।

সূত্রটি বলছে, পাকিস্তান নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরে কয়েক ব্যাটালিয়ন অতিরিক্তে সেনা মোতায়েন করেছে ইসলামাবাদ। চীনকে সমর্থন জানাতে ভারতের ওপর বাড়তি চাপ প্রয়োগের অংশ হিসেবে এই সেনাদের মোতায়েন করা হয়েছে কিনা তা স্পষ্ট নয়। সম্প্রতি কাশ্মীরের শ্রীনগর সফর করেন ভারতের সেনাপ্রধান মনোজ মুকুন্দ নারাভানে।

তিনি প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখার পরিস্থিতিও খতিয়ে দেখেন। এ সময় সেনা কর্মকর্তারা তাকে নিরাপত্তা পরিস্থিতির বিষয়টি জানান। এরপরই পাক সীমান্তে অতিরিক্ত সেনা মোতায়েন করা হল।