রোহিঙ্গা হত্যার দায় স্বীকার ইতিবাচক : সু চি

  যুগান্তর ডেস্ক ১৪ জানুয়ারি ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

মিয়ানমারের নেত্রী অং সান সু চি বলেছেন, মিয়ানমারের সেনাবাহিনী দেশে রোহিঙ্গা হত্যার যে দায় স্বীকার করেছে তা ইতিবাচক। শুক্রবার রাজধানী নেপিদোতে জাপানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী তারা কোনোর সঙ্গে এক যৌথ সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ মন্তব্য করেন। গত আগস্ট মাস থেকে অস্বীকার করে এলেও বুধবার দেশটির সেনাবাহিনী এক বিবৃতিতে জানায়, ‘মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর চার সদস্য ও স্থানীয় বৌদ্ধরা রাখাইনের উত্তরের ইন ডিন গ্রামে যে ১০ জনের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে তার সঙ্গে জড়িত। সেনাবাহিনী সেপ্টেম্বরের শুরুর দিকে রোহিঙ্গা মুসলিমদের হত্যার জন্য স্থানীয়দের উৎসাহ ও সাহায্য করেছিল।’ এরকম স্বীকারোক্তি দেশটির সেন বাহিনীর ক্ষেত্রে বিরল একটি ঘটনা। গ্লোবাল নিউ লাইটস অব মিয়ানমারের বরাত দিয়ে এএফপি এ খবর জানিয়েছে।

অং সান সু চি বলেন, ‘সেখানে যা হয়েছিল এটা তারই অনুসন্ধান রিপোর্ট। তবে এটা রিপোর্ট অনুযায়ী বাস্তবায়ন করতে হবে। যাতে এ ধরনের ঘটনার আর কখনও পুনরাবৃত্তি না হয়।’ সু চি তার ফেসবুক পেজে লিখেছেন, ‘এটা আমাদের দেশের জন্য নতুন একটি পদক্ষেপ। কারণ আমি মনে করি, দেশের আইনের শাসনের জন্য কোনো কিছুর দায় নেয়া অত্যন্ত জরুরি। ফলে এ দায় নেয়াটা সেটার জন্য প্রথম ধাপ এবং আমি মনে করি এটা অত্যন্ত ইতিবাচক।’ জাপানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী তারা কোনো বলেন, ‘জাপান আন্তরিকভাবেই মিয়ানমারকে সাহায্য করতে চায়। একই সঙ্গে আমরা মিয়ানমারের প্রধান বৈদেশিক সাহায্যকারী দেশও। আর সেজন্যই দেশটিতে রোহিঙ্গাদের মানবিক চাহিদা পূরণের জন্য দুই কোটি মার্কিন ডলার দেয়ার বিষয়টি সংসদে পাস করা হয়েছে।’

সু চি সাধারণত গণমাধ্যমের সঙ্গে খুব কমই কথা বলেন। আবার কখনও যদি তিনি কথা বলেনও তাহলে রাখাইন রাজ্যের রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে তেমন কোনো কথা বলেন না। এছাড়া দেশটির সেনাবাহিনীর ওপর সরকারের কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। সেনাবাহিনীর স্বীকারোক্তিকে সু চি স্বাগত জানালেও গত আগস্ট থেকে আরও বিস্তৃত আকারে নৃশংসতার নিরপেক্ষ প্রমাণ রয়েছে বলে জানিয়েছে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল। সংস্থাটি ইনডিন হত্যাকাণ্ডকে সংক্ষেপে ‘সিন্ধুর বিন্দু’ বলে আখ্যায়িত করেছে।

 
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

 

gpstar

 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

E-mail: [email protected], [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter