ফ্রান্সে গির্জায় ছুরি হামলা, নিহত ৩
jugantor
ফ্রান্সে গির্জায় ছুরি হামলা, নিহত ৩
সৌদির ফরাসি কনস্যুলেটেও হামলা

  যুগান্তর ডেস্ক  

৩০ অক্টোবর ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ফ্রান্সের নিস শহরের একটি গির্জায় ছুরি হামলায় এক নারীসহ তিনজন নিহত হয়েছেন। একই দিনে আরও দুটো হামলার ঘটনা ঘটে দেশটিতে। একটি ফ্রান্সের আভিনিওঁ শহরের কাছে এবং অপরটি সৌদি আরবের ফরাসি কনস্যুলেটে। ফ্রান্সে নিস শহরে হামলার দিন বৃহস্পতিবার সকালে এই দুটি ঘটনা ঘটেছে।

নিস শহরে গির্জায় হামলার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই দক্ষিণাঞ্চলীয় আভিনিওঁ শহরের একটি এলাকায় পুলিশের গুলিতে এক বন্দুকধারী নিহত হয়েছে। ওই ব্যক্তি ‘আল্লাহু আকবর’ বলে বন্দুক নিয়ে পথচারী এবং পুলিশের ওপর চড়াও হওয়ার চেষ্টা চালিয়েছিল।

এদিকে আরেকটি ঘটনায় সৌদি আরবের জেদ্দায় ফ্রান্সের কনস্যুলেটে এক রক্ষীর ওপর ছুরি হামলার পর এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন। ছুরির আঘাতে আহত ওই রক্ষীকে হাসপাতালে নেয়া হয়েছে। তবে তার অবস্থা আশঙ্কাজনক নয় বলে জানিয়েছে ফরাসি দূতাবাস। নিস শহরের মেয়র খ্রিশ্চ এস্থুজি গির্জায় ছুরি হামলার ঘটনাটিকে ‘সন্ত্রাসী’ হামলা বলে বর্ণনা করেছেন।

টুইটারে তিনি লিখেন, শহরের নটরডেম গির্জার ভেতরে বা কাছে ছুরি হামলার ঘটনাটি ঘটে। হামলাকারীকে আটক করেছে পুলিশ। হামলাকারী ছুরি দিয়ে এক নারীর শিরশ্ছেদ করেছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। মেয়র জানান, হামলাকারী ‘আল্লাহু আকবর’ বলে চিৎকার করছিল। তাকে আটক করার পরও সে ‘আল্লাহু আকবর’ বলে চিৎকার করে যাচ্ছিল। গির্জার ভেতরে নিহতদের মধ্যে একজনকে গির্জারটির ওয়ার্ডেন বলে মনে করা হচ্ছে।

সাংবাদিকদের মেয়র এস্থুজি বলেন, আটক করার সময় সন্দেহভাজন ছুরি হামলাকারীকে গুলি করে পুলিশ। সে বেঁচে আছে। তাকে হাসপাতালে নেয়া হচ্ছে।

তিনি বলেন, অনেক হয়েছে। ইসলামো-ফ্যাসিবাদ মুছে ফেলার জন্য এবার শান্তির আইন থেকে ফ্রান্সের সরে আসার সময় হয়েছে। চলতি মাসের প্রথমদিকে প্যারিসের শহরতলীতে প্রকাশ্যে এক শিক্ষককে গলা কেটে হত্যার ঘটনার সঙ্গে এ ঘটনার ধরনও মিলে যাচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন তিনি।

পুলিশ জানিয়েছে, এ হামলায় তিনজন নিহত ও বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন। ফ্রান্সের সন্ত্রাসবিরোধী কৌঁসুলির দফতর জানিয়েছে, তাদের হামলার ঘটনাটি তদন্ত করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। ঘটনাস্থলে থাকা রয়টার্সের সাংবাদিক জানিয়েছেন, স্বয়ংক্রিয় অস্ত্রধারী পুলিশ গির্জার চারদিকে একটি নিরাপত্তা বেষ্টনী বসিয়েছে।

এর আগে ১৬ অক্টোবর প্যারিসের শহরতলীতে ৪৭ বছর বয়সী স্কুল শিক্ষক স্যামুয়েল পেটিকে শিরশ্ছেদ করে হত্যার ঘটনা ঘটেছিল।

ফ্রান্সে গির্জায় ছুরি হামলা, নিহত ৩

সৌদির ফরাসি কনস্যুলেটেও হামলা
 যুগান্তর ডেস্ক 
৩০ অক্টোবর ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ফ্রান্সের নিস শহরের একটি গির্জায় ছুরি হামলায় এক নারীসহ তিনজন নিহত হয়েছেন। একই দিনে আরও দুটো হামলার ঘটনা ঘটে দেশটিতে। একটি ফ্রান্সের আভিনিওঁ শহরের কাছে এবং অপরটি সৌদি আরবের ফরাসি কনস্যুলেটে। ফ্রান্সে নিস শহরে হামলার দিন বৃহস্পতিবার সকালে এই দুটি ঘটনা ঘটেছে।

নিস শহরে গির্জায় হামলার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই দক্ষিণাঞ্চলীয় আভিনিওঁ শহরের একটি এলাকায় পুলিশের গুলিতে এক বন্দুকধারী নিহত হয়েছে। ওই ব্যক্তি ‘আল্লাহু আকবর’ বলে বন্দুক নিয়ে পথচারী এবং পুলিশের ওপর চড়াও হওয়ার চেষ্টা চালিয়েছিল।

এদিকে আরেকটি ঘটনায় সৌদি আরবের জেদ্দায় ফ্রান্সের কনস্যুলেটে এক রক্ষীর ওপর ছুরি হামলার পর এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন। ছুরির আঘাতে আহত ওই রক্ষীকে হাসপাতালে নেয়া হয়েছে। তবে তার অবস্থা আশঙ্কাজনক নয় বলে জানিয়েছে ফরাসি দূতাবাস। নিস শহরের মেয়র খ্রিশ্চ এস্থুজি গির্জায় ছুরি হামলার ঘটনাটিকে ‘সন্ত্রাসী’ হামলা বলে বর্ণনা করেছেন।

টুইটারে তিনি লিখেন, শহরের নটরডেম গির্জার ভেতরে বা কাছে ছুরি হামলার ঘটনাটি ঘটে। হামলাকারীকে আটক করেছে পুলিশ। হামলাকারী ছুরি দিয়ে এক নারীর শিরশ্ছেদ করেছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। মেয়র জানান, হামলাকারী ‘আল্লাহু আকবর’ বলে চিৎকার করছিল। তাকে আটক করার পরও সে ‘আল্লাহু আকবর’ বলে চিৎকার করে যাচ্ছিল। গির্জার ভেতরে নিহতদের মধ্যে একজনকে গির্জারটির ওয়ার্ডেন বলে মনে করা হচ্ছে।

সাংবাদিকদের মেয়র এস্থুজি বলেন, আটক করার সময় সন্দেহভাজন ছুরি হামলাকারীকে গুলি করে পুলিশ। সে বেঁচে আছে। তাকে হাসপাতালে নেয়া হচ্ছে।

তিনি বলেন, অনেক হয়েছে। ইসলামো-ফ্যাসিবাদ মুছে ফেলার জন্য এবার শান্তির আইন থেকে ফ্রান্সের সরে আসার সময় হয়েছে। চলতি মাসের প্রথমদিকে প্যারিসের শহরতলীতে প্রকাশ্যে এক শিক্ষককে গলা কেটে হত্যার ঘটনার সঙ্গে এ ঘটনার ধরনও মিলে যাচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন তিনি।

পুলিশ জানিয়েছে, এ হামলায় তিনজন নিহত ও বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন। ফ্রান্সের সন্ত্রাসবিরোধী কৌঁসুলির দফতর জানিয়েছে, তাদের হামলার ঘটনাটি তদন্ত করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। ঘটনাস্থলে থাকা রয়টার্সের সাংবাদিক জানিয়েছেন, স্বয়ংক্রিয় অস্ত্রধারী পুলিশ গির্জার চারদিকে একটি নিরাপত্তা বেষ্টনী বসিয়েছে।

এর আগে ১৬ অক্টোবর প্যারিসের শহরতলীতে ৪৭ বছর বয়সী স্কুল শিক্ষক স্যামুয়েল পেটিকে শিরশ্ছেদ করে হত্যার ঘটনা ঘটেছিল।