ইমরান খানকে কটাক্ষ করে গান
jugantor
ছোট খবর
ইমরান খানকে কটাক্ষ করে গান

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক  

০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

‘সাবুন মেহেঙ্গা হো যায়ে তো আপ নে লাগানা নাহি আতা/মেহেঙ্গা হো যায়ে তো আপনে খানা নাহি/আপনে ঘাবড়ানা নাহি, আপনে ঘাবড়ানা নাহি...’। মাত্র ৫৫ সেকেন্ডের একটি ভিডিও, যেখানে রয়েছে এই প্যারোডি গানটি। পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের শাসনামলে পাকিস্তানের অর্থনৈতিক দুর্দশাকে খোঁচা মেরে গাওয়া হয়েছে গানটি। গানটির অর্থ দাঁড়ায় সাবানের দাম বেড়েছে তো কী হয়েছে? মাখবেন না। খাবারের দাম বেড়েছে? আপনি খাবেন না! তবু আপনি ঘাবড়াবেন না!...’ দেশের ক্রমাগত মূল্যবৃদ্ধি, সাধারণের আর্থিক দুরবস্থা নিয়ে তুমুল কটাক্ষ করা হয়েছে গানটিতে। ঘটনা এখানেই শেষ নয়, এই গানই টুইটারে পোস্ট করেছে সার্বিয়ার পাক দূতাবাস। এনডিটিভি।

টুইটের দুই ঘণ্টা পরই দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতি দিয়ে দূতাবাসের অ্যাকাউন্ট হ্যাক করা হয়েছে বলে দাবি করে। মন্ত্রণালয়ের বিবৃতির দূতাবাসের করা টুইটটিও মুছে ফেলা হয়েছে। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র তার টুইটবার্তায় দাবি করেন, ‘সার্বিয়ায় পাকিস্তান দূতাবাসের টুইটার, ফেসবুক ও ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট হ্যাক করা হয়েছে। এসব অ্যাকাউন্ট থেকে পোস্ট হওয়া কোনো বার্তা সার্বিয়া পাকিস্তান দূতাবাসের নয়।’

সার্বিয়ার পাক দূতাবাসের ওই ভিডিওর ক্যাপশনে লেখা ছিল, ‘মুদ্রাস্ফীতি আগের সমস্ত রেকর্ড ছাড়িয়ে গেছে। ইমরান খান, আর কতদিন আমরা সরকারি কর্মচারীরা চুপ করে থাকব বলে আপনি আশা করেন? তিন মাস হলো বেতন পাইনি, আর কতদিন আপনার হয়ে কাজ করে যাব? ফি না দিতে পারায় আমাদের সন্তানদের স্কুল থেকে বের করে দেওয়া হয়েছে। এটাই কি নয়া পাকিস্তান?’ পাক দূতাবাসের এই টুইটার অ্যাকাউন্টটিতে নীল টিক চিহ্ন (ভেরিফাইড) থাকায় প্রমাণিত হয় সেটি ফেইক কিংবা জাল অ্যাকাউন্ট ছিল না।

ছোট খবর

ইমরান খানকে কটাক্ষ করে গান

 আন্তর্জাতিক ডেস্ক 
০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

‘সাবুন মেহেঙ্গা হো যায়ে তো আপ নে লাগানা নাহি আতা/মেহেঙ্গা হো যায়ে তো আপনে খানা নাহি/আপনে ঘাবড়ানা নাহি, আপনে ঘাবড়ানা নাহি...’। মাত্র ৫৫ সেকেন্ডের একটি ভিডিও, যেখানে রয়েছে এই প্যারোডি গানটি। পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের শাসনামলে পাকিস্তানের অর্থনৈতিক দুর্দশাকে খোঁচা মেরে গাওয়া হয়েছে গানটি। গানটির অর্থ দাঁড়ায় সাবানের দাম বেড়েছে তো কী হয়েছে? মাখবেন না। খাবারের দাম বেড়েছে? আপনি খাবেন না! তবু আপনি ঘাবড়াবেন না!...’ দেশের ক্রমাগত মূল্যবৃদ্ধি, সাধারণের আর্থিক দুরবস্থা নিয়ে তুমুল কটাক্ষ করা হয়েছে গানটিতে। ঘটনা এখানেই শেষ নয়, এই গানই টুইটারে পোস্ট করেছে সার্বিয়ার পাক দূতাবাস। এনডিটিভি।

টুইটের দুই ঘণ্টা পরই দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতি দিয়ে দূতাবাসের অ্যাকাউন্ট হ্যাক করা হয়েছে বলে দাবি করে। মন্ত্রণালয়ের বিবৃতির দূতাবাসের করা টুইটটিও মুছে ফেলা হয়েছে। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র তার টুইটবার্তায় দাবি করেন, ‘সার্বিয়ায় পাকিস্তান দূতাবাসের টুইটার, ফেসবুক ও ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট হ্যাক করা হয়েছে। এসব অ্যাকাউন্ট থেকে পোস্ট হওয়া কোনো বার্তা সার্বিয়া পাকিস্তান দূতাবাসের নয়।’

সার্বিয়ার পাক দূতাবাসের ওই ভিডিওর ক্যাপশনে লেখা ছিল, ‘মুদ্রাস্ফীতি আগের সমস্ত রেকর্ড ছাড়িয়ে গেছে। ইমরান খান, আর কতদিন আমরা সরকারি কর্মচারীরা চুপ করে থাকব বলে আপনি আশা করেন? তিন মাস হলো বেতন পাইনি, আর কতদিন আপনার হয়ে কাজ করে যাব? ফি না দিতে পারায় আমাদের সন্তানদের স্কুল থেকে বের করে দেওয়া হয়েছে। এটাই কি নয়া পাকিস্তান?’ পাক দূতাবাসের এই টুইটার অ্যাকাউন্টটিতে নীল টিক চিহ্ন (ভেরিফাইড) থাকায় প্রমাণিত হয় সেটি ফেইক কিংবা জাল অ্যাকাউন্ট ছিল না।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন