মার্কিন নারীদের গর্ভপাতের অধিকার বাতিল
jugantor
সুপ্রিমকোর্টের রায়
মার্কিন নারীদের গর্ভপাতের অধিকার বাতিল

  যুগান্তর ডেস্ক  

২৬ জুন ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

চাইলেই আর গর্ভপাত করতে পারবেন না যুক্তরাষ্ট্রের নারীরা। সুপ্রিমকোর্ট নারীদের গর্ভপাতের সাংবিধানিক অধিকার বাতিল করেছে। শুক্রবার দেশটির সর্বোচ্চ আদালত এ রায় ঘোষণার পর বেশ কিছু রাজ্যে গর্ভপাত ক্লিনিকগুলো বন্ধ করে দেওয়া শুরু করেছে। রায়ে বলা হয়, গর্ভপাতের অধিকার সংবিধানের আওতায় থাকতে পারে না এবং গর্ভপাত নিয়ন্ত্রণের অধিকার অবশ্যই মানুষের এবং নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের হাতে ন্যস্ত করা উচিত।’ এএফপি।

রায় ঘোষণার পর থেকেই বিক্ষোভে নেমেছেন নারীরা। নিউইয়র্ক, ওয়াশিংটন, টেক্সাস, জর্জিয়াসহ দেশটির প্রায় সব রাজ্যেই শুরু হয়েছে বিক্ষোভ। বিক্ষোভকারীরা বলেন, আমরা এ রায় বাতিল চাই। কেননা এখন থেকে দেশটির আর কোনো নারী গর্ভপাতের ক্ষেত্রে আইনি সুরক্ষা পাবেন না। আইন বাতিল হওয়াকে ‘ঈশ্বরই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন’ বলে মন্তব্য করেছেন দেশটির সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ফক্স নিউজকে দেওয়া প্রতিক্রিয়ায় দেশটির সাবেক প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘সংবিধান মেনেই এটা হচ্ছে। অধিকার ফিরিয়ে দেওয়া হচ্ছে, যা তাদের আরও অনেক আগেই ফিরিয়ে দেওয়া উচিত ছিল।’ রাজনীতিবিষয়ক সংবাদমাধ্যম পলিটিকোর ফাঁস করা এক নথিতে গত মাসের শুরুর দিকেই ঐতিহাসিক গর্ভপাত অধিকার আইন বাতিল হতে পারে বলে আভাস পাওয়া যায়। ১৯৭৩ সালে যুক্তরাষ্ট্রের সুপ্রিমকোর্টের ‘রো বনাম ওয়েড’ নামের ঐতিহাসিক রায়ে মার্কিন নারীদের গর্ভপাতে বৈধতা দেওয়া হয়েছিল।

সুপ্রিমকোর্টের রায়

মার্কিন নারীদের গর্ভপাতের অধিকার বাতিল

 যুগান্তর ডেস্ক 
২৬ জুন ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

চাইলেই আর গর্ভপাত করতে পারবেন না যুক্তরাষ্ট্রের নারীরা। সুপ্রিমকোর্ট নারীদের গর্ভপাতের সাংবিধানিক অধিকার বাতিল করেছে। শুক্রবার দেশটির সর্বোচ্চ আদালত এ রায় ঘোষণার পর বেশ কিছু রাজ্যে গর্ভপাত ক্লিনিকগুলো বন্ধ করে দেওয়া শুরু করেছে। রায়ে বলা হয়, গর্ভপাতের অধিকার সংবিধানের আওতায় থাকতে পারে না এবং গর্ভপাত নিয়ন্ত্রণের অধিকার অবশ্যই মানুষের এবং নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের হাতে ন্যস্ত করা উচিত।’ এএফপি।

রায় ঘোষণার পর থেকেই বিক্ষোভে নেমেছেন নারীরা। নিউইয়র্ক, ওয়াশিংটন, টেক্সাস, জর্জিয়াসহ দেশটির প্রায় সব রাজ্যেই শুরু হয়েছে বিক্ষোভ। বিক্ষোভকারীরা বলেন, আমরা এ রায় বাতিল চাই। কেননা এখন থেকে দেশটির আর কোনো নারী গর্ভপাতের ক্ষেত্রে আইনি সুরক্ষা পাবেন না। আইন বাতিল হওয়াকে ‘ঈশ্বরই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন’ বলে মন্তব্য করেছেন দেশটির সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ফক্স নিউজকে দেওয়া প্রতিক্রিয়ায় দেশটির সাবেক প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘সংবিধান মেনেই এটা হচ্ছে। অধিকার ফিরিয়ে দেওয়া হচ্ছে, যা তাদের আরও অনেক আগেই ফিরিয়ে দেওয়া উচিত ছিল।’ রাজনীতিবিষয়ক সংবাদমাধ্যম পলিটিকোর ফাঁস করা এক নথিতে গত মাসের শুরুর দিকেই ঐতিহাসিক গর্ভপাত অধিকার আইন বাতিল হতে পারে বলে আভাস পাওয়া যায়। ১৯৭৩ সালে যুক্তরাষ্ট্রের সুপ্রিমকোর্টের ‘রো বনাম ওয়েড’ নামের ঐতিহাসিক রায়ে মার্কিন নারীদের গর্ভপাতে বৈধতা দেওয়া হয়েছিল।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন