ইউক্রেনে হামলা চালাবে রাশিয়া
jugantor
ওয়াশিংটন পোস্টের প্রতিবেদন
ইউক্রেনে হামলা চালাবে রাশিয়া
পুতিনকে চরম হুঁশিয়ারি বাইডেনের

  যুগান্তর ডেস্ক  

০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ইউক্রেনে হামলা চালাবে রাশিয়া

ইউক্রেনে আবারও হামলা চালাবে রাশিয়া। সীমান্তে দিনকে দিন সেনা সমাবেশের বিস্তার ঘটাচ্ছে রাশিয়া। প্রতিবেশী দেশটির সীমান্তে ১ লাখ ৭৫ হাজার সেনা নিয়ে বহুমুখী আক্রমণের পরিকল্পনা সাজিয়েছে মস্কো। শুক্রবার এ সংক্রান্ত এক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে মার্কিন প্রভাবশালী সংবাদমাধ্যম ওয়াশিংটন পোস্ট। এতে বলা হয়েছে, আগামী বছরের গোড়ার দিকেই আক্রমণ চালানোর পরিকল্পনা পুতিন সরকারের। এখন পর্যন্ত ইউক্রেন সীমান্তে ভারি অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে অবস্থান করছে ৯০ হাজারের বেশি রুশ সেনা।

মার্কিন কর্মকর্তাদের পাশাপাশি গোয়েন্দা নথির বরাতে ওয়াশিংটন পোস্ট জানিয়েছে, পরিকল্পিত অভিযানটি একটি বহুমুখী আক্রমণ হতে পারে। অপ্রকাশিত মার্কিন গোয়েন্দা তথ্যের উদ্ধৃতি দিয়ে ওয়াশিংটন পোস্ট আরও বলছে, রুশ সৈন্যদের ইউক্রেন সীমান্তের চারটি অবস্থানে জড়ো করা হচ্ছে। তবে মার্কিন এই গোয়েন্দা প্রতিবেদনের বিষয়ে ক্রেমলিনের পক্ষ থেকে কোনো প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। এই প্রতিবেদনের আগে ইউক্রেনের প্রতিরক্ষামন্ত্রী ওলেকসি রেজিনিকভ দাবি করেন, ইউক্রেন সীমান্তে ইতোমধ্যে ৯৪ হাজারের কাছাকাছি সেনা মোতায়েন করেছে মস্কো। এএফপি, বিবিসি।

এদিকে ইউক্রেন ইস্যুতে রাশিয়ার রেড লাইন মানবেন না বলে সাফ জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। মস্কো তার প্রতিবেশী দেশ ইউক্রেনে যে আক্রমণের পরিকল্পনা সাজাচ্ছে তা ‘অত্যন্ত দুরূহ’ করে তুলবেন বলেও সতর্ক করেছেন তিনি। শুক্রবার মেরিল্যান্ড অঙ্গরাজ্যে ক্যাম্প ডেভিড সামরিক ঘাঁটিতে সাংবাদিকদের বাইডেন আরও বলেন, ‘ভ্লাদিমির পুতিনকে ইউক্রেনে আগ্রাসন চালানো থেকে বিরত রাখতে আমরা বেশ কিছু পরিকল্পনা নিয়েছি। তা বাস্তবায়ন সম্ভব হলে ব্যাপক ও অর্থপূর্ণভাবে রাশিয়া-ইউক্রেন সংকট মেটানো সম্ভব।’ উত্তেজনা প্রশমনে করণীয় নিয়ে চলতি সপ্তাহে ভার্চুয়ালি বৈঠকে বসার কথা রয়েছে বাইডেন ও পুতিন। রুশ প্রেসিডেন্ট পুতিনের সঙ্গে দীর্ঘক্ষণ আলাপের আশাবাদ ব্যক্ত করেন প্রেসিডেন্ট বাইডেন।

এ প্রসঙ্গে ক্রেমলিনের পররাষ্ট্রবিষয়ক উপদেষ্টা ইউরি উসাকভের বরাতে বলা হয়, করোনার কারণে এই বৈঠক ভার্চুয়ালি হবে। তবে নির্ধারিত দিনক্ষণ জানাতে পারেননি ইউরি। চলমান ইউক্রেন সংকট নিয়ে মার্কিন নেতৃত্বাধীন ন্যাটো সামরিক জোটের সঙ্গে রাশিয়ার দ্বন্দ্বের পরিপ্রেক্ষিতেই বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা। তবে ইউরি উসাকভ জানিয়েছেন, মস্কো ও ওয়াশিংটনের মধ্যে আলোচনার পরই বৈঠকের চূড়ান্ত সময় জানিয়ে দেওয়া হবে। রুশপন্থি গেরিলাদের নিয়ন্ত্রণে থাকা দনবাস এলাকা নিয়ে সম্প্রতি রাশিয়া ও ইউক্রেনের মধ্যে উত্তেজনা প্রকট আকার ধারণ করে। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে ইউক্রেন সীমান্তে সেনা সমাবেশ করে মস্কো। রাশিয়ার পক্ষ থেকে পূর্ণাঙ্গ যুদ্ধেরও হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়েছে। রুশ কর্মকর্তা দিমিত্রি কোজাকের ভাষায়, ‘একটা গুলিও পায়ে নয়, মুখে চালানো হবে।’

ওয়াশিংটন পোস্টের প্রতিবেদন

ইউক্রেনে হামলা চালাবে রাশিয়া

পুতিনকে চরম হুঁশিয়ারি বাইডেনের
 যুগান্তর ডেস্ক 
০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ
ইউক্রেনে হামলা চালাবে রাশিয়া
প্রতীকী ছবি

ইউক্রেনে আবারও হামলা চালাবে রাশিয়া। সীমান্তে দিনকে দিন সেনা সমাবেশের বিস্তার ঘটাচ্ছে রাশিয়া। প্রতিবেশী দেশটির সীমান্তে ১ লাখ ৭৫ হাজার সেনা নিয়ে বহুমুখী আক্রমণের পরিকল্পনা সাজিয়েছে মস্কো। শুক্রবার এ সংক্রান্ত এক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে মার্কিন প্রভাবশালী সংবাদমাধ্যম ওয়াশিংটন পোস্ট। এতে বলা হয়েছে, আগামী বছরের গোড়ার দিকেই আক্রমণ চালানোর পরিকল্পনা পুতিন সরকারের। এখন পর্যন্ত ইউক্রেন সীমান্তে ভারি অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে অবস্থান করছে ৯০ হাজারের বেশি রুশ সেনা।

মার্কিন কর্মকর্তাদের পাশাপাশি গোয়েন্দা নথির বরাতে ওয়াশিংটন পোস্ট জানিয়েছে, পরিকল্পিত অভিযানটি একটি বহুমুখী আক্রমণ হতে পারে। অপ্রকাশিত মার্কিন গোয়েন্দা তথ্যের উদ্ধৃতি দিয়ে ওয়াশিংটন পোস্ট আরও বলছে, রুশ সৈন্যদের ইউক্রেন সীমান্তের চারটি অবস্থানে জড়ো করা হচ্ছে। তবে মার্কিন এই গোয়েন্দা প্রতিবেদনের বিষয়ে ক্রেমলিনের পক্ষ থেকে কোনো প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। এই প্রতিবেদনের আগে ইউক্রেনের প্রতিরক্ষামন্ত্রী ওলেকসি রেজিনিকভ দাবি করেন, ইউক্রেন সীমান্তে ইতোমধ্যে ৯৪ হাজারের কাছাকাছি সেনা মোতায়েন করেছে মস্কো। এএফপি, বিবিসি।

এদিকে ইউক্রেন ইস্যুতে রাশিয়ার রেড লাইন মানবেন না বলে সাফ জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। মস্কো তার প্রতিবেশী দেশ ইউক্রেনে যে আক্রমণের পরিকল্পনা সাজাচ্ছে তা ‘অত্যন্ত দুরূহ’ করে তুলবেন বলেও সতর্ক করেছেন তিনি। শুক্রবার মেরিল্যান্ড অঙ্গরাজ্যে ক্যাম্প ডেভিড সামরিক ঘাঁটিতে সাংবাদিকদের বাইডেন আরও বলেন, ‘ভ্লাদিমির পুতিনকে ইউক্রেনে আগ্রাসন চালানো থেকে বিরত রাখতে আমরা বেশ কিছু পরিকল্পনা নিয়েছি। তা বাস্তবায়ন সম্ভব হলে ব্যাপক ও অর্থপূর্ণভাবে রাশিয়া-ইউক্রেন সংকট মেটানো সম্ভব।’ উত্তেজনা প্রশমনে করণীয় নিয়ে চলতি সপ্তাহে ভার্চুয়ালি বৈঠকে বসার কথা রয়েছে বাইডেন ও পুতিন। রুশ প্রেসিডেন্ট পুতিনের সঙ্গে দীর্ঘক্ষণ আলাপের আশাবাদ ব্যক্ত করেন প্রেসিডেন্ট বাইডেন।

এ প্রসঙ্গে ক্রেমলিনের পররাষ্ট্রবিষয়ক উপদেষ্টা ইউরি উসাকভের বরাতে বলা হয়, করোনার কারণে এই বৈঠক ভার্চুয়ালি হবে। তবে নির্ধারিত দিনক্ষণ জানাতে পারেননি ইউরি। চলমান ইউক্রেন সংকট নিয়ে মার্কিন নেতৃত্বাধীন ন্যাটো সামরিক জোটের সঙ্গে রাশিয়ার দ্বন্দ্বের পরিপ্রেক্ষিতেই বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা। তবে ইউরি উসাকভ জানিয়েছেন, মস্কো ও ওয়াশিংটনের মধ্যে আলোচনার পরই বৈঠকের চূড়ান্ত সময় জানিয়ে দেওয়া হবে। রুশপন্থি গেরিলাদের নিয়ন্ত্রণে থাকা দনবাস এলাকা নিয়ে সম্প্রতি রাশিয়া ও ইউক্রেনের মধ্যে উত্তেজনা প্রকট আকার ধারণ করে। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে ইউক্রেন সীমান্তে সেনা সমাবেশ করে মস্কো। রাশিয়ার পক্ষ থেকে পূর্ণাঙ্গ যুদ্ধেরও হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়েছে। রুশ কর্মকর্তা দিমিত্রি কোজাকের ভাষায়, ‘একটা গুলিও পায়ে নয়, মুখে চালানো হবে।’

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন