যুক্তরাষ্ট্রে ঐতিহাসিক কর ফাঁকি
jugantor
যুক্তরাষ্ট্রে ঐতিহাসিক কর ফাঁকি
টেক্সাসে ধনকুবেরের বিরুদ্ধে মামলা

  যুগান্তর ডেস্ক  

১৯ অক্টোবর ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

যুক্তরাষ্ট্রে ঐতিহাসিক কর ফাঁকি

যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাসের ধনকুবের রবার্ট টি ব্রুকম্যানের বিরুদ্ধে ২ হাজার কোটি ডলারের কর ফাঁকির অভিযোগ আনা হয়েছে। এটিকে যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় পরিমাণ কর ফাঁকির অভিযোগ বলে অভিহিত করা হয়েছে।

স্থানীয় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর উদ্ধৃতি দিয়ে শনিবার এ খবর প্রকাশ করেছে সিএনএন। রেনোল্ডস অ্যান্ড রেনোল্ডস সফটওয়্যার কোম্পানির এ প্রধান নির্বাহী কর ফাঁকি ছাড়াও আয়ের তথ্য গোপন, জালিয়াতি, অর্থ পাচার, বিনিয়োগকারীদের জন্যে প্রতরণাসহ অন্যান্য অপরাধে জড়িত ছিলেন বলা হচ্ছে। ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল।

রেনোল্ডস অ্যান্ড রেনোল্ডসের মুখপাত্র বলেছেন রবার্ট কোম্পানির পেশাগত দায়িত্বের বাইরে থেকে ব্যক্তিগতভাবে এ ধরনের আর্থিক অনিয়ম বা কর ফাঁকি দিয়েছেন যার সঙ্গে কোম্পানি যুক্ত নয়।

বিশাল ধনভাণ্ডারের মালিক রবার্টের বিরুদ্ধে অভিযোগের বহরও অনেক দীর্ঘ। অন্তত ৩৯টি গুরুতর আর্থিক অনিয়মের সঙ্গে জড়িত ছিলেন তিনি। চলতি মাসের শুরুতে দায়ের করা এসব অভিযোগের মধ্যে বিদেশি কোম্পানি ও ব্যাংক অ্যাকাউন্টগুলোর জন্য একটি জটিল ওয়েব পরিচালনা, ‘বোনফিশ ও স্নেপার’ এর মতো কোড নাম ব্যবহার করে কর্মীদের সঙ্গে গোপন ই-মেইল যোগাযোগ, বিলাসবহুল প্রমোদতরী কিনতে করযোগ্য আয়ের ব্যবহারসহ নানা কুকর্ম রয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের ইন্টারনাল রেভিনিউ সার্ভিস (আইআরএস) ক্রিমিনাল ইনভেস্টিগেশন ইউনিটের প্রধান জমি লি সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ২৫ বছরের পেশাগত জীবনে ‘স্পেশাল এজেন্ট’ হিসেবে আমি কখনও এত বিশাল ডলারের মজুদ, লোভের এমন ধরন ও তা গোপন করার কৌশল দেখিনি। তবে রেনোল্ডস অ্যান্ড রেনোল্ডস বলছে সিইও হিসেবে রবার্ট ব্রকম্যান যথারীতি তার চাকরিতে বহাল থাকবেন।

টেক্সাসের এই কোটিপতি ১৯৭০ সালে গাড়ির ডিলারদের জন্য ইউনিভার্সাল সিস্টেম নামে একটি কোম্পানি প্রতিষ্ঠা করেন। ২০০৬ সালে তার এ কোম্পানি রেনোল্ডস অ্যান্ড রেনোল্ডসের সঙ্গে একীভূত হয়। এরপর ব্রকম্যানের সিইও ও চেয়ারম্যান হন।

পেশাগত জীবনের শুরুতে তিনি মার্কিন নৌবাহিনী, ফোর্ড ও আইবিএমে কাজ করেছেন। শুক্রবার তাকে ফেডারেল কোর্টে তলব করা হলে তিনি নিজেকে নির্দোষ দাবি করেন।

১০ লাখ ডলার মুচলেকা দিয়ে তিনি জামিনে মুক্তি পান। ইউএস ডিপার্টমেন্ট অব জাস্টিস ট্যাক্স ডিভিশনের সাবেক অ্যাসিসটেন্ট অ্যাটর্নি জেনারেল ক্যাথরিন কেনেলি রবার্টের পক্ষে আইনজীবী হিসেবে সাংবাদিকদের বলেন, তার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগগুলো আমরা আইনিভাবে লড়েই খণ্ডন করব।

যুক্তরাষ্ট্রে ঐতিহাসিক কর ফাঁকি

টেক্সাসে ধনকুবেরের বিরুদ্ধে মামলা
 যুগান্তর ডেস্ক 
১৯ অক্টোবর ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ
যুক্তরাষ্ট্রে ঐতিহাসিক কর ফাঁকি
ছবি: সংগৃহীত

যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাসের ধনকুবের রবার্ট টি ব্রুকম্যানের বিরুদ্ধে ২ হাজার কোটি ডলারের কর ফাঁকির অভিযোগ আনা হয়েছে। এটিকে যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় পরিমাণ কর ফাঁকির অভিযোগ বলে অভিহিত করা হয়েছে।

স্থানীয় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর উদ্ধৃতি দিয়ে শনিবার এ খবর প্রকাশ করেছে সিএনএন। রেনোল্ডস অ্যান্ড রেনোল্ডস সফটওয়্যার কোম্পানির এ প্রধান নির্বাহী কর ফাঁকি ছাড়াও আয়ের তথ্য গোপন, জালিয়াতি, অর্থ পাচার, বিনিয়োগকারীদের জন্যে প্রতরণাসহ অন্যান্য অপরাধে জড়িত ছিলেন বলা হচ্ছে। ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল।

রেনোল্ডস অ্যান্ড রেনোল্ডসের মুখপাত্র বলেছেন রবার্ট কোম্পানির পেশাগত দায়িত্বের বাইরে থেকে ব্যক্তিগতভাবে এ ধরনের আর্থিক অনিয়ম বা কর ফাঁকি দিয়েছেন যার সঙ্গে কোম্পানি যুক্ত নয়।

বিশাল ধনভাণ্ডারের মালিক রবার্টের বিরুদ্ধে অভিযোগের বহরও অনেক দীর্ঘ। অন্তত ৩৯টি গুরুতর আর্থিক অনিয়মের সঙ্গে জড়িত ছিলেন তিনি। চলতি মাসের শুরুতে দায়ের করা এসব অভিযোগের মধ্যে বিদেশি কোম্পানি ও ব্যাংক অ্যাকাউন্টগুলোর জন্য একটি জটিল ওয়েব পরিচালনা, ‘বোনফিশ ও স্নেপার’ এর মতো কোড নাম ব্যবহার করে কর্মীদের সঙ্গে গোপন ই-মেইল যোগাযোগ, বিলাসবহুল প্রমোদতরী কিনতে করযোগ্য আয়ের ব্যবহারসহ নানা কুকর্ম রয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের ইন্টারনাল রেভিনিউ সার্ভিস (আইআরএস) ক্রিমিনাল ইনভেস্টিগেশন ইউনিটের প্রধান জমি লি সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ২৫ বছরের পেশাগত জীবনে ‘স্পেশাল এজেন্ট’ হিসেবে আমি কখনও এত বিশাল ডলারের মজুদ, লোভের এমন ধরন ও তা গোপন করার কৌশল দেখিনি। তবে রেনোল্ডস অ্যান্ড রেনোল্ডস বলছে সিইও হিসেবে রবার্ট ব্রকম্যান যথারীতি তার চাকরিতে বহাল থাকবেন।

টেক্সাসের এই কোটিপতি ১৯৭০ সালে গাড়ির ডিলারদের জন্য ইউনিভার্সাল সিস্টেম নামে একটি কোম্পানি প্রতিষ্ঠা করেন। ২০০৬ সালে তার এ কোম্পানি রেনোল্ডস অ্যান্ড রেনোল্ডসের সঙ্গে একীভূত হয়। এরপর ব্রকম্যানের সিইও ও চেয়ারম্যান হন।

পেশাগত জীবনের শুরুতে তিনি মার্কিন নৌবাহিনী, ফোর্ড ও আইবিএমে কাজ করেছেন। শুক্রবার তাকে ফেডারেল কোর্টে তলব করা হলে তিনি নিজেকে নির্দোষ দাবি করেন।

১০ লাখ ডলার মুচলেকা দিয়ে তিনি জামিনে মুক্তি পান। ইউএস ডিপার্টমেন্ট অব জাস্টিস ট্যাক্স ডিভিশনের সাবেক অ্যাসিসটেন্ট অ্যাটর্নি জেনারেল ক্যাথরিন কেনেলি রবার্টের পক্ষে আইনজীবী হিসেবে সাংবাদিকদের বলেন, তার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগগুলো আমরা আইনিভাবে লড়েই খণ্ডন করব।