ভারতে সেরাম ইনস্টিটিউটে আগুন, নিহত ৫
jugantor
ভারতে সেরাম ইনস্টিটিউটে আগুন, নিহত ৫

  যুগান্তর ডেস্ক  

২২ জানুয়ারি ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ভারতের পুনেতে অবস্থিত টিকা উৎপাদানকারী প্রতিষ্ঠান সেরাম ইনস্টিটিউটে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় অন্তত পাঁচজন নিহত হয়েছেন। বিশ্বের সবচেয়ে বড় টিকা উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান সেরাম অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার করোনাভাইরাস টিকা উৎপাদন করছে। বৃহস্পতিবার বিকালে হঠাৎ সেখানে অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয়। আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে ব্যাপক প্রচেষ্টা চালানো হচ্ছে বলে জানিয়েছে ভারতীয় গণমাধ্যম। এনডিটিভি।

তবে এতে টিকা উৎপাদন ক্ষতিগ্রুস্ত হয়নি বলে জানিয়েছেন প্রতিষ্ঠানটির কর্মকর্তারা। তারা বলেছেন, করোনার টিকা উৎপাদন ইউনিট উৎপাদন কাজ চালিয়ে যাচ্ছে। আগুন লাগার পর ইনস্টিটিউট সংলগ্ন এলাকায় কালো ধোঁয়া ছড়িয়ে পড়ে। দমকল কর্মীরা দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার তৎপরতার শুরু করেন। সেরাম ইনস্টিটিউট জানিয়েছে, তাদের একটি নির্মাণাধীন ভবনে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। এটি করোনাভাইরাসের জন্য তৈরি কোভিশিল্ড ভ্যাকসিনের ইউনিট থেকে কিছুটা দূরে অবস্থিত। ফলে অগ্নিকাণ্ডে টিকা উৎপাদন ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার সম্ভাবনা নেই। স্থানীয় মেয়র মূরলিধর মোহল জানান, আগুন নিয়ন্ত্রণে আসার পর উদ্ধার করা হয় ওই পাঁচজনের মৃতদেহ। তারা নির্মাণাধীন ভবনের ছয় নম্বর তলায় আটকে যান। আগুন দ্রুত ছড়িয়ে পড়ায় তারা আর বের হতে পারেননি। ওই ভবনে ওয়েল্ডিংয়ের কাজ চলছিল। নিহত শ্রমিকরা ওই ওয়েল্ডিংয়ের কাজ করছিলেন।

ঘটনার একপর্যায়ে দেশটির সামরিক বাহিনীর সদস্যরা উদ্ধার অভিযান চালায়। তারাই ওই মরদেহগুলো উদ্ধার করেছে।

সেরাম ইনস্টিটিউটের ১ নম্বর টার্মিনালের সঙ্গে থাকা একটি ভবনে আগুন ছড়িয়ে পরে। সেখানে এখনো ভ্যাকসিন উৎপাদন শুরু হয়নি। তবে উৎপাদন কার্যক্রম চালুর পরিকল্পনা ছিল সেরামের। পুনের পুলিশ কমিশনার জানিয়েছেন, ভ্যাকসিন তৈরি ও মজুদ করার জায়গাটি নিরাপদে আছে। সেরাম ইনস্টিটিউটের প্রধান আদর পুনাওয়ালাও টুইট করে জানিয়েছেন, এই আগুন লাগার ঘটনায় ভ্যাকসিন উৎপাদন কোনোভাবে বাধাগ্রস্ত হবে না।

ভারতে সেরাম ইনস্টিটিউটে আগুন, নিহত ৫

 যুগান্তর ডেস্ক 
২২ জানুয়ারি ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ভারতের পুনেতে অবস্থিত টিকা উৎপাদানকারী প্রতিষ্ঠান সেরাম ইনস্টিটিউটে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় অন্তত পাঁচজন নিহত হয়েছেন। বিশ্বের সবচেয়ে বড় টিকা উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান সেরাম অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার করোনাভাইরাস টিকা উৎপাদন করছে। বৃহস্পতিবার বিকালে হঠাৎ সেখানে অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয়। আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে ব্যাপক প্রচেষ্টা চালানো হচ্ছে বলে জানিয়েছে ভারতীয় গণমাধ্যম। এনডিটিভি।

তবে এতে টিকা উৎপাদন ক্ষতিগ্রুস্ত হয়নি বলে জানিয়েছেন প্রতিষ্ঠানটির কর্মকর্তারা। তারা বলেছেন, করোনার টিকা উৎপাদন ইউনিট উৎপাদন কাজ চালিয়ে যাচ্ছে। আগুন লাগার পর ইনস্টিটিউট সংলগ্ন এলাকায় কালো ধোঁয়া ছড়িয়ে পড়ে। দমকল কর্মীরা দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার তৎপরতার শুরু করেন। সেরাম ইনস্টিটিউট জানিয়েছে, তাদের একটি নির্মাণাধীন ভবনে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। এটি করোনাভাইরাসের জন্য তৈরি কোভিশিল্ড ভ্যাকসিনের ইউনিট থেকে কিছুটা দূরে অবস্থিত। ফলে অগ্নিকাণ্ডে টিকা উৎপাদন ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার সম্ভাবনা নেই। স্থানীয় মেয়র মূরলিধর মোহল জানান, আগুন নিয়ন্ত্রণে আসার পর উদ্ধার করা হয় ওই পাঁচজনের মৃতদেহ। তারা নির্মাণাধীন ভবনের ছয় নম্বর তলায় আটকে যান। আগুন দ্রুত ছড়িয়ে পড়ায় তারা আর বের হতে পারেননি। ওই ভবনে ওয়েল্ডিংয়ের কাজ চলছিল। নিহত শ্রমিকরা ওই ওয়েল্ডিংয়ের কাজ করছিলেন।

ঘটনার একপর্যায়ে দেশটির সামরিক বাহিনীর সদস্যরা উদ্ধার অভিযান চালায়। তারাই ওই মরদেহগুলো উদ্ধার করেছে।

সেরাম ইনস্টিটিউটের ১ নম্বর টার্মিনালের সঙ্গে থাকা একটি ভবনে আগুন ছড়িয়ে পরে। সেখানে এখনো ভ্যাকসিন উৎপাদন শুরু হয়নি। তবে উৎপাদন কার্যক্রম চালুর পরিকল্পনা ছিল সেরামের। পুনের পুলিশ কমিশনার জানিয়েছেন, ভ্যাকসিন তৈরি ও মজুদ করার জায়গাটি নিরাপদে আছে। সেরাম ইনস্টিটিউটের প্রধান আদর পুনাওয়ালাও টুইট করে জানিয়েছেন, এই আগুন লাগার ঘটনায় ভ্যাকসিন উৎপাদন কোনোভাবে বাধাগ্রস্ত হবে না।