রোহিঙ্গাদের জমি দখলে বাংলাদেশি আদিবাসীদের লোভ দেখাচ্ছে মিয়ানমার

রোহিঙ্গা নিধনে ফেসবুকের দায় স্বীকার জাকারবার্গের * জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদকে মিয়ানমার সফরের সম্মতি * রোহিঙ্গাদের কানাডায় আশ্রয় দেয়ার সুপারিশ

  যুগান্তর ডেস্ক ০৪ এপ্রিল ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

মিয়ানমার

মিয়ানমার কর্তৃপক্ষ ডজনের বেশি বৌদ্ধ বাংলাদেশি আদিবাসী পরিবারকে সীমান্ত অতিক্রম করে রাখাইনের রোহিঙ্গা পরিত্যক্ত জমিতে আবাস গড়তে উদ্বুদ্ধ করছে। সোমবার ব্যাংকক পোস্ট ও সিঙ্গাপুরের স্ট্রেইট টাইমস এ খবর প্রকাশ করেছে।

বাংলাদেশের পাহাড় ও বন এলাকায় বসবাসরত ৫০ পরিবার ‘ফ্রি খাবার ও জমি’র লোভে এরই মধ্যে রাখাইন রাজ্যে পৌঁছেছে। স্থানীয় কাউন্সেলর মুইং সুই থিওয়ি এএফপিকে বলেছেন, মার্মা ও ম্রো জাতি পরিবার তাদের বাড়ি ছেড়ে চলে গেছে। গত মাসে সাঙ্গু থেকে নিজেদের বাড়ি ছেড়ে গেছে ২২ পরিবার।

এদিকে মিয়ানমারের রাখাইনে রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে জাতিগত নিধনে ফেসবুকের ভূমিকা রয়েছে এমন অভিযোগ স্বীকার করেছেন সামাজিক মাধ্যমটির প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী মার্ক জাকারবার্গ। তিনি বলেছেন, খবরের নামে গুজব ছড়ানোর মধ্য দিয়ে মুসলিম ও রোহিঙ্গাবিদ্বেষী মনোভাবে উসকানি ও প্রণোদনা জোগানোর কাজে ফেসবুককে ব্যবহার করা হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের সংবাদমাধ্যম ভক্স নিউজকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে এ স্বীকারোক্তি করেন জাকারবার্গ। সম্প্রতি আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল এক বিবৃতিতে জানায়, রোহিঙ্গা নিধনে ফেসবুকের বড় ধরনের ভূমিকা রয়েছে। অ্যামনেস্টির এ অভিযোগ স্বীকার করে জাকারবার্গ বলেন, রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে উসকানিমূলক ও ভুয়া খবর ছড়িয়ে রাজনৈতিক ফায়দা হাসিলের চেষ্টা করা হয়েছে। রাখাইনে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর ওপর সম্ভাব্য গণহত্যা তদন্তে নিয়োজিত অ্যামনেস্টির মানবাধিকার বিশেষজ্ঞরা বলেছেন, বিদ্বেষী প্রচারণায় ফেসবুক ভয়াবহ ভূমিকা রেখেছে। জাতিসংঘের বিশেষ দূত বলেছেন, রাখাইন প্রদেশে রোহিঙ্গা সংকটে গণহত্যার আভাস পাওয়া গেছে।

জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদকে মিয়ানমার সফরের সম্মতি : অবশেষে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদকে মিয়ানমার সফরে সম্মতি দিয়েছে নেপিদো। তবে রাষ্ট্রদূতরা রোহিঙ্গাদের আবাসভূমি রাখাইন রাজ্যে যেতে পারবেন কিনা বা তাদের সেই অনুমতি দেয়া হবে কিনা তা এখনও নিশ্চিত নয়। জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের প্রেসিডেন্ট পেরুর রাষ্ট্রদূত গুস্তাভো মেজা-চাউড্রা সোমবার এ কথা জানিয়েছেন।

রোহিঙ্গাদের কানাডায় আশ্রয় দেয়ার সুপারিশ : মিয়ানমার থেকে বিতাড়িত রোহিঙ্গা শরণার্থীদের কানাডায় আশ্রয় দেয়ার সুপারিশ করেছেন মিয়ানমারে কানাডার বিশেষ দূত বব রে। একই সঙ্গে চলমান মানবিক সংকটের জন্য দায়ী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা জারির সুপারিশ করেছেন তিনি। রোহিঙ্গা সংকটের ওপর বিস্তারিত প্রতিবেদনের জন্য বব রেকে নিয়োগ করা হয়।

ঘটনাপ্রবাহ : রোহিঙ্গা বর্বরতা

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter