সপরিবারে যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি জমানোর চেষ্টায় গোতাবায়া
jugantor
গ্রিন কার্ডের অপেক্ষা
সপরিবারে যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি জমানোর চেষ্টায় গোতাবায়া

  যুগান্তর ডেস্ক  

১৯ আগস্ট ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

মালদ্বীপ, সিঙ্গাপুর, থাইল্যান্ড হয়তো আবার শ্রীলংকা-যেদিকেই যান না কেন, ভেতরে ভেতরে শেষ গন্তব্য যুক্তরাষ্ট্র। দেশ থেকে পালিয়ে যাওয়া শ্রীলংকার সাবেক প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া রাজাপাকসের ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা নাকি এমনই। দ্বীপরাষ্ট্রের শীর্ষস্থানীয় ডেইলি মিররের এক প্রতিবেদনে বৃহস্পতিবার চাঞ্চল্যকর এ তথ্য উঠে এসেছে।

খবরে বলা হয়েছে, নিজ দেশের জল ঘোলা করে এদেশ ওদেশ ঘুরে অবশেষে ছেলে আর নিজের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের গ্রিন কার্ডের আবেদন করেছেন তিনি। স্ত্রী ইয়োমা রাজাপাকসে মার্কিন নাগরিক। সে সুবাদে যুক্তরাষ্ট্রে আশ্রয়ের শেষ সুযোগটি লুফে নিতে চাচ্ছেন দেশটির একসময়ের চৌকস সেনানায়ক ও সাবেক প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া। ইতোমধ্যেই যুক্তরাষ্ট্রে থাকা তার আইনজীবীরা সব ধরনের কার্যক্রম শুরু করেছেন। গত মাসেই আবেদন করেছেন গ্রিন কার্ডের জন্য। স্ত্রীর মার্কিন নাগরিকত্বের সুবাদে তিনি এই আবেদন করার যোগ্য বলে বিবেচিত হয়েছেন।

খবরে আরও জানানো হয়, শ্রীলংকায়ও তার আইনজীবীরা কার্যপ্রণালি অনুসরণ করে এগিয়ে যাচ্ছে। বর্তমানে থাইল্যান্ডের একটি হোটেলে অবস্থান করছেন গোতাবায়া। সঙ্গে আছেন স্ত্রী ইয়োমাও। প্রথমে তাদের পরিকল্পনা ছিল আগামী নভেম্বর পর্যন্ত থাইল্যান্ডে থাকবেন। তবে এখন আগামী ২৫ আগস্ট শ্রীলংকায় ফেরার কথা ভাবছেন। থাইল্যান্ডে নিরাপত্তাজনিত কারণে তিনি স্বাধীনভাবে চলাফেরা করতে পারছেন না। ব্যাংকক পৌঁছানোর পর থাই পুলিশ তাকে হোটেলের মধ্যেই থাকার পরামর্শ দিয়েছে।

থাইল্যান্ডে যে হোটেলে রয়েছেন গোতাবায়া তার অবস্থান গোপন রয়েছে। সেখানে সাদা পোশাকে টহল দিচ্ছে থাইল্যান্ডের নিরাপত্তা বাহিনীর স্পেশাল ব্রাঞ্চের সদস্যরা। তার ওপর যাতে কোনো হামলা না হয় তা নিশ্চিতে কোনো ঘাটতি রাখছে না দেশটির সরকার। শুধু থাইল্যান্ড নয় , শ্রীলংকায় ফেরার পর তার ওপর হামলার ঝুঁকি আরও বেড়ে যাবে। তাই তাকে সর্বোচ্চ নিরাপত্তাসম্পন্ন রাষ্ট্রীয় ভবন দেওয়ার বিষয়ে আলোচনা করছে শ্রীলংকার মন্ত্রিসভাও।

গ্রিন কার্ডের অপেক্ষা

সপরিবারে যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি জমানোর চেষ্টায় গোতাবায়া

 যুগান্তর ডেস্ক 
১৯ আগস্ট ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

মালদ্বীপ, সিঙ্গাপুর, থাইল্যান্ড হয়তো আবার শ্রীলংকা-যেদিকেই যান না কেন, ভেতরে ভেতরে শেষ গন্তব্য যুক্তরাষ্ট্র। দেশ থেকে পালিয়ে যাওয়া শ্রীলংকার সাবেক প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া রাজাপাকসের ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা নাকি এমনই। দ্বীপরাষ্ট্রের শীর্ষস্থানীয় ডেইলি মিররের এক প্রতিবেদনে বৃহস্পতিবার চাঞ্চল্যকর এ তথ্য উঠে এসেছে।

খবরে বলা হয়েছে, নিজ দেশের জল ঘোলা করে এদেশ ওদেশ ঘুরে অবশেষে ছেলে আর নিজের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের গ্রিন কার্ডের আবেদন করেছেন তিনি। স্ত্রী ইয়োমা রাজাপাকসে মার্কিন নাগরিক। সে সুবাদে যুক্তরাষ্ট্রে আশ্রয়ের শেষ সুযোগটি লুফে নিতে চাচ্ছেন দেশটির একসময়ের চৌকস সেনানায়ক ও সাবেক প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া। ইতোমধ্যেই যুক্তরাষ্ট্রে থাকা তার আইনজীবীরা সব ধরনের কার্যক্রম শুরু করেছেন। গত মাসেই আবেদন করেছেন গ্রিন কার্ডের জন্য। স্ত্রীর মার্কিন নাগরিকত্বের সুবাদে তিনি এই আবেদন করার যোগ্য বলে বিবেচিত হয়েছেন।

খবরে আরও জানানো হয়, শ্রীলংকায়ও তার আইনজীবীরা কার্যপ্রণালি অনুসরণ করে এগিয়ে যাচ্ছে। বর্তমানে থাইল্যান্ডের একটি হোটেলে অবস্থান করছেন গোতাবায়া। সঙ্গে আছেন স্ত্রী ইয়োমাও। প্রথমে তাদের পরিকল্পনা ছিল আগামী নভেম্বর পর্যন্ত থাইল্যান্ডে থাকবেন। তবে এখন আগামী ২৫ আগস্ট শ্রীলংকায় ফেরার কথা ভাবছেন। থাইল্যান্ডে নিরাপত্তাজনিত কারণে তিনি স্বাধীনভাবে চলাফেরা করতে পারছেন না। ব্যাংকক পৌঁছানোর পর থাই পুলিশ তাকে হোটেলের মধ্যেই থাকার পরামর্শ দিয়েছে।

থাইল্যান্ডে যে হোটেলে রয়েছেন গোতাবায়া তার অবস্থান গোপন রয়েছে। সেখানে সাদা পোশাকে টহল দিচ্ছে থাইল্যান্ডের নিরাপত্তা বাহিনীর স্পেশাল ব্রাঞ্চের সদস্যরা। তার ওপর যাতে কোনো হামলা না হয় তা নিশ্চিতে কোনো ঘাটতি রাখছে না দেশটির সরকার। শুধু থাইল্যান্ড নয় , শ্রীলংকায় ফেরার পর তার ওপর হামলার ঝুঁকি আরও বেড়ে যাবে। তাই তাকে সর্বোচ্চ নিরাপত্তাসম্পন্ন রাষ্ট্রীয় ভবন দেওয়ার বিষয়ে আলোচনা করছে শ্রীলংকার মন্ত্রিসভাও।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন