মালয়েশিয়ায় আবার ক্ষমতার পালাবদল?
jugantor
মালয়েশিয়ায় আবার ক্ষমতার পালাবদল?

  মালয়েশিয়া প্রতিনিধি  

২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ফের উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে মালয়েশিয়ার রাজনীতি। আবারও ক্ষমতার পালাবদল ঘটতে পারে দেশটিতে। বিরোধী নেতা আনোয়ার ইব্রাহিমের কথায় সেই ইঙ্গিতই পাওয়া গেল। নতুন সরকার গঠন করতে চান তিনি।

ফের উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে মালয়েশিয়ার রাজনীতি। আবারও ক্ষমতার পালাবদল ঘটতে পারে দেশটিতে। বিরোধী নেতা আনোয়ার ইব্রাহিমের কথায় সেই ইঙ্গিতই পাওয়া গেল। নতুন সরকার গঠন করতে চান তিনি।

সরকার গঠনে তার প্রতি রয়েছে এমপিদের শক্তিশালী সংখ্যাগরিষ্ঠ সমর্থন। এ বিষয়ে তিনি রাজার সঙ্গে সাক্ষাৎ চেয়েছেন। রাজা যদি তাকে অনুমতি দেন তা হলে তিনি সংখ্যাগরিষ্ঠতার প্রমাণ দিয়ে নতুন সরকার গঠন করবেন।

তাতে ক্ষমতাসীন জোটের ভেতর থেকে জন্ম নেয়া নতুন মুহিদ্দিন ইয়াসিন সরকারের পতন ঘটবে। বুধবার আনোয়ার ইব্রাহিম দাবি করেছেন, তিনি সরকার গঠন করতে চান। ক্ষমতা থেকে উড়িয়ে দিতে চান মুহিদ্দিন সরকারকে। মাত্র সাত মাস আগে জোটের ভেতর ষড়যন্ত্র করে মালয়েশিয়ার ক্ষমতা হাতে নেন মুহিদ্দিন।

আর তাতে ২০১৮ সালের মে মাসে নির্বাচিত ড. মাহাথির মোহাম্মদ সরকারের পতন ঘটে। তবে আনোয়ার ইব্রাহিমকে কতজন এমপি সমর্থন করছেন তিনি তা প্রকাশ করেননি। তবে জানিয়েছেন, রাজার সঙ্গে সাক্ষাৎ চেয়েছেন।

এ নিয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছেন তিনি। বলেছেন, তার প্রতি এমপিদের যে সমর্থন রয়েছে তাতে প্রধানমন্ত্রী মুহিদ্দিন ইয়াসিন নেতৃত্বাধীন সরকারের সময় শেষ হয়ে গেছে। আনোয়ার দাবি করেছেন, তিনি সরকার গঠন করলে তাতে সমর্থন থাকবে জনগণের।

এদিকে আনোয়ার ইব্রাহিমের সংসদ সদস্যদের মধ্যে সংখ্যাগরিষ্ঠ সমর্থন থাকার দাবি প্রমাণ করার জন্য প্রধানমন্ত্রী মুহিদ্দিন ইয়াসিন পিকেআর সভাপতি আনোয়ার ইব্রাহিমকে চ্যালেঞ্জ ছুড়েছেন।

মুহিদ্দিন বলেন, এটি অবশ্যই ফেডারেল সংবিধানের সঙ্গে সঙ্গতিপূর্ণ যথাযথ প্রক্রিয়া অনুসারে করা উচিত। আনোয়ারের ঘোষণা কেবল একটি দাবি।

প্রধানমন্ত্রী মুহিদ্দিন বলছেন, যতক্ষণ না আনোয়ার তার দাবি সমর্থন করার জন্য প্রমাণ হাজির না করেন, পেরিকাতান ন্যাশনাল নেতৃত্বাধীন সরকার শক্ত এবং তিনি বৈধ প্রধানমন্ত্রী হিসেবে রয়েছেন। মুহিদ্দিন জনগণকে এই পরিস্থিতিতে শান্ত থাকার আহ্বান জানিয়েছেন।

এদিকে আনোয়ার ইব্রাহিমের ঘোষণায় সাবাহ নির্বাচনে ওয়ারিশান প্লাসের পক্ষে ভোট পাল্টে যেতে পারে বলে বিশ্লেষকরা জানিয়েছেন।

দেশটির রাজনৈতিক বিশ্লেষক বলছেন, পিকেআর সভাপতি আনোয়ার ইব্রাহিম সম্প্রতি ফেডারেল সরকার গঠনের পক্ষে তার যথেষ্ট সমর্থন আছে জানিয়ে যে ঘোষণা করেন তা ওয়ারিশান প্লাসের পক্ষে সাবাহ নির্বাচনে ভোট পাল্টে দিতে পারে।

ইউনিভার্সিটি মালয়েশিয়া সাবাহ’স রোমজি অ্যাটিগ বলছেন, প্রধানমন্ত্রী মুহিদ্দিন ইয়াসিন-সমর্থিত গাবুনগান রাকিয়াত সাবাহ (জিআরএস) রাজ্য নির্বাচনী প্রচারে এখন পর্যন্ত এগিয়ে রয়েছে বলে মনে হচ্ছে।

তবে আনোয়ারের দাবির ব্যাপারে তিনি বলেন, ওয়ারিশান, উপকো, ডিএপি এবং পিকেআর সমন্বিত ওয়ারিশান প্লাস গঠিত হয় যা পেরিকাতান ন্যাশনাল (পিএন), বরিশান ন্যাশনাল (বিএন) এবং পিবিএস নিয়ে গঠিত জিআরএসকে ছাড়িয়ে যাবে।

মালয়েশিয়ায় আবার ক্ষমতার পালাবদল?

 মালয়েশিয়া প্রতিনিধি 
২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ
ফের উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে মালয়েশিয়ার রাজনীতি। আবারও ক্ষমতার পালাবদল ঘটতে পারে দেশটিতে। বিরোধী নেতা আনোয়ার ইব্রাহিমের কথায় সেই ইঙ্গিতই পাওয়া গেল। নতুন সরকার গঠন করতে চান তিনি।
ছবি: সংগৃহীত

ফের উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে মালয়েশিয়ার রাজনীতি। আবারও ক্ষমতার পালাবদল ঘটতে পারে দেশটিতে। বিরোধী নেতা আনোয়ার ইব্রাহিমের কথায় সেই ইঙ্গিতই পাওয়া গেল। নতুন সরকার গঠন করতে চান তিনি।

সরকার গঠনে তার প্রতি রয়েছে এমপিদের শক্তিশালী সংখ্যাগরিষ্ঠ সমর্থন। এ বিষয়ে তিনি রাজার সঙ্গে সাক্ষাৎ চেয়েছেন। রাজা যদি তাকে অনুমতি দেন তা হলে তিনি সংখ্যাগরিষ্ঠতার প্রমাণ দিয়ে নতুন সরকার গঠন করবেন।

তাতে ক্ষমতাসীন জোটের ভেতর থেকে জন্ম নেয়া নতুন মুহিদ্দিন ইয়াসিন সরকারের পতন ঘটবে। বুধবার আনোয়ার ইব্রাহিম দাবি করেছেন, তিনি সরকার গঠন করতে চান। ক্ষমতা থেকে উড়িয়ে দিতে চান মুহিদ্দিন সরকারকে। মাত্র সাত মাস আগে জোটের ভেতর ষড়যন্ত্র করে মালয়েশিয়ার ক্ষমতা হাতে নেন মুহিদ্দিন।

আর তাতে ২০১৮ সালের মে মাসে নির্বাচিত ড. মাহাথির মোহাম্মদ সরকারের পতন ঘটে। তবে আনোয়ার ইব্রাহিমকে কতজন এমপি সমর্থন করছেন তিনি তা প্রকাশ করেননি। তবে জানিয়েছেন, রাজার সঙ্গে সাক্ষাৎ চেয়েছেন।

এ নিয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছেন তিনি। বলেছেন, তার প্রতি এমপিদের যে সমর্থন রয়েছে তাতে প্রধানমন্ত্রী মুহিদ্দিন ইয়াসিন নেতৃত্বাধীন সরকারের সময় শেষ হয়ে গেছে। আনোয়ার দাবি করেছেন, তিনি সরকার গঠন করলে তাতে সমর্থন থাকবে জনগণের।

এদিকে আনোয়ার ইব্রাহিমের সংসদ সদস্যদের মধ্যে সংখ্যাগরিষ্ঠ সমর্থন থাকার দাবি প্রমাণ করার জন্য প্রধানমন্ত্রী মুহিদ্দিন ইয়াসিন পিকেআর সভাপতি আনোয়ার ইব্রাহিমকে চ্যালেঞ্জ ছুড়েছেন।

মুহিদ্দিন বলেন, এটি অবশ্যই ফেডারেল সংবিধানের সঙ্গে সঙ্গতিপূর্ণ যথাযথ প্রক্রিয়া অনুসারে করা উচিত। আনোয়ারের ঘোষণা কেবল একটি দাবি।

প্রধানমন্ত্রী মুহিদ্দিন বলছেন, যতক্ষণ না আনোয়ার তার দাবি সমর্থন করার জন্য প্রমাণ হাজির না করেন, পেরিকাতান ন্যাশনাল নেতৃত্বাধীন সরকার শক্ত এবং তিনি বৈধ প্রধানমন্ত্রী হিসেবে রয়েছেন। মুহিদ্দিন জনগণকে এই পরিস্থিতিতে শান্ত থাকার আহ্বান জানিয়েছেন।

এদিকে আনোয়ার ইব্রাহিমের ঘোষণায় সাবাহ নির্বাচনে ওয়ারিশান প্লাসের পক্ষে ভোট পাল্টে যেতে পারে বলে বিশ্লেষকরা জানিয়েছেন।

দেশটির রাজনৈতিক বিশ্লেষক বলছেন, পিকেআর সভাপতি আনোয়ার ইব্রাহিম সম্প্রতি ফেডারেল সরকার গঠনের পক্ষে তার যথেষ্ট সমর্থন আছে জানিয়ে যে ঘোষণা করেন তা ওয়ারিশান প্লাসের পক্ষে সাবাহ নির্বাচনে ভোট পাল্টে দিতে পারে।

ইউনিভার্সিটি মালয়েশিয়া সাবাহ’স রোমজি অ্যাটিগ বলছেন, প্রধানমন্ত্রী মুহিদ্দিন ইয়াসিন-সমর্থিত গাবুনগান রাকিয়াত সাবাহ (জিআরএস) রাজ্য নির্বাচনী প্রচারে এখন পর্যন্ত এগিয়ে রয়েছে বলে মনে হচ্ছে।

তবে আনোয়ারের দাবির ব্যাপারে তিনি বলেন, ওয়ারিশান, উপকো, ডিএপি এবং পিকেআর সমন্বিত ওয়ারিশান প্লাস গঠিত হয় যা পেরিকাতান ন্যাশনাল (পিএন), বরিশান ন্যাশনাল (বিএন) এবং পিবিএস নিয়ে গঠিত জিআরএসকে ছাড়িয়ে যাবে।