আসামি ধরতে রোলার স্কেট পুলিশ
jugantor
আসামি ধরতে রোলার স্কেট পুলিশ

  রয়টার্স।  

২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

গায়ে জমকালো পোশাক, পায়ে রোলার স্কেট আর হাতে অত্যাধুনিক অস্ত্র নিয়ে করাচির রাস্তায় রাস্তায় প্রশিক্ষণ নিচ্ছে একদল পুলিশ। সামনের মাস থেকেই পুরোদমে মাঠে নামবে ২০ সদস্যের এই পুলিশ ইউনিট। শহরের ব্যস্ত সড়ক, ফটপাত, সরু গলিতে ক্রমবর্ধমান চুরি-ছিনতাইসহ অনাহূত সব পথসন্ত্রাস দমনেই এবার অভিনব এই উদ্যোগ নিয়েছে করাচি পুলিশ। দলের সদস্যরা রোলার স্কেট (চাকা লাগানো জুতা) ব্যবহার করেই ভিড়-যানজট-গণপরিবহণের ফাঁকফোকর দিয়ে ছুটবেন অপরাধীর পেছনে। আধুনিক অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত এই দলের সদস্যদের প্রশিক্ষণও অনেক উন্নত। বিশেষ এই দলের প্রধান ফররুখ আলি বলেন, ব্যস্ত পথের অপরাধ কর্মকাণ্ড নিয়ন্ত্রণের জন্য এ ধরনের নতুন দৃষ্টিভঙ্গির প্রয়োজন ছিল। মোটরসাইকেলে করে পুরো শহরে টহল দেওয়ার বদলে রোলার স্কেটে কাজটা আরও সহজ হবে বলে মনে করেন তিনি। করাচিতে প্রায় দুই কোটি মানুষের বাস। রাস্তা-ঘাটও যেনতেন। বেশির ভাগ রাস্তায় রোলার স্কেটিংয়ের উপযুক্ত নয়। ফররুখ আলি অবশ্য বলছেন, ‘এটা সবে শুরু। এই নতুন ব্যবস্থায় আমরা উপকৃত হব।’ দলের নারী সদস্য আনিলা আসলামের মুখেও একই কথা, ‘এটা সবে শুরু। আমরা সত্যিই অনেক উপকৃত হব। খুব সরু গলিগুলোতেও আমরা দ্রুত পৌঁছে যেতে পারব।’

আসামি ধরতে রোলার স্কেট পুলিশ

 রয়টার্স। 
২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

গায়ে জমকালো পোশাক, পায়ে রোলার স্কেট আর হাতে অত্যাধুনিক অস্ত্র নিয়ে করাচির রাস্তায় রাস্তায় প্রশিক্ষণ নিচ্ছে একদল পুলিশ। সামনের মাস থেকেই পুরোদমে মাঠে নামবে ২০ সদস্যের এই পুলিশ ইউনিট। শহরের ব্যস্ত সড়ক, ফটপাত, সরু গলিতে ক্রমবর্ধমান চুরি-ছিনতাইসহ অনাহূত সব পথসন্ত্রাস দমনেই এবার অভিনব এই উদ্যোগ নিয়েছে করাচি পুলিশ। দলের সদস্যরা রোলার স্কেট (চাকা লাগানো জুতা) ব্যবহার করেই ভিড়-যানজট-গণপরিবহণের ফাঁকফোকর দিয়ে ছুটবেন অপরাধীর পেছনে। আধুনিক অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত এই দলের সদস্যদের প্রশিক্ষণও অনেক উন্নত। বিশেষ এই দলের প্রধান ফররুখ আলি বলেন, ব্যস্ত পথের অপরাধ কর্মকাণ্ড নিয়ন্ত্রণের জন্য এ ধরনের নতুন দৃষ্টিভঙ্গির প্রয়োজন ছিল। মোটরসাইকেলে করে পুরো শহরে টহল দেওয়ার বদলে রোলার স্কেটে কাজটা আরও সহজ হবে বলে মনে করেন তিনি। করাচিতে প্রায় দুই কোটি মানুষের বাস। রাস্তা-ঘাটও যেনতেন। বেশির ভাগ রাস্তায় রোলার স্কেটিংয়ের উপযুক্ত নয়। ফররুখ আলি অবশ্য বলছেন, ‘এটা সবে শুরু। এই নতুন ব্যবস্থায় আমরা উপকৃত হব।’ দলের নারী সদস্য আনিলা আসলামের মুখেও একই কথা, ‘এটা সবে শুরু। আমরা সত্যিই অনেক উপকৃত হব। খুব সরু গলিগুলোতেও আমরা দ্রুত পৌঁছে যেতে পারব।’

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন