মুসলিম বলে মন্ত্রিত্ব কেড়ে নেওয়া হয়েছে
jugantor
ব্রিটিশ এমপির বিস্ফোরক অভিযোগ
মুসলিম বলে মন্ত্রিত্ব কেড়ে নেওয়া হয়েছে

  যুগান্তর ডেস্ক  

২৪ জানুয়ারি ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ব্রিটেনের ক্ষমতাসীন কনজারভেটিভ সরকারের এক আইনপ্রণেতা বলেছেন, মুসলিম হওয়ার কারণে তাকে মন্ত্রিত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে।

নুসরাত গনি নামে ওই নারী এমপি আরও বলেছেন, বরখাস্তের কারণ হিসাবে দলের হুইপদের পক্ষ থেকে তাকে জানানো হয়েছিল, তার ধর্মীয় বিশ্বাস অফিসের অন্য সহকর্মীদের মধ্যে অস্বস্তির সৃষ্টি করছে।

পদচ্যুতির প্রায় দুই বছর পর রোববার সানডে টাইমসকে এক সাক্ষাৎকারে এই বিস্ফোরক অভিযোগ করেন তিনি। এই অভিযোগের ফলে নতুন করে অস্বস্তিতে পড়েছে ক্ষমতাসীন টোরি সরকার। তবে নারী সংসদ-সদস্যের এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন দলের এক হুইপ। রয়টার্স।

৪৯ বছর বয়সি নুসরাত ব্রিটেনের ইতিহাসে প্রথম মুসলিম নারী মন্ত্রী ছিলেন। ২০১৮ সালে তাকে পরিবহণ মন্ত্রণালয়ের জুনিয়র মন্ত্রী করা হয়।

কিন্তু ২০২০ সালের ফেব্রুয়ারিতে প্রশাসনের একটি ছোট রদবদলের সময় তাকে পদচ্যুত করা হয়। সানডে টাইমসকে নুসরাত বলেন, বরখাস্তের পর পার্লামেন্টের এক হুইপ তাকে জানিয়েছিলেন-তার মুসলিম পরিচয়ই মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব থেকে তাকে সরিয়ে দেওয়ার প্রধান কারণ।

তিনি আরও বলেন, আমি এটি বলব না যে, এটি (মন্ত্রিত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়া) দলের প্রতি আমার বিশ্বাসকে নাড়া দেয়নি। এমনকি দলের এমন আচরণে আমি এমপি হিসাবে আমার দায়িত্ব চালিয়ে যাব কি-না, সেটিও একসময় বিবেচনা করতে বাধ্য হই।

করোনাভাইরাস মহামারির মধ্যে অতিথিদের নিয়ে পার্টির আয়োজন করায় ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েছেন প্রধানমন্ত্রী বরিস। ওই ঘটনার জেরে তার পদত্যাগের দাবি তুলেছেন বিরোধীরা।

ব্রিটিশ এমপির বিস্ফোরক অভিযোগ

মুসলিম বলে মন্ত্রিত্ব কেড়ে নেওয়া হয়েছে

 যুগান্তর ডেস্ক 
২৪ জানুয়ারি ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ব্রিটেনের ক্ষমতাসীন কনজারভেটিভ সরকারের এক আইনপ্রণেতা বলেছেন, মুসলিম হওয়ার কারণে তাকে মন্ত্রিত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে।

নুসরাত গনি নামে ওই নারী এমপি আরও বলেছেন, বরখাস্তের কারণ হিসাবে দলের হুইপদের পক্ষ থেকে তাকে জানানো হয়েছিল, তার ধর্মীয় বিশ্বাস অফিসের অন্য সহকর্মীদের মধ্যে অস্বস্তির সৃষ্টি করছে।

পদচ্যুতির প্রায় দুই বছর পর রোববার সানডে টাইমসকে এক সাক্ষাৎকারে এই বিস্ফোরক অভিযোগ করেন তিনি। এই অভিযোগের ফলে নতুন করে অস্বস্তিতে পড়েছে ক্ষমতাসীন টোরি সরকার। তবে নারী সংসদ-সদস্যের এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন দলের এক হুইপ। রয়টার্স।

৪৯ বছর বয়সি নুসরাত ব্রিটেনের ইতিহাসে প্রথম মুসলিম নারী মন্ত্রী ছিলেন। ২০১৮ সালে তাকে পরিবহণ মন্ত্রণালয়ের জুনিয়র মন্ত্রী করা হয়।

কিন্তু ২০২০ সালের ফেব্রুয়ারিতে প্রশাসনের একটি ছোট রদবদলের সময় তাকে পদচ্যুত করা হয়। সানডে টাইমসকে নুসরাত বলেন, বরখাস্তের পর পার্লামেন্টের এক হুইপ তাকে জানিয়েছিলেন-তার মুসলিম পরিচয়ই মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব থেকে তাকে সরিয়ে দেওয়ার প্রধান কারণ।

তিনি আরও বলেন, আমি এটি বলব না যে, এটি (মন্ত্রিত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়া) দলের প্রতি আমার বিশ্বাসকে নাড়া দেয়নি। এমনকি দলের এমন আচরণে আমি এমপি হিসাবে আমার দায়িত্ব চালিয়ে যাব কি-না, সেটিও একসময় বিবেচনা করতে বাধ্য হই।

করোনাভাইরাস মহামারির মধ্যে অতিথিদের নিয়ে পার্টির আয়োজন করায় ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েছেন প্রধানমন্ত্রী বরিস। ওই ঘটনার জেরে তার পদত্যাগের দাবি তুলেছেন বিরোধীরা।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন