তালেবানের ‘শক্তি’ দেখতে চায় রাশিয়া
jugantor
তালেবানের ‘শক্তি’ দেখতে চায় রাশিয়া

  যুগান্তর ডেস্ক  

১৫ অক্টোবর ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

আফগানিস্তানে জঙ্গিগোষ্ঠী আইএস নির্মূলে তালেবান সরকারের শক্তি ও সক্ষমতা দেখতে চায় রাশিয়া। আগামী সপ্তাহে তালেবানের সঙ্গে এক শীর্ষ সম্মেলন সামনে রেখে বৃহস্পতিবার এমনটাই বলেছেন দেশটির কর্তাব্যক্তিরা। এক বিবৃতিতে দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মারিয়া জাখারোভা বলেন, ‘আমরা আফগানিস্তানে সন্ত্রাসী গোষ্ঠী আইএসের চলমান তৎপরতায় উদ্বিগ্ন। আমাদের প্রত্যাশা, বাইরের সহযোগিতা ছাড়াই সন্ত্রাস মোকাবিলায় কাবুলের নতুন সরকার নিজেদের শক্তি ও সক্ষমতা দেখাবে।’ এএফপি।

মারিয়ার এই বক্তব্যের একদিন আগেই আফগানিস্তানে সন্ত্রাসবাদের উত্থান ও হুমকির ব্যাপারে হুঁশিয়ারি দেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ­াদিমির পুতিন। কমনওয়েলথ অব ইন্ডিপেনডেন্ট স্টেটসের (সিআইএস) দেশগুলোর গোয়েন্দা প্রধানদের এক বৈঠকে তিনি বলেন, ‘ইরাক ও সিরিয়ার আইএস-সংশ্লিষ্ট জঙ্গিরা এখন আফগানিস্তানে প্রবেশ করতে শুরু করেছে।’ তিনি আরও বলেন, ‘এসব সন্ত্রাসী আমাদের প্রতিবেশী দেশগুলোকে অস্থিতিশীল করার কিংবা সরাসরি জঙ্গি তৎপরতা বিস্তারের চেষ্টা করতে পারে। এসব সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের প্রতি ইঙ্গিত করে রুশ গোয়েন্দা সংস্থার প্রধান সের্গেই নারিশকিন বলেন, মধ্য এশিয়ার দেশগুলোতে প্রভাব ও উপস্থিতি বাড়ানোর চেষ্টা করছে যুক্তরাষ্ট্র।

চলতি বছরের আগস্ট মাসে যুক্তরাষ্ট্র ও তাদের মিত্র পশ্চিমাদের কাছ থেকে আফগানিস্তানের শাসনক্ষমতা ছিনিয়ে নেয় তালেবান। তারা ইতোমধ্যে একটি অন্তর্বর্তী সরকার ও মন্ত্রিসভা গঠন করেছে। এখন আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি পেতে তদবির চালিয়ে যাচ্ছে। রুশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মারিয়া জানান, আগামী সপ্তাহেই মস্কোয় তালেবানের সঙ্গে একটি বহুপাক্ষিক বৈঠকের আয়োজন করতে যাচ্ছে রাশিয়া। বৈঠকে রাশিয়ার পাশাপাশি আমেরিকা, চীন, ভারত, পাকিস্তান, ইরান, আফগানিস্তান এবং মধ্য এশিয়ার দেশগুলো যোগ দিতে পারে বলে আশা করা হচ্ছে।

বোমা হামলায় তালেবান পুলিশ কর্মকর্তা নিহত : আফগানিস্তানের পূর্বাঞ্চলে সন্ত্রাসীদের বোমা হামলায় এক তালেবান পুলিশ কর্মকর্তা নিহত হয়েছেন। এ ছাড়া আরো অন্তত ১১ জন আহত হয়েছেন। টাইমস অব ইন্ডিয়া এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, কুনার প্রদেশের রাজধানী আসাদাবাদে এ ঘটনা ঘটেছে। তালেবান পুলিশের শিগাল জেলার প্রধানকে লক্ষ্য করে হামলাটি চালানো হয়। নাম প্রকাশ না করার শর্তে তালেবানের এক নেতা সংবাদ সংস্থা এএফপিকে বলেন, সেখানকার পুলিশ প্রধান মারা গেছেন এবং আরও ১১ জন আহত হয়েছেন। এখন পর্যন্ত এ ঘটনার দায় স্বীকার করেনি কোনো গোষ্ঠী।

তালেবানের ‘শক্তি’ দেখতে চায় রাশিয়া

 যুগান্তর ডেস্ক 
১৫ অক্টোবর ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

আফগানিস্তানে জঙ্গিগোষ্ঠী আইএস নির্মূলে তালেবান সরকারের শক্তি ও সক্ষমতা দেখতে চায় রাশিয়া। আগামী সপ্তাহে তালেবানের সঙ্গে এক শীর্ষ সম্মেলন সামনে রেখে বৃহস্পতিবার এমনটাই বলেছেন দেশটির কর্তাব্যক্তিরা। এক বিবৃতিতে দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মারিয়া জাখারোভা বলেন, ‘আমরা আফগানিস্তানে সন্ত্রাসী গোষ্ঠী আইএসের চলমান তৎপরতায় উদ্বিগ্ন। আমাদের প্রত্যাশা, বাইরের সহযোগিতা ছাড়াই সন্ত্রাস মোকাবিলায় কাবুলের নতুন সরকার নিজেদের শক্তি ও সক্ষমতা দেখাবে।’ এএফপি।

মারিয়ার এই বক্তব্যের একদিন আগেই আফগানিস্তানে সন্ত্রাসবাদের উত্থান ও হুমকির ব্যাপারে হুঁশিয়ারি দেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ­াদিমির পুতিন। কমনওয়েলথ অব ইন্ডিপেনডেন্ট স্টেটসের (সিআইএস) দেশগুলোর গোয়েন্দা প্রধানদের এক বৈঠকে তিনি বলেন, ‘ইরাক ও সিরিয়ার আইএস-সংশ্লিষ্ট জঙ্গিরা এখন আফগানিস্তানে প্রবেশ করতে শুরু করেছে।’ তিনি আরও বলেন, ‘এসব সন্ত্রাসী আমাদের প্রতিবেশী দেশগুলোকে অস্থিতিশীল করার কিংবা সরাসরি জঙ্গি তৎপরতা বিস্তারের চেষ্টা করতে পারে। এসব সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের প্রতি ইঙ্গিত করে রুশ গোয়েন্দা সংস্থার প্রধান সের্গেই নারিশকিন বলেন, মধ্য এশিয়ার দেশগুলোতে প্রভাব ও উপস্থিতি বাড়ানোর চেষ্টা করছে যুক্তরাষ্ট্র।

চলতি বছরের আগস্ট মাসে যুক্তরাষ্ট্র ও তাদের মিত্র পশ্চিমাদের কাছ থেকে আফগানিস্তানের শাসনক্ষমতা ছিনিয়ে নেয় তালেবান। তারা ইতোমধ্যে একটি অন্তর্বর্তী সরকার ও মন্ত্রিসভা গঠন করেছে। এখন আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি পেতে তদবির চালিয়ে যাচ্ছে। রুশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মারিয়া জানান, আগামী সপ্তাহেই মস্কোয় তালেবানের সঙ্গে একটি বহুপাক্ষিক বৈঠকের আয়োজন করতে যাচ্ছে রাশিয়া। বৈঠকে রাশিয়ার পাশাপাশি আমেরিকা, চীন, ভারত, পাকিস্তান, ইরান, আফগানিস্তান এবং মধ্য এশিয়ার দেশগুলো যোগ দিতে পারে বলে আশা করা হচ্ছে।

বোমা হামলায় তালেবান পুলিশ কর্মকর্তা নিহত : আফগানিস্তানের পূর্বাঞ্চলে সন্ত্রাসীদের বোমা হামলায় এক তালেবান পুলিশ কর্মকর্তা নিহত হয়েছেন। এ ছাড়া আরো অন্তত ১১ জন আহত হয়েছেন। টাইমস অব ইন্ডিয়া এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, কুনার প্রদেশের রাজধানী আসাদাবাদে এ ঘটনা ঘটেছে। তালেবান পুলিশের শিগাল জেলার প্রধানকে লক্ষ্য করে হামলাটি চালানো হয়। নাম প্রকাশ না করার শর্তে তালেবানের এক নেতা সংবাদ সংস্থা এএফপিকে বলেন, সেখানকার পুলিশ প্রধান মারা গেছেন এবং আরও ১১ জন আহত হয়েছেন। এখন পর্যন্ত এ ঘটনার দায় স্বীকার করেনি কোনো গোষ্ঠী।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : আফগানিস্তানে তালেবানের পুনরুত্থান