সংক্রমণে ব্রাজিলকে ছাড়াল ভারত
jugantor
সংক্রমণে ব্রাজিলকে ছাড়াল ভারত
তিন বিদেশি কোম্পানির টিকা আমদানির সিদ্ধান্ত নয়াদিল্লির * রেমডেসিভির রপ্তানি নিষিদ্ধ

  যুগান্তর ডেস্ক  

১৩ এপ্রিল ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

করোনাভাইরাসের সংক্রমণের দিক দিয়ে বর্তমানে দ্বিতীয় অবস্থানে ভারত। এ অবস্থানে থাকা ব্রাজিলকে ছাড়িয়ে যুক্তরাষ্ট্রের পরেই ভারতের অবস্থান। সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতি ঠেকাতে তিনটি বিদেশি কোম্পানি থেকে টিকা আমদানির সিদ্ধান্ত নিয়েছে দেশটির সরকার। এ ছাড়া এন্টিভাইরাল ওষুধ রেমডেসিভিরর নিজস্ব চাহিদা মেটাতে বিদেশে রপ্তানি নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে ভারত। করোনার হালনাগাদ তথ্য প্রকাশকারী ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারসের তালিকা অনুসারে করোনায় সংক্রমণের দিক থেকে দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা ব্রাজিলকে টপকে গেছে ভারত। দেশটিতে এ পর্যন্ত করোনায় মোট সংক্রমিত হয়েছে এক কোটি ৩৫ লাখ ২৫ হাজার ৩৭৯ জন। মোট মৃত্যু হয়েছে এক লাখ ৭০ হাজার ২০৯ জনের। ব্রাজিলে করোনায় সংক্রমিত হয়েছে এক কোটি ৩৪ লাখ ৮২ হাজার ৫৪৩ জন। দেশটিতে মৃত্যু হয়েছে ৩ লাখ ৫৩ হাজার ২৯৩ জনের। ভারতের চেয়ে ব্রাজিলে করোনায় মৃত্যু বেশি। করোনাভাইরাসের সংক্রমণের দিক থেকে সবচেয়ে শীর্ষ অবস্থানে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। দেশটিতে এ পর্যন্ত করোনায় সংক্রমিত হয়েছে তিন কোটি ১৯ লাখ ১৮ হাজার ৫৯১ জন। মৃত্যু হয়েছে পাঁচ লাখ ৭৫ হাজার ৮২৯ জনের। ভারতের বিভিন্ন রাজ্যে করোনাভাইরাসের টিকার ঘাটতি নিয়ে অভিযোগের মুখে ভ্যাকসিনের জোগান বাড়াতে তৎপর হয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। সরকারের শীর্ষ সূত্রের বরাত দিয়ে আনন্দবাজার পত্রিকা জানিয়েছে, চলতি বছরে জুন থেকে সেপ্টেম্বরের মধ্যে আরও পাঁচটি টিকা উৎপাদনকারী কোম্পানি থেকে টিকা নেবে ভারত। এদের মধ্যে তিনটি টিকা বিদেশি ফার্মাসিউটিক্যালস কোম্পানির। বর্তমানে ভারতে কোভ্যাক্সিন এবং কোভিশিল্ড বাদে অন্য কোনো টিকা ব্যবহার হচ্ছে না। জুন থেকে সেপ্টেম্বরের মধ্যে তারা আরও পাঁচটি টিকা হাতে পাবে বলে আশা করছে। স্পুটনিক-৫, জনসন অ্যান্ড জনসন, নোভাভ্যাক্স, জাইডাস ক্যাডিলার টিকা ও ভারত বায়োটেকের ইন্ট্রান্যাজাল টিকা। এই টিকাগুলোকে ‘নিয়ন্ত্রিত জরুরি প্রয়োগের’ জন্য ছাড়পত্র দেওয়ার আগে সুরক্ষা ও কার্যক্ষমতার দিকটি বিশেষ গুরুত্ব দিয়ে দেখবে বলে জানিয়েছে দেশটির সরকার। সরকারি সূত্র জানায়, করোনার ২০টি টিকা এ মুহূর্তে বিভিন্ন পর্যায়ে পরীক্ষামূলক স্তরে রয়েছে।

সংক্রমণে ব্রাজিলকে ছাড়াল ভারত

তিন বিদেশি কোম্পানির টিকা আমদানির সিদ্ধান্ত নয়াদিল্লির * রেমডেসিভির রপ্তানি নিষিদ্ধ
 যুগান্তর ডেস্ক 
১৩ এপ্রিল ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

করোনাভাইরাসের সংক্রমণের দিক দিয়ে বর্তমানে দ্বিতীয় অবস্থানে ভারত। এ অবস্থানে থাকা ব্রাজিলকে ছাড়িয়ে যুক্তরাষ্ট্রের পরেই ভারতের অবস্থান। সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতি ঠেকাতে তিনটি বিদেশি কোম্পানি থেকে টিকা আমদানির সিদ্ধান্ত নিয়েছে দেশটির সরকার। এ ছাড়া এন্টিভাইরাল ওষুধ রেমডেসিভিরর নিজস্ব চাহিদা মেটাতে বিদেশে রপ্তানি নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে ভারত। করোনার হালনাগাদ তথ্য প্রকাশকারী ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারসের তালিকা অনুসারে করোনায় সংক্রমণের দিক থেকে দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা ব্রাজিলকে টপকে গেছে ভারত। দেশটিতে এ পর্যন্ত করোনায় মোট সংক্রমিত হয়েছে এক কোটি ৩৫ লাখ ২৫ হাজার ৩৭৯ জন। মোট মৃত্যু হয়েছে এক লাখ ৭০ হাজার ২০৯ জনের। ব্রাজিলে করোনায় সংক্রমিত হয়েছে এক কোটি ৩৪ লাখ ৮২ হাজার ৫৪৩ জন। দেশটিতে মৃত্যু হয়েছে ৩ লাখ ৫৩ হাজার ২৯৩ জনের। ভারতের চেয়ে ব্রাজিলে করোনায় মৃত্যু বেশি। করোনাভাইরাসের সংক্রমণের দিক থেকে সবচেয়ে শীর্ষ অবস্থানে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। দেশটিতে এ পর্যন্ত করোনায় সংক্রমিত হয়েছে তিন কোটি ১৯ লাখ ১৮ হাজার ৫৯১ জন। মৃত্যু হয়েছে পাঁচ লাখ ৭৫ হাজার ৮২৯ জনের। ভারতের বিভিন্ন রাজ্যে করোনাভাইরাসের টিকার ঘাটতি নিয়ে অভিযোগের মুখে ভ্যাকসিনের জোগান বাড়াতে তৎপর হয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। সরকারের শীর্ষ সূত্রের বরাত দিয়ে আনন্দবাজার পত্রিকা জানিয়েছে, চলতি বছরে জুন থেকে সেপ্টেম্বরের মধ্যে আরও পাঁচটি টিকা উৎপাদনকারী কোম্পানি থেকে টিকা নেবে ভারত। এদের মধ্যে তিনটি টিকা বিদেশি ফার্মাসিউটিক্যালস কোম্পানির। বর্তমানে ভারতে কোভ্যাক্সিন এবং কোভিশিল্ড বাদে অন্য কোনো টিকা ব্যবহার হচ্ছে না। জুন থেকে সেপ্টেম্বরের মধ্যে তারা আরও পাঁচটি টিকা হাতে পাবে বলে আশা করছে। স্পুটনিক-৫, জনসন অ্যান্ড জনসন, নোভাভ্যাক্স, জাইডাস ক্যাডিলার টিকা ও ভারত বায়োটেকের ইন্ট্রান্যাজাল টিকা। এই টিকাগুলোকে ‘নিয়ন্ত্রিত জরুরি প্রয়োগের’ জন্য ছাড়পত্র দেওয়ার আগে সুরক্ষা ও কার্যক্ষমতার দিকটি বিশেষ গুরুত্ব দিয়ে দেখবে বলে জানিয়েছে দেশটির সরকার। সরকারি সূত্র জানায়, করোনার ২০টি টিকা এ মুহূর্তে বিভিন্ন পর্যায়ে পরীক্ষামূলক স্তরে রয়েছে।

 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন