ফিলিস্তিনিরা পালাচ্ছে
jugantor
ফিলিস্তিনিরা পালাচ্ছে
গাজার ১৩০ এলাকায় ইসরাইলের বিমান হামলা, শিশুসহ নিহত ২০ * জাতিসংঘে নিরাপত্তা পরিষদের জরুরি বৈঠক

  যুগান্তর ডেস্ক  

১২ মে ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ফিলিস্তিনের অধিকৃত গাজা উপত্যকায় মুহুর্মুহু বিমান হামলা চালাচ্ছে ইসরাইলি বাহিনী। হামলা থেকে বাঁচতে বাড়িঘর ছেড়ে পালাচ্ছে ফিলিস্তিনিরা। আল-আকসা মসজিদে তাণ্ডবের পর ফিলিস্তিনের অধিকৃত গাজা উপত্যকায় দফায় দফায় বিমান হামলা শুরু করেছে ইসরাইল। সোমবার রাতভর উপত্যকার বেশ কয়েকটি এলাকাকে লক্ষ্য করে মুহুর্মুহু হামলা চালানো হয়। হামলা চালানো মঙ্গলবার সকালেও। ইসরাইল নিজে থেকেই বলেছে, গাজার অন্তত ১৩০টি লক্ষ্যে হামলা চালানো হয়েছে। এসব হামলায় নারী ও শিশু ২৪ জন নিহত হয়েছে। বার্তা সংস্থা এএফপি প্রকাশিত ছবিতে দেখা যাচ্ছে, গাজার আবাসিক এলাকাগুলো থেকে বের হয়ে আসছে ভীত-সন্ত্রস্ত বাসিন্দারা। এক মা তার কোলের শিশুকে নিয়ে নিরাপদ আশ্রয় খুঁজছেন। ছোট ছোট ছেলেমেয়ে নিয়ে কেউ কেউ গাড়িতে করে অন্যত্র চলে যাচ্ছেন। পুরো এলাকাজুড়ে কান্নার রোল-হাহাকার ছড়িয়ে পড়েছে।

পূর্ব জেরুজালেমের শেখ জাররাহ এলাকায় ফিলিস্তিনিদের উচ্ছেদ করে অবৈধ ইহুদি বসতি স্থাপনকে কেন্দ্র করে গত এক সপ্তাহ ধরে জোর-জবরদস্তি চালাচ্ছে ইসরাইলি বাহিনী। পূর্ব জেরুজালেমে আল-আকসা মসজিদ ও এর আশপাশের এলাকায় টানা তিনদিন ইসরাইলি নিরাপত্তা বাহিনীর হামলায় নারী ও শিশুসহ কয়েকশ ফিলিস্তিনি আহত হয়। এর প্রতিবাদে সোমবার জেরুজালেমে ইসরাইলের লক্ষ্যবস্তুতে কয়েক ডজন রকেট নিক্ষেপ করে গাজা উপত্যকার ক্ষমতাসীন দল হামাস। এরপরই গাজায় বিমান হামলা করে ইসরাইলি বিমানবাহিনী। হামলায় অন্তত তিনজন হামাস যোদ্ধা নিহত হয়েছে বলে দাবি করেছে ইসরাইল। দেশটির সেনাবাহিনীর মুখপাত্র লেফটেন্যান্ট কর্নেল জোনাথন কনরিকাস বলেছেন, ‘গাজায় ১৩০ সামরিক লক্ষ্যবস্তুতে আক্রমণ আমরা শুরু করেছি।’ হামাস সূত্রে জানা গেছে, হামলায় ইজজেডাইন আল-কাসাম ব্রিগেডের অধিনায়ক মোহাম্মদ আবদুল্লাহ ফায়াদ নিহত হয়েছেন। এদিকে ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু বলেছেন, ‘ইসরাইল দুর্দান্ত শক্তি দিয়ে অ্যাকশন নেবে। যারা আমাদের আক্রমণ করে তাদের চড়া মূল্য দিতে হবে।’ জাতিসংঘ ও ইউরোপীয় ইউনিয়নসহ আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের আহ্বান সত্ত্বেও পূর্ব জেরুজালেমে বসতি নির্মাণ করা থেকে ইসরাইল সরে আসবে না বলেও জানিয়েছেন নেতানিয়াহু।

জেরুজালেমের আল-আকসা মসজিদ প্রাঙ্গণে হামলার ঘটনাকে কেন্দ্র করে ক্রমবর্ধমান উত্তেজনা প্রশমনে আহ্বান জানিয়েছে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ। ইসরাইল ও ফিলিস্তিনের প্রতি এ আহ্বান জানিয়ে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য ও ইউরোপীয় ইউনিয়ন যত দ্রুত সম্ভব উত্তেজনা প্রশমনের তাগিদ দিয়েছে। চলমান সংকট কাটাতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে জরুরি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল সোমবার এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। যদিও ওই বৈঠকের পর কোনো আনুষ্ঠানিক বিবৃতি দেওয়া হয়নি। কূটনীতিকেরা বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্র ধারণা করছে, এই বৈঠক নিয়ে প্রকাশ্যে বিবৃতি দিলে তা হিতে বিপরীত হতে পারে। তবে নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকে যে খসড়া বিবৃতি তৈরি করা হয়েছে, তা বার্তা সংস্থা এএফপির হাতে এসেছে। তা থেকে জানা গেছে, পূর্ব জেরুজালেম থেকে ফিলিস্তিনিদের উচ্ছেদ ও ইসরাইলের নতুন বসতি স্থাপন বন্ধের আহ্বান জানানো হবে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ থেকে। এ ছাড়া পশ্চিম তীরে উত্তেজনা বৃদ্ধি ও সংঘর্ষের ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশের বিষয়টিও উল্লেখ রয়েছে বিবৃতিতে।

ইসরাইলকে ‘জাহান্নাম’ বানিয়ে দেওয়ার শপথ কাসেম ব্রিগেডের : হামাসের সামরিক উইং কাসেম ব্রিগেড জানিয়েছে, পূর্ব জেরুজালেমের শেখ জাররাহ এলাকা থেকে ফিলিস্তিনিদের উচ্ছেদের চেষ্টা এবং পবিত্র আল-আকসা মসজিদে ইসরাইলি তাণ্ডবের প্রতিবাদে এসব হামলা চালানো হচ্ছে। এর আগে, কাসেম ব্রিগেড শপথ করে ঘোষণা দেয়, আগ্রাসন না থামালে ইসরাইলের দক্ষিণাঞ্চলীয় আশকেলন শহরকে ‘জাহান্নাম’ বানিয়ে দেবে তারা। ইসরাইলিদের উদ্দেশে হামাসের সামরিক উইং থেকে হুঁশিয়ারি দিয়ে বলা হয়, ‘এই বার্তাটি শত্রুদের অবশ্যই ভালোভাবে বুঝতে হবে : তোমরা সাড়া দিলে আমরা সাড়া দেব, তোমরা এগোলে আমরাও এগোব।’

ফিলিস্তিনিরা পালাচ্ছে

গাজার ১৩০ এলাকায় ইসরাইলের বিমান হামলা, শিশুসহ নিহত ২০ * জাতিসংঘে নিরাপত্তা পরিষদের জরুরি বৈঠক
 যুগান্তর ডেস্ক 
১২ মে ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ফিলিস্তিনের অধিকৃত গাজা উপত্যকায় মুহুর্মুহু বিমান হামলা চালাচ্ছে ইসরাইলি বাহিনী। হামলা থেকে বাঁচতে বাড়িঘর ছেড়ে পালাচ্ছে ফিলিস্তিনিরা। আল-আকসা মসজিদে তাণ্ডবের পর ফিলিস্তিনের অধিকৃত গাজা উপত্যকায় দফায় দফায় বিমান হামলা শুরু করেছে ইসরাইল। সোমবার রাতভর উপত্যকার বেশ কয়েকটি এলাকাকে লক্ষ্য করে মুহুর্মুহু হামলা চালানো হয়। হামলা চালানো মঙ্গলবার সকালেও। ইসরাইল নিজে থেকেই বলেছে, গাজার অন্তত ১৩০টি লক্ষ্যে হামলা চালানো হয়েছে। এসব হামলায় নারী ও শিশু ২৪ জন নিহত হয়েছে। বার্তা সংস্থা এএফপি প্রকাশিত ছবিতে দেখা যাচ্ছে, গাজার আবাসিক এলাকাগুলো থেকে বের হয়ে আসছে ভীত-সন্ত্রস্ত বাসিন্দারা। এক মা তার কোলের শিশুকে নিয়ে নিরাপদ আশ্রয় খুঁজছেন। ছোট ছোট ছেলেমেয়ে নিয়ে কেউ কেউ গাড়িতে করে অন্যত্র চলে যাচ্ছেন। পুরো এলাকাজুড়ে কান্নার রোল-হাহাকার ছড়িয়ে পড়েছে।

পূর্ব জেরুজালেমের শেখ জাররাহ এলাকায় ফিলিস্তিনিদের উচ্ছেদ করে অবৈধ ইহুদি বসতি স্থাপনকে কেন্দ্র করে গত এক সপ্তাহ ধরে জোর-জবরদস্তি চালাচ্ছে ইসরাইলি বাহিনী। পূর্ব জেরুজালেমে আল-আকসা মসজিদ ও এর আশপাশের এলাকায় টানা তিনদিন ইসরাইলি নিরাপত্তা বাহিনীর হামলায় নারী ও শিশুসহ কয়েকশ ফিলিস্তিনি আহত হয়। এর প্রতিবাদে সোমবার জেরুজালেমে ইসরাইলের লক্ষ্যবস্তুতে কয়েক ডজন রকেট নিক্ষেপ করে গাজা উপত্যকার ক্ষমতাসীন দল হামাস। এরপরই গাজায় বিমান হামলা করে ইসরাইলি বিমানবাহিনী। হামলায় অন্তত তিনজন হামাস যোদ্ধা নিহত হয়েছে বলে দাবি করেছে ইসরাইল। দেশটির সেনাবাহিনীর মুখপাত্র লেফটেন্যান্ট কর্নেল জোনাথন কনরিকাস বলেছেন, ‘গাজায় ১৩০ সামরিক লক্ষ্যবস্তুতে আক্রমণ আমরা শুরু করেছি।’ হামাস সূত্রে জানা গেছে, হামলায় ইজজেডাইন আল-কাসাম ব্রিগেডের অধিনায়ক মোহাম্মদ আবদুল্লাহ ফায়াদ নিহত হয়েছেন। এদিকে ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু বলেছেন, ‘ইসরাইল দুর্দান্ত শক্তি দিয়ে অ্যাকশন নেবে। যারা আমাদের আক্রমণ করে তাদের চড়া মূল্য দিতে হবে।’ জাতিসংঘ ও ইউরোপীয় ইউনিয়নসহ আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের আহ্বান সত্ত্বেও পূর্ব জেরুজালেমে বসতি নির্মাণ করা থেকে ইসরাইল সরে আসবে না বলেও জানিয়েছেন নেতানিয়াহু।

জেরুজালেমের আল-আকসা মসজিদ প্রাঙ্গণে হামলার ঘটনাকে কেন্দ্র করে ক্রমবর্ধমান উত্তেজনা প্রশমনে আহ্বান জানিয়েছে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ। ইসরাইল ও ফিলিস্তিনের প্রতি এ আহ্বান জানিয়ে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য ও ইউরোপীয় ইউনিয়ন যত দ্রুত সম্ভব উত্তেজনা প্রশমনের তাগিদ দিয়েছে। চলমান সংকট কাটাতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে জরুরি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল সোমবার এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। যদিও ওই বৈঠকের পর কোনো আনুষ্ঠানিক বিবৃতি দেওয়া হয়নি। কূটনীতিকেরা বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্র ধারণা করছে, এই বৈঠক নিয়ে প্রকাশ্যে বিবৃতি দিলে তা হিতে বিপরীত হতে পারে। তবে নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকে যে খসড়া বিবৃতি তৈরি করা হয়েছে, তা বার্তা সংস্থা এএফপির হাতে এসেছে। তা থেকে জানা গেছে, পূর্ব জেরুজালেম থেকে ফিলিস্তিনিদের উচ্ছেদ ও ইসরাইলের নতুন বসতি স্থাপন বন্ধের আহ্বান জানানো হবে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ থেকে। এ ছাড়া পশ্চিম তীরে উত্তেজনা বৃদ্ধি ও সংঘর্ষের ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশের বিষয়টিও উল্লেখ রয়েছে বিবৃতিতে।

ইসরাইলকে ‘জাহান্নাম’ বানিয়ে দেওয়ার শপথ কাসেম ব্রিগেডের : হামাসের সামরিক উইং কাসেম ব্রিগেড জানিয়েছে, পূর্ব জেরুজালেমের শেখ জাররাহ এলাকা থেকে ফিলিস্তিনিদের উচ্ছেদের চেষ্টা এবং পবিত্র আল-আকসা মসজিদে ইসরাইলি তাণ্ডবের প্রতিবাদে এসব হামলা চালানো হচ্ছে। এর আগে, কাসেম ব্রিগেড শপথ করে ঘোষণা দেয়, আগ্রাসন না থামালে ইসরাইলের দক্ষিণাঞ্চলীয় আশকেলন শহরকে ‘জাহান্নাম’ বানিয়ে দেবে তারা। ইসরাইলিদের উদ্দেশে হামাসের সামরিক উইং থেকে হুঁশিয়ারি দিয়ে বলা হয়, ‘এই বার্তাটি শত্রুদের অবশ্যই ভালোভাবে বুঝতে হবে : তোমরা সাড়া দিলে আমরা সাড়া দেব, তোমরা এগোলে আমরাও এগোব।’

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন