রোহিঙ্গাদের জমি ইজারা দিচ্ছে মিয়ানমার

প্রকাশ : ০৩ জুন ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

  যুগান্তর ডেস্ক

ফাইল ফটো

রোহিঙ্গাদের ফেলে আসা আবাদি জমি ইজারা দিচ্ছে মিয়ানমার সরকার। মিয়ানমারের ইরাবতী পত্রিকা এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে। প্রতিবেদনে বলা হয়, রাখাইনে রোহিঙ্গাদের ফেলে আসা ৭০ হাজার একর জমির মধ্যে ১০ হাজার একর জমি একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানকে লিজ দিয়েছে মিয়ানমার সরকার। তারা জানাচ্ছে বাকিগুলোও লিজ দেয়া হবে। খবর ইরাবতীর।

গেল বছরের আগস্টে সেনা অভিযানের মুখে ভিটামাটি ফেলে বাংলাদেশে পালিয়ে আসেন প্রায় সাত লাখ রোহিঙ্গা। আর এ কারণে এত বিপুল পরিমাণ অনাবাদি রয়েছে। আর লোকবলের অভাবে জমি চাষাবাদও করতে পারছে না রাজ্য সরকার। এদিকে বেসরকারি প্রতিষ্ঠানকে ১০ হাজার একর জমি লিজ দেয়ার কথা অস্বীকার করেছেন রাখাইনের কৃষি, খনন ও বনায়নবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী উ কিয়াও লিন। তিনি বলেছেন, আমরা এখন কেন্দ্রীয় সরকারের নির্দেশনার অপেক্ষায় আছি। তারা যা নির্দেশ দেবে আমরা তেমনটাই করব। ৭০ হাজার একর জমিতে কাজ করার জন্য পর্যাপ্ত লোকবল নেই আমাদের। তিনি আরও বলেন, যেসব রোহিঙ্গা পালিয়ে যায়নি, তারা নিজেদের জমিতেই চাষাবাদ করতে পারবে।

অন্যদিকে রাখাইন রাজ্যের আইনপ্রণেতা উ মং ওন বলেছেন, পরিত্যক্ত ফসলি জমিগুলো স্থানীয় কৃষকদের মাঝে ইজারা দেয়া উচিত। তিনি বলেন, জমিগুলো ফেলে রাখা ঠিক হচ্ছে না। স্থানীয় জনগণ ও ভূমিহীন কৃষকদের এই জমি চাষের অনুমতি দেয়া যেতে পারে। কিংবা কোনো বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কাছেও ইজারা দেয়া যেতে পারে। উল্লেখ্য, রাখাইন রাজ্য সরকারের তথ্য অনুযায়ী সেখানে মোট ১ কোটি ১০ লাখ একর ধানি জমি রয়েছে। এর মধ্যে ৭৪ হাজার মংডুতে, ৭৭ হাজার বুথিয়াডংয়ে ও ৮৮ হাজার রথেডংয়ে।