এক মাসে ৫০ জেলা দখল
jugantor
এক মাসে ৫০ জেলা দখল
আরও শক্তিশালী হচ্ছে তালেবান

  যুগান্তর ডেস্ক  

২৪ জুন ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

আফগানিস্তানে ক্রমেই শক্তিশালী হয়ে উঠছে তালেবান বিদ্রোহী গোষ্ঠী। দ্রুতই ফিরে আসছে পুনরো রূপে। বিদেশি সেনা প্রত্যাহার প্রক্রিয়ার মধ্যে প্রতিনিয়ত মুহুর্মুহু হামলা চালাচ্ছে। দখল করছে নতুন নতুন অঞ্চল। সর্বশেষ প্রতিবেশী তাজিকিস্তানের সঙ্গে দেশের প্রধান সীমান্ত ক্রসিং দখল করেছে। এভাবে গত এক মাসের মধ্যে অন্তত ৫০টি জেলা সশস্ত্র গোষ্ঠীটির নিয়ন্ত্রণে চলে গেছে। তালেবানের এই আধিপত্য ও অগ্রগতিতে শঙ্কা প্রকাশ করেছে জাতিসংঘ। প্রায় দুই দশকের অসম যুদ্ধের পর আফগানিস্তান থেকে সেনা প্রত্যাহার করছে যুক্তরাষ্ট্র ও ন্যাটো। চলতি বছরের ১১ সেপ্টেম্বরের মধ্যে সব সেনা প্রত্যাহারের লক্ষ্য ঠিক করা হয়েছে। এ লক্ষ্যেই কার্যক্রম চলছে। বিদেশি সেনা প্রত্যাহারের সুযোগে আফগানিস্তানে নিজেদের নিয়ন্ত্রণ বাড়াতে সামরিক তৎপরতা জোরদার করেছে তালেবান। মঙ্গলবার সিএনএন জানায়, সর্বশেষ তাজিকিস্তানের সঙ্গে আফগানিস্তানের প্রধান সীমান্ত ক্রসিং নিয়ন্ত্রণে নিয়েছে এর যোদ্ধারা। এতে দেশটির নিরাপত্তা বাহিনীর অনেকেই তাদের ফাঁড়ি ও সীমান্ত চৌকি ছেড়ে পালিয়েছে। একজন আফগান সেনা কর্মকর্তা জানান, সব চেক পোস্ট থেকে আমরা সরে আসতে বাধ্য হয়েছি। এ লড়াইয়ের সময় আমাদের কিছু সেনা সদস্য সীমান্ত অতিক্রম করে তাজিকিস্তানে চলে গিয়েছেন। সকালেই শত শত তালেবান চেক পোস্ট লক্ষ্য করে এগিয়ে এলে তাদের সঙ্গে ঘণ্টাখানেক যুদ্ধ হয়। আফগানিস্তান বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে হুঁশিয়ারি দিয়ে আফগানিস্তান বিষয়ক জাতিসংঘের বিশেষ দূত দেবোরা লিয়নস জানিয়েছেন, মে মাস থেকে এখন পর্যন্ত দেশটির ৩৭০টির মধ্যে ৫০টির বেশি জেলা দখল করে নিয়েছে তালেবান। মঙ্গলবার নিরাপত্তা পরিষদের এক বৈঠকে তিনি আরও বলেন, ‘আফগানিস্তানে সংঘাত বৃদ্ধির অর্থ হলো, কাছের বা দূরবর্তী সময়ে অন্য অনেক দেশের নিরাপত্তাহীনতা বৃদ্ধি।’

খবরে আরও বলা হয়, আফগানিস্তানের প্রাদেশিক রাজধানীগুলোর চারপাশে জেলাগুলো দখলে নিচ্ছে তালেবানরা। এর পর বিদেশি সেনা পুরোপুরি প্রত্যাহার হলে আরও বড় ধরনের অভিযান চালাবে তালেবানরা। সংঘর্ষে রাজধানী কাবুলসহ ১১টি প্রদেশে তীব্র বিদ্যুৎ সংকট চলছে। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে দেশটির প্রেসিডেন্ট আশরাফ গনি ও দেশটির শান্তিপ্রক্রিয়ার প্রধান আবদুল্লাহ আবদুল্লাহ আগামী শুক্রবার হোয়াইট হাউসে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন।

এক মাসে ৫০ জেলা দখল

আরও শক্তিশালী হচ্ছে তালেবান
 যুগান্তর ডেস্ক 
২৪ জুন ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

আফগানিস্তানে ক্রমেই শক্তিশালী হয়ে উঠছে তালেবান বিদ্রোহী গোষ্ঠী। দ্রুতই ফিরে আসছে পুনরো রূপে। বিদেশি সেনা প্রত্যাহার প্রক্রিয়ার মধ্যে প্রতিনিয়ত মুহুর্মুহু হামলা চালাচ্ছে। দখল করছে নতুন নতুন অঞ্চল। সর্বশেষ প্রতিবেশী তাজিকিস্তানের সঙ্গে দেশের প্রধান সীমান্ত ক্রসিং দখল করেছে। এভাবে গত এক মাসের মধ্যে অন্তত ৫০টি জেলা সশস্ত্র গোষ্ঠীটির নিয়ন্ত্রণে চলে গেছে। তালেবানের এই আধিপত্য ও অগ্রগতিতে শঙ্কা প্রকাশ করেছে জাতিসংঘ। প্রায় দুই দশকের অসম যুদ্ধের পর আফগানিস্তান থেকে সেনা প্রত্যাহার করছে যুক্তরাষ্ট্র ও ন্যাটো। চলতি বছরের ১১ সেপ্টেম্বরের মধ্যে সব সেনা প্রত্যাহারের লক্ষ্য ঠিক করা হয়েছে। এ লক্ষ্যেই কার্যক্রম চলছে। বিদেশি সেনা প্রত্যাহারের সুযোগে আফগানিস্তানে নিজেদের নিয়ন্ত্রণ বাড়াতে সামরিক তৎপরতা জোরদার করেছে তালেবান। মঙ্গলবার সিএনএন জানায়, সর্বশেষ তাজিকিস্তানের সঙ্গে আফগানিস্তানের প্রধান সীমান্ত ক্রসিং নিয়ন্ত্রণে নিয়েছে এর যোদ্ধারা। এতে দেশটির নিরাপত্তা বাহিনীর অনেকেই তাদের ফাঁড়ি ও সীমান্ত চৌকি ছেড়ে পালিয়েছে। একজন আফগান সেনা কর্মকর্তা জানান, সব চেক পোস্ট থেকে আমরা সরে আসতে বাধ্য হয়েছি। এ লড়াইয়ের সময় আমাদের কিছু সেনা সদস্য সীমান্ত অতিক্রম করে তাজিকিস্তানে চলে গিয়েছেন। সকালেই শত শত তালেবান চেক পোস্ট লক্ষ্য করে এগিয়ে এলে তাদের সঙ্গে ঘণ্টাখানেক যুদ্ধ হয়। আফগানিস্তান বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে হুঁশিয়ারি দিয়ে আফগানিস্তান বিষয়ক জাতিসংঘের বিশেষ দূত দেবোরা লিয়নস জানিয়েছেন, মে মাস থেকে এখন পর্যন্ত দেশটির ৩৭০টির মধ্যে ৫০টির বেশি জেলা দখল করে নিয়েছে তালেবান। মঙ্গলবার নিরাপত্তা পরিষদের এক বৈঠকে তিনি আরও বলেন, ‘আফগানিস্তানে সংঘাত বৃদ্ধির অর্থ হলো, কাছের বা দূরবর্তী সময়ে অন্য অনেক দেশের নিরাপত্তাহীনতা বৃদ্ধি।’

খবরে আরও বলা হয়, আফগানিস্তানের প্রাদেশিক রাজধানীগুলোর চারপাশে জেলাগুলো দখলে নিচ্ছে তালেবানরা। এর পর বিদেশি সেনা পুরোপুরি প্রত্যাহার হলে আরও বড় ধরনের অভিযান চালাবে তালেবানরা। সংঘর্ষে রাজধানী কাবুলসহ ১১টি প্রদেশে তীব্র বিদ্যুৎ সংকট চলছে। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে দেশটির প্রেসিডেন্ট আশরাফ গনি ও দেশটির শান্তিপ্রক্রিয়ার প্রধান আবদুল্লাহ আবদুল্লাহ আগামী শুক্রবার হোয়াইট হাউসে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন