ট্রাম্পষ্ণৃক রুহানির হুশিয়ারি

ইরান যুদ্ধ হবে সব যুদ্ধের মা

প্রকাশ : ২৩ জুলাই ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

  যুগান্তর ডেস্ক

ছবি: সংগৃহীত

তেহরানের বিরুদ্ধে ওয়াশিংটনের হঠকারী নীতির জেরে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে হুশিয়ারি দিয়েছেন ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি। ট্রাম্পকে সতর্ক করে হাসান রুহানি বলেন, ‘আমেরিকার জেনে রাখা উচিত, ইরানের সঙ্গে যুদ্ধ হলে সেটি হবে সব যুদ্ধের মা।

রোববার তেহরানে ইরানি কূটনীতিকদের এক সম্মেলনে তিনি এ হুশিয়ারি দিয়েছেন। দেশটির সরকারি বার্তা সংস্থা ইরনার বরাতে রয়টার্স এ খবর দিয়েছে।

২০১৫ সালে তেহরানের পরমাণু কর্মসূচি সীমিত করতে ছয় জাতিগোষ্ঠী ইরানের সঙ্গে চুক্তি করেছিল। গত জুনে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প এককভাবে চুক্তি থেকে যুক্তরাষ্ট্রকে প্রত্যাহার করে নেন। এতে ইরানের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের স্নায়ু যুদ্ধ সম্পর্ক বিরাজ করছে।

ট্রাম্প ইরানের বিরুদ্ধে শত্র“তাপূর্ণ নীতি অবলম্বন করছেন উল্লেখ করে রুহানি বলেন, জনাব ট্রাম্প, আপনি সিংহের লেজ নিয়ে খেলবেন না, এটি সে ফ দুঃখই বয়ে আনবে।’ ইরানি প্রেসিডেন্ট আরও বলেন, ‘আমেরিকার জানা উচিত যে ইরানের সঙ্গে শান্তি হচ্ছে সব শান্তির জননী এবং ইরানের সঙ্গে যুদ্ধ হচ্ছে সব যুদ্ধের মা।’

ওয়াশিংটন ইরান সরকারকে অচল করে দেয়ার চেষ্টা করছে বলেও অভিযোগ করেন রুহানি। তিনি বলেন, ‘ইরানি জাতিকে ইরানেরই নিরাপত্তা ও স্বার্থের বিরুদ্ধে উসকানি দেয়ার মতো পর্যায়ে আপনারা নেই।’

রয়টার্স মার্কিন কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে জানিয়েছে, ট্রাম্প প্রশাসন ইরানের জনগণকে ক্ষুব্ধ করে তুলতে আক্রমণাত্মক ও অনলাইন যোগাযোগ করছে। যাতে পরমাণু কর্মসূচি ও জঙ্গিদের সমর্থন প্রত্যাহারে বাধ্য হয় ইরান।

২০১৫ সালের জুনে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের ৫ সদস্য রাষ্ট্র যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স, রাশিয়া, চীন ও জার্মানি পরমাণু চুক্তিতে স্বাক্ষর করে। চুক্তি অনুযায়ী ইরান ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণ কার্যক্রম চালিয়ে গেলেও পরমাণু অস্ত্র তৈরি না করার প্রতিশ্রুতি দেয়। বিনিময়ে ইরানের ওপর আরোপিত অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করা হয়।

বেশ কিছু ইউরোপীয় কোম্পানিও ইরানের সঙ্গে ব্যবসা শুরু করে। ট্রাম্প সংস্কারের দাবি তুলে চুক্তি থেকে যুক্তরাষ্ট্রকে প্রত্যাহার করে নিয়েছেন। একই সঙ্গে তেহরানের বিরুদ্ধে অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা ফিরিয়ে আনার ঘোষণা দিয়েছেন।