বানভাসি আসামে ভেলায় দোকান
jugantor
ছোট খবর
বানভাসি আসামে ভেলায় দোকান

   

৩০ জুন ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

প্রবল বন্যা আসামের মানুষের জীবনকে দুর্বিষহ করে তুলেছে। দিন দিন নতুন নতুন চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন হচ্ছেন বানভাসী মানুষগুলো। এরমধ্যেও সৃজনশীলতার প্রমাণ দিয়ে অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখার চেষ্টা করছেন মানুষগুলো। তেমনই একজন ধনেশ্বর দাস। কলাগাছের ভেলায় সাজিয়েছেন অতি প্রয়োজনীয় কিছু পণ্যের সমাহার। ভেসে ভেসে রুকিমনি গোয়ানের বন্যাকবলিত আটকে পড়া মানুষগুলোর দ্বারে দ্বারে গিয়ে বিক্রি করছেন পান, সুপারি, দেশলাই বক্স আর মোমবাতির মতো কিছু সামগ্রী। কলাগাছের ওপর রঙিন ছাতার তলায় দাঁড়িয়ে সেবাকাজ চালিয়ে যাচ্ছেন ধনেশ্বর। দূর থেকে মনে হবে যেন এক ছোট্ট সাম্পান। ভেলার ওপর একটি প্লাস্টিকের ওপর সাজিয়েছেন তার পণ্যসামগ্রী। বানের জলে ভেসে আসা এক টুকরো বাঁশ দিয়ে বানিয়েছেন লগি। আর তা দিয়েই ঠেলে ঠেলে তিনি ভেলা নিয়ে ঘুরছেন এ বাড়ি ও বাড়ি। কেউ কেউ তাকে বলছেন, স্বল্প সময়ের ব্যবসায়ী। আবার কেউ কেউ বলছেন, প্রয়োজন মেটানোর জনক। ধনেশ্বরের এই দারুণ সেবাকাজ নিয়ে ১৪ সেকেন্ডের একটি ভিডিও পোস্ট করে স্থানীয় একজন সাংবাদিক লিখেছেন, ‘বন্যার কারণে এক সপ্তাহের জন্য বন্ধ হয়ে গেছে ব্যবসা। উপায়ন্তর না দেখে ভাসমান দোকান সাজিয়েছেন ৩৫ বছর বয়সি দোকানি।’ বর্তমানে রাজ্যের ৩৩টি জেলা জুড়ে প্রায় ৪৫ লাখ মানুষ ঠাঁই নিয়েছেন ক্ষতিগ্রস্তের তালিকায়।

ছোট খবর

বানভাসি আসামে ভেলায় দোকান

  
৩০ জুন ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

প্রবল বন্যা আসামের মানুষের জীবনকে দুর্বিষহ করে তুলেছে। দিন দিন নতুন নতুন চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন হচ্ছেন বানভাসী মানুষগুলো। এরমধ্যেও সৃজনশীলতার প্রমাণ দিয়ে অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখার চেষ্টা করছেন মানুষগুলো। তেমনই একজন ধনেশ্বর দাস। কলাগাছের ভেলায় সাজিয়েছেন অতি প্রয়োজনীয় কিছু পণ্যের সমাহার। ভেসে ভেসে রুকিমনি গোয়ানের বন্যাকবলিত আটকে পড়া মানুষগুলোর দ্বারে দ্বারে গিয়ে বিক্রি করছেন পান, সুপারি, দেশলাই বক্স আর মোমবাতির মতো কিছু সামগ্রী। কলাগাছের ওপর রঙিন ছাতার তলায় দাঁড়িয়ে সেবাকাজ চালিয়ে যাচ্ছেন ধনেশ্বর। দূর থেকে মনে হবে যেন এক ছোট্ট সাম্পান। ভেলার ওপর একটি প্লাস্টিকের ওপর সাজিয়েছেন তার পণ্যসামগ্রী। বানের জলে ভেসে আসা এক টুকরো বাঁশ দিয়ে বানিয়েছেন লগি। আর তা দিয়েই ঠেলে ঠেলে তিনি ভেলা নিয়ে ঘুরছেন এ বাড়ি ও বাড়ি। কেউ কেউ তাকে বলছেন, স্বল্প সময়ের ব্যবসায়ী। আবার কেউ কেউ বলছেন, প্রয়োজন মেটানোর জনক। ধনেশ্বরের এই দারুণ সেবাকাজ নিয়ে ১৪ সেকেন্ডের একটি ভিডিও পোস্ট করে স্থানীয় একজন সাংবাদিক লিখেছেন, ‘বন্যার কারণে এক সপ্তাহের জন্য বন্ধ হয়ে গেছে ব্যবসা। উপায়ন্তর না দেখে ভাসমান দোকান সাজিয়েছেন ৩৫ বছর বয়সি দোকানি।’ বর্তমানে রাজ্যের ৩৩টি জেলা জুড়ে প্রায় ৪৫ লাখ মানুষ ঠাঁই নিয়েছেন ক্ষতিগ্রস্তের তালিকায়।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন