তিউনিসিয়ায় রাতে পানি সরবরাহ বন্ধ
jugantor
তিউনিসিয়ায় রাতে পানি সরবরাহ বন্ধ

   

০২ এপ্রিল ২০২৩, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ভয়াবহ খরার মুখোমুখি উত্তর আফ্রিকার দেশ তিউনিসিয়া। এরই মধ্যে পানি সংকট থেকে পরিত্রাণের আশায় ৬ ঘণ্টা পানি সরবরাহ বন্ধ থাকবে দেশটিতে। শুক্রবার এক বিবৃতিতে এই তথ্য জানায় তিউনিসিয়ার পানি সরবরাহকারী সংস্থা সেনেডে। পাবলিক ওয়াটার কোম্পানি সেনেডের প্রধান মোসবাহ হেলালি রেডিও স্টেশন মোসাইক এফএমকে জানান, পানি সরবরাহ রাত ৯টা থেকে ৩টা পর্যন্ত বন্ধ থাকবে। পানি সরবরাহ বন্ধ থাকা ছাড়াও ট্যাপকলসহ অন্যান্য পানি ব্যবহারে ক্ষেত্রগুলোতে কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। কোনো কৃষিজমি, সবুজ স্থান সেচ অথবা জনসমাগমস্থল বা গাড়ি পরিষ্কারের জন্য পানীয় জল ব্যবহারে নিষিধাজ্ঞা জারি করেছে দেশটির কৃষি মন্ত্রণালয়। দীর্ঘদিনের খরা ও জলাধারগুলোতে পানির কম প্রবাহ দেশের পানির মজুতকে প্রভাবিত করায় এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানানো হয়। এমনকি নিয়ম ভঙ্গকারীদের জন্য রয়েছে জরিমানা এমনকি কারাদণ্ডের ব্যবস্থা। দেশের প্রধান জলাধারগুলোর কোনোটিরই এক-তৃতীয়াংশের বেশি পূর্ণ নয়। কিছু কিছু জলাধারে পানির পরিমাণ ১৫ শতাংশেরও কম। আর এতে হুমকির মুখে তিউনিসিয়ার কৃষি খাত। তিউনিসিয়ার মোট দেশজ উৎপাদনের ১০ শতাংসই আসে এই কৃষি খাত থেকে।

তিউনিসিয়ায় রাতে পানি সরবরাহ বন্ধ

  
০২ এপ্রিল ২০২৩, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ভয়াবহ খরার মুখোমুখি উত্তর আফ্রিকার দেশ তিউনিসিয়া। এরই মধ্যে পানি সংকট থেকে পরিত্রাণের আশায় ৬ ঘণ্টা পানি সরবরাহ বন্ধ থাকবে দেশটিতে। শুক্রবার এক বিবৃতিতে এই তথ্য জানায় তিউনিসিয়ার পানি সরবরাহকারী সংস্থা সেনেডে। পাবলিক ওয়াটার কোম্পানি সেনেডের প্রধান মোসবাহ হেলালি রেডিও স্টেশন মোসাইক এফএমকে জানান, পানি সরবরাহ রাত ৯টা থেকে ৩টা পর্যন্ত বন্ধ থাকবে। পানি সরবরাহ বন্ধ থাকা ছাড়াও ট্যাপকলসহ অন্যান্য পানি ব্যবহারে ক্ষেত্রগুলোতে কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। কোনো কৃষিজমি, সবুজ স্থান সেচ অথবা জনসমাগমস্থল বা গাড়ি পরিষ্কারের জন্য পানীয় জল ব্যবহারে নিষিধাজ্ঞা জারি করেছে দেশটির কৃষি মন্ত্রণালয়। দীর্ঘদিনের খরা ও জলাধারগুলোতে পানির কম প্রবাহ দেশের পানির মজুতকে প্রভাবিত করায় এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানানো হয়। এমনকি নিয়ম ভঙ্গকারীদের জন্য রয়েছে জরিমানা এমনকি কারাদণ্ডের ব্যবস্থা। দেশের প্রধান জলাধারগুলোর কোনোটিরই এক-তৃতীয়াংশের বেশি পূর্ণ নয়। কিছু কিছু জলাধারে পানির পরিমাণ ১৫ শতাংশেরও কম। আর এতে হুমকির মুখে তিউনিসিয়ার কৃষি খাত। তিউনিসিয়ার মোট দেশজ উৎপাদনের ১০ শতাংসই আসে এই কৃষি খাত থেকে।

 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন