আফগান দোভাষীদের পুনর্বাসনে ১০ কোটি ডলার
jugantor
আফগান দোভাষীদের পুনর্বাসনে ১০ কোটি ডলার

  যুগান্তর ডেস্ক  

২৫ জুলাই ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

আফগানিস্তানে যুক্তরাষ্ট্র সরকারের পক্ষে কাজ করায় এখন তালেবানের লক্ষ্যে পরিণত হওয়া কয়েক হাজার আফগান নাগরিককে বিশেষ অভিবাসন ভিসায় (এসআইভি) সেদেশ থেকে সরিয়ে আনার প্রস্তুতি নিচ্ছে ওয়াশিংটন। এর আগে কয়েক হাজার দোভাষী যুক্তরাষ্ট্রে ভিসার আবেদন জানিয়েছিল। সে কারণেই ধারণা করা হচ্ছে ওই দোভাষীদের পুনর্বাসনে পদক্ষেপ নিয়েছে দেশটি।

শুক্রবার প্রেসিডেন্ট বাইডেন ১০ কোটি ডলারের একটি তহবিল অনুমোদন করেন ‘অপ্রত্যাশিত জরুরি’ শরণার্থী চাহিদা মেটানোর খরচ জোগানোর জন্য। হোয়াইট হাউজের বিবৃতিতে আরও জানানো হয়, বাইডেন যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন সরকারি সংস্থার জন্য একই চাহিদা মেটাতে ২০ কোটি ডলারের আরেকটি তহবিল ছাড়ের অনুমোদন দিয়েছেন। যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষে দোভাষীর কাজ করায় আফগান নাগরিকদের লক্ষ্যে পরিণত এবং হত্যার নিন্দা জানিয়েছে মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তর। এদিকে জাতিসংঘের নিরাপত্তা কাউন্সিলের এক প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে, ইসলামিক স্টেটের ইরাক ও লেভান্ত-খোরাসান (আইএসআইএল-কে) ইউনিটের নেতারা মার্কিন ও আফগান-তালেবান শান্তিচুক্তির বিরোধিতাকারী তালেবান যোদ্ধাদের দলে নেওয়া চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

আফগান দোভাষীদের পুনর্বাসনে ১০ কোটি ডলার

 যুগান্তর ডেস্ক 
২৫ জুলাই ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

আফগানিস্তানে যুক্তরাষ্ট্র সরকারের পক্ষে কাজ করায় এখন তালেবানের লক্ষ্যে পরিণত হওয়া কয়েক হাজার আফগান নাগরিককে বিশেষ অভিবাসন ভিসায় (এসআইভি) সেদেশ থেকে সরিয়ে আনার প্রস্তুতি নিচ্ছে ওয়াশিংটন। এর আগে কয়েক হাজার দোভাষী যুক্তরাষ্ট্রে ভিসার আবেদন জানিয়েছিল। সে কারণেই ধারণা করা হচ্ছে ওই দোভাষীদের পুনর্বাসনে পদক্ষেপ নিয়েছে দেশটি।

শুক্রবার প্রেসিডেন্ট বাইডেন ১০ কোটি ডলারের একটি তহবিল অনুমোদন করেন ‘অপ্রত্যাশিত জরুরি’ শরণার্থী চাহিদা মেটানোর খরচ জোগানোর জন্য। হোয়াইট হাউজের বিবৃতিতে আরও জানানো হয়, বাইডেন যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন সরকারি সংস্থার জন্য একই চাহিদা মেটাতে ২০ কোটি ডলারের আরেকটি তহবিল ছাড়ের অনুমোদন দিয়েছেন। যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষে দোভাষীর কাজ করায় আফগান নাগরিকদের লক্ষ্যে পরিণত এবং হত্যার নিন্দা জানিয়েছে মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তর। এদিকে জাতিসংঘের নিরাপত্তা কাউন্সিলের এক প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে, ইসলামিক স্টেটের ইরাক ও লেভান্ত-খোরাসান (আইএসআইএল-কে) ইউনিটের নেতারা মার্কিন ও আফগান-তালেবান শান্তিচুক্তির বিরোধিতাকারী তালেবান যোদ্ধাদের দলে নেওয়া চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন