এবার সুন্দরীর মুকুট পরবে কারারক্ষী নারীরা
jugantor
এবার সুন্দরীর মুকুট পরবে কারারক্ষী নারীরা

  যুগান্তর ডেস্ক  

১২ জুন ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

পুলিশ মানেই, রাফ অ্যান্ড টাফ। যাকে দেখলে হাঁটু কাঁপবে অপরাধীদের। সে নারী হোক বা পুরুষ। কঠিন ট্রেনিংয়েই রোদে জ্বলেপুড়ে তেতে ওঠে শরীর। তাই তাদের শরীর যে কোনো দিনও লাস্যময়ী বা অপরূপ সুন্দর হতে পারে তা নিয়ে দ্বিমত আছে অনেকের। তারা কাজে কতটা নিপুণ, দক্ষ সেদিকেই নজর দেওয়া হয়। কিন্তু রাশিয়া একটু অন্যপথে হাঁটল। নারী কারারক্ষীদের নিয়ে সুন্দরী প্রতিযোগিতা আয়োজন করেছে দেশটি। মধ্যে থেকে বেছে নিয়েছে দেশের মধ্যে ১২ জন অপরূপ সুন্দরীকে।

মিস পেনাল সিস্টেম কনটেস্ট নামে ওই প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়েছেন দেশটির বিভিন্ন কারাগারের ১০০ জন নারী কারারক্ষী। তারা সবাই কারাগার সামলান। তাদের মধ্যে ১২ জন ফাইনালে পৌঁছেছেন। এ ১২ জন প্রত্যেকেই অপরূপ সুন্দরী। লাস্যময়ী এই কারারক্ষীদের বেশ কিছু ছবি ইতোমধ্যে ভাইরাল হয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। নেট দুনিয়ায় অনেকেই এ উদ্যোগকে প্রশংসায় ভাসাচ্ছেন। আবার অনেকে এ প্রতিযোগিতার বিরোধিতাও করেছেন। তাদের মতে সৌন্দর্যের ভিত্তিতে নয়, তাদের কাজের দক্ষতায় স্বীকৃতি দিতে হবে।

এ ১২ জনের মধ্য থেকে বেছে নেওয়া হবে ‘লক আপ লেডি অব দ্য ইয়ার’কে। সেরা সুন্দরীর মাথায় উঠবে ‘লক আপ লেডি’র বিজয়ীর মুকুট। কার মাথায় মুকুট উঠবে তা জানা যাবে ১১ তারিখ সন্ধ্যায়। অনুষ্ঠিত হবে মসকোতে। এ প্রতিযোগিতায় দেখা হয়েছে নারী কারারক্ষীদের নাচ, পোশাকের চটকদারি, সৌন্দর্য, শখ ও বুদ্ধির জোর।

এবার সুন্দরীর মুকুট পরবে কারারক্ষী নারীরা

 যুগান্তর ডেস্ক 
১২ জুন ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

পুলিশ মানেই, রাফ অ্যান্ড টাফ। যাকে দেখলে হাঁটু কাঁপবে অপরাধীদের। সে নারী হোক বা পুরুষ। কঠিন ট্রেনিংয়েই রোদে জ্বলেপুড়ে তেতে ওঠে শরীর। তাই তাদের শরীর যে কোনো দিনও লাস্যময়ী বা অপরূপ সুন্দর হতে পারে তা নিয়ে দ্বিমত আছে অনেকের। তারা কাজে কতটা নিপুণ, দক্ষ সেদিকেই নজর দেওয়া হয়। কিন্তু রাশিয়া একটু অন্যপথে হাঁটল। নারী কারারক্ষীদের নিয়ে সুন্দরী প্রতিযোগিতা আয়োজন করেছে দেশটি। মধ্যে থেকে বেছে নিয়েছে দেশের মধ্যে ১২ জন অপরূপ সুন্দরীকে।

মিস পেনাল সিস্টেম কনটেস্ট নামে ওই প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়েছেন দেশটির বিভিন্ন কারাগারের ১০০ জন নারী কারারক্ষী। তারা সবাই কারাগার সামলান। তাদের মধ্যে ১২ জন ফাইনালে পৌঁছেছেন। এ ১২ জন প্রত্যেকেই অপরূপ সুন্দরী। লাস্যময়ী এই কারারক্ষীদের বেশ কিছু ছবি ইতোমধ্যে ভাইরাল হয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। নেট দুনিয়ায় অনেকেই এ উদ্যোগকে প্রশংসায় ভাসাচ্ছেন। আবার অনেকে এ প্রতিযোগিতার বিরোধিতাও করেছেন। তাদের মতে সৌন্দর্যের ভিত্তিতে নয়, তাদের কাজের দক্ষতায় স্বীকৃতি দিতে হবে।

এ ১২ জনের মধ্য থেকে বেছে নেওয়া হবে ‘লক আপ লেডি অব দ্য ইয়ার’কে। সেরা সুন্দরীর মাথায় উঠবে ‘লক আপ লেডি’র বিজয়ীর মুকুট। কার মাথায় মুকুট উঠবে তা জানা যাবে ১১ তারিখ সন্ধ্যায়। অনুষ্ঠিত হবে মসকোতে। এ প্রতিযোগিতায় দেখা হয়েছে নারী কারারক্ষীদের নাচ, পোশাকের চটকদারি, সৌন্দর্য, শখ ও বুদ্ধির জোর।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন