৪ দিনের উৎসবে সরকারের ঘরে ঢুকবে ৩০০ কোটি পাউন্ড
jugantor
রানির প্লাটিনাম জয়ন্তী
৪ দিনের উৎসবে সরকারের ঘরে ঢুকবে ৩০০ কোটি পাউন্ড

  যুগান্তর ডেস্ক  

২৯ মে ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ব্রিটেনের রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ। ব্রিটেন, নিউজিল্যান্ড, কানাডা ও কয়েকটি দ্বীপদেশ মিলে মোট ১৬ দেশের রানি। ১৯৫২ সালের ৬ ফেব্রুয়ারি মাথায় নিয়েছিলেন ব্রিটিশ রানির মুকুট। এ বছর পালিত হচ্ছে তার সিংহাসনে আরোহণের ৭০ বছর পূর্তি-প্লাটিনাম জয়ন্তী। এ উপলক্ষ্যে ২ থেকে ৫ জুন, চার দিনব্যাপী আনন্দে মাতোয়ারা হবে পুরো ব্রিটেন। ৪০ বছরের রেকর্ড মুদ্রাস্ফীতির খাড়ায় ভূগলেও রানির প্রতি সম্মান ও ভালোবাসা দেখাতে পিছপা হচ্ছেন না ব্রিটিশরা। টাকা উড়াবেন পানীয়ের বার আর পর্যটনে। ধারণা করা হচ্ছে চার দিনের সম্মিলিত ব্যাংক হলিডেতে সরকারের ঘরে ঢুকবে ৩০০ কোটি পাউন্ড। বিবিসি। রানির মুকুট মাথায় নেওয়ার প্লাটিনাম জয়ন্তীর অনুষ্ঠানমালার পরিকল্পনা ১০ জানুয়ারি ঘোষণা করেছিল বাকিংহাম প্যালেস। সে সময় বলা হয়েছিল, ব্রিটেনে অতিরিক্ত ব্যাংক-হলিডে থাকবে। আরও ব্যাংক-হলিডে স্থানান্তর করে এনে চার দিনের ছুটি জমানো হবে। সব মিলিয়ে এই চার দিনের ছুটি শুরু হচ্ছে বৃহস্পতিবার থেকে। এদিন থেকেই বারে, পিকনিকে, কিংবা দূরে কোথাও বেড়াতে গিয়ে আনন্দে মাতোয়ারা হবেন রানিভক্তরা। ব্রিটিশ সরকার এটির নাম দিয়েছে ‘এক প্রজন্মের একটি শো’। শিল্প ও প্রযুক্তির সমন্বয়ে জাতীয়ভাবে উদযাপন করা হবে এ উৎসব। অস্ট্রেলিয়া, কানাডা, কেম্যান আইল্যান্ডস, নিউজিল্যান্ড এবং পাপুয়া নিউ গিনিসহ অন্যান্য কমনওয়েলথ দেশ ও সরকারগুলো এ প্লাটিনাম জুবিলি উদযাপনের ঘোষণা দিয়েছিল।

জীবনযাত্রার সংকট আপাতত দূরে থাকুক। এ মুহূর্তে ব্রিটেনবাসীর কাছে মুখ্য চার দিনের ছুটিতে ‘ফিল গুড ফ্যাক্টর’। তবে লাভবান হবে সরকারই। কারণ, এ উদযাপনের সময়ে খুচরো বাজারে পাবগুলোর বাজার থাকবে সরগরম। ব্রিটিশ বিয়ার অ্যান্ড পাব অ্যাসোসিয়েশন জানিয়েছে, চার দিনে পাববাণিজ্যে অন্তর্ভুক্ত হবে ১০৫ মিলিয়ন পাউন্ড। সাধারণ ব্যাংক ছুটির তুলনায় পাবগুলোতে এ সময় বিক্রি বাড়বে ৫০ শতাংশ বেশি। সোমবার থেকে স্থানীয় ব্রিউয়ারি গ্রিন কিং তাদের ৪০৮টি দোকানে গ্রাহকদের কাছে প্রতিটি পিন্ট (বিশেষ মদ) বিক্রি করছে (১৯৫২ সালের দামে) মাত্র ৬ পাউন্ডে। লাখ লাখ লোক বৃহস্পতিবার থেকে রোববার পর্যন্ত রাস্তার পার্টিসহ অন্যান্য ইভেন্টগুলোতে মাতোয়ারা হবে। অন্যান্য ফাস্টফুড খরচের হিসাব আপাতত অনুল্লেখ থাকুক।

রানির প্লাটিনাম জয়ন্তী

৪ দিনের উৎসবে সরকারের ঘরে ঢুকবে ৩০০ কোটি পাউন্ড

 যুগান্তর ডেস্ক 
২৯ মে ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ব্রিটেনের রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ। ব্রিটেন, নিউজিল্যান্ড, কানাডা ও কয়েকটি দ্বীপদেশ মিলে মোট ১৬ দেশের রানি। ১৯৫২ সালের ৬ ফেব্রুয়ারি মাথায় নিয়েছিলেন ব্রিটিশ রানির মুকুট। এ বছর পালিত হচ্ছে তার সিংহাসনে আরোহণের ৭০ বছর পূর্তি-প্লাটিনাম জয়ন্তী। এ উপলক্ষ্যে ২ থেকে ৫ জুন, চার দিনব্যাপী আনন্দে মাতোয়ারা হবে পুরো ব্রিটেন। ৪০ বছরের রেকর্ড মুদ্রাস্ফীতির খাড়ায় ভূগলেও রানির প্রতি সম্মান ও ভালোবাসা দেখাতে পিছপা হচ্ছেন না ব্রিটিশরা। টাকা উড়াবেন পানীয়ের বার আর পর্যটনে। ধারণা করা হচ্ছে চার দিনের সম্মিলিত ব্যাংক হলিডেতে সরকারের ঘরে ঢুকবে ৩০০ কোটি পাউন্ড। বিবিসি। রানির মুকুট মাথায় নেওয়ার প্লাটিনাম জয়ন্তীর অনুষ্ঠানমালার পরিকল্পনা ১০ জানুয়ারি ঘোষণা করেছিল বাকিংহাম প্যালেস। সে সময় বলা হয়েছিল, ব্রিটেনে অতিরিক্ত ব্যাংক-হলিডে থাকবে। আরও ব্যাংক-হলিডে স্থানান্তর করে এনে চার দিনের ছুটি জমানো হবে। সব মিলিয়ে এই চার দিনের ছুটি শুরু হচ্ছে বৃহস্পতিবার থেকে। এদিন থেকেই বারে, পিকনিকে, কিংবা দূরে কোথাও বেড়াতে গিয়ে আনন্দে মাতোয়ারা হবেন রানিভক্তরা। ব্রিটিশ সরকার এটির নাম দিয়েছে ‘এক প্রজন্মের একটি শো’। শিল্প ও প্রযুক্তির সমন্বয়ে জাতীয়ভাবে উদযাপন করা হবে এ উৎসব। অস্ট্রেলিয়া, কানাডা, কেম্যান আইল্যান্ডস, নিউজিল্যান্ড এবং পাপুয়া নিউ গিনিসহ অন্যান্য কমনওয়েলথ দেশ ও সরকারগুলো এ প্লাটিনাম জুবিলি উদযাপনের ঘোষণা দিয়েছিল।

জীবনযাত্রার সংকট আপাতত দূরে থাকুক। এ মুহূর্তে ব্রিটেনবাসীর কাছে মুখ্য চার দিনের ছুটিতে ‘ফিল গুড ফ্যাক্টর’। তবে লাভবান হবে সরকারই। কারণ, এ উদযাপনের সময়ে খুচরো বাজারে পাবগুলোর বাজার থাকবে সরগরম। ব্রিটিশ বিয়ার অ্যান্ড পাব অ্যাসোসিয়েশন জানিয়েছে, চার দিনে পাববাণিজ্যে অন্তর্ভুক্ত হবে ১০৫ মিলিয়ন পাউন্ড। সাধারণ ব্যাংক ছুটির তুলনায় পাবগুলোতে এ সময় বিক্রি বাড়বে ৫০ শতাংশ বেশি। সোমবার থেকে স্থানীয় ব্রিউয়ারি গ্রিন কিং তাদের ৪০৮টি দোকানে গ্রাহকদের কাছে প্রতিটি পিন্ট (বিশেষ মদ) বিক্রি করছে (১৯৫২ সালের দামে) মাত্র ৬ পাউন্ডে। লাখ লাখ লোক বৃহস্পতিবার থেকে রোববার পর্যন্ত রাস্তার পার্টিসহ অন্যান্য ইভেন্টগুলোতে মাতোয়ারা হবে। অন্যান্য ফাস্টফুড খরচের হিসাব আপাতত অনুল্লেখ থাকুক।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন