আসামে বাঙালি ধরে গণপিটুনি

প্রকাশ : ০২ আগস্ট ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

  যুগান্তর ডেস্ক

ছবি: সংগৃহীত

বিজেপি সরকারের নতুন নাগরিক তালিকা প্রকাশের পরপরই ভয়ঙ্কর হয়ে উঠেছে আসাম। ভয়ে অন্য রাজ্যে পালাতে শুরু করেছে তালিকা থেকে বাদ পড়া বাঙালিরা। কিন্তু সেখানেও পার পাচ্ছে না তারা। ওতপেতে থাকা উগ্র-স্থানীয়রা আসাম-মেঘালয় সীমান্তে বাঙালিদের চিহ্নিত করে গণপিটুনি দিচ্ছে।

পর্যবেক্ষক ও বিশ্লেষকরা বলছেন, আসামজুড়ে একটা চাপ তৈরি করা হয়েছে। চাপের মধ্যে আর ভয়-শঙ্কায় এলাকা ছেড়ে পালাতে চেষ্টা করছে বাঙালিরা। কিন্তু সীমান্ত পার হতে গেলেই তাদের গণপিটুনি দেয়া হচ্ছে।

ফার্স্ট পোস্ট জানিয়েছে, আসামের সংসদ সদস্য সুস্মিতা দেব বুধবার ভারতের পার্লামেন্টে একই অভিযোগ করেছেন। তিনি বলেছেন, ইতিমধ্যে কয়েকজনকে ধরে গণপিটুনি দেয়া হয়েছে। তাদের কোনো নিরাপত্তা নেই। নাগরিক নিবন্ধন তালিকার খসড়া প্রকাশের পর থেকে তালিকায় নাম না থাকা অনেকেই পালিয়ে যাচ্ছেন মেঘালয়ে। সেখানেও তাদের চোখে চোখে রাখা হচ্ছে। বাঙালিদের নিরাপত্তার দাবিতে সংসদের ওয়েলেও নেমে আসেন রাজ্যের শিলচরের এ কংগ্রেস সংসদ সদস্য।

একদিকে তালিকা থেকে বাদ পড়াদের বাংলাদেশি হিসেবে অভিহিত করে রাজ্য থেকে বের করে দেয়ার হুমকি-ধমকি দেয়া অব্যাহত রেখেছেন বিজেপির নেতারা। অন্যদিকে পরিস্থিতি ঠাণ্ডা করারও চেষ্টা করছেন তারাই।

মঙ্গলবার তেলাঙ্গনা রাজ্যের বিজেপির বিধায়ক রাজা সিং বলেছেন, ‘রোহিঙ্গা ও বাংলাদেশি অবৈধ অভিবাসীরা যদি সম্মানের সঙ্গে ভারত ছেড়ে না যায় তাহলে তাদের গুলি করে নির্মূল করতে হবে। তাহলেই ভারত হবে নিরাপদ’। একই দিন বিজেপি সভাপতি দিল্লিতে এক সম্মেলনে বলেছেন, আসামে এনআরসি বাস্তবায়ন করা হবে শেষ ‘ফুল স্টপ’ পর্যন্ত।