স্নায়ুযুদ্ধের পর সর্ববৃহৎ সামরিক মহড়ায় রাশিয়া

  যুগান্তর ডেস্ক ২৯ আগস্ট ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

রুশ সামরিক মহড়া
ছবি: সংগৃহীত

চার দশকের মধ্যে সবচেয়ে বড় সামরিক মহড়ার আয়োজন করতে যাচ্ছে রাশিয়া। মঙ্গলবার রুশ প্রতিরক্ষামন্ত্রী সের্গেই শোইগু এ ঘোষণা দিয়েছেন। তিনি জানিয়েছেন, আগামী সেপ্টেম্বরে বড় ধরনের এ মহড়া অনুষ্ঠিত হবে। স্নায়ুযুদ্ধের পর সর্ববৃহৎ এ মহড়ায় প্রায় ৩ লাখ সেনা অংশগ্রহণ করবেন। খবর বিবিসির।

১৯৮১ সালে ন্যাটোর ওপর হামলা চালানোর প্রশিক্ষণ হিসেবে সোভিয়েত বাহিনী বিশাল সামরিক মহড়ার আয়োজন করেছিল। তার সঙ্গে তুলনা করে এই মহড়ার নাম দেয়া হয়েছে ভসটক-২০১৮। ন্যাটোর সঙ্গে উত্তেজনাকে কেন্দ্র করে রাশিয়া সামরিক প্রশিক্ষণ জোরদার করেছে।

২০১৪ সালে ইউক্রেনে রুশ সামরিক হস্তক্ষেপের কারণ পশ্চিমা দেশগুলো নিষেধাজ্ঞা জারি করে এবং রুশ সীমান্তে ন্যাটোর উপস্থিতি বাড়ানো হয়েছে। শোইগু বলেছেন, ‘ভসতক-২০১৮ সামরিক মহড়ায় ১১ সেপ্টেম্বর থেকে ১৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হবে।

এতে ৩৬ হাজার সাঁজোয়াযান এবং এক হাজারের বেশি যুদ্ধবিমান অংশ নেবে। প্যারাট্রুপস ও নর্দান ফ্লিট ন্যাভাল ফোর্সেসও মহড়ায় অংশ নেবে। রাশিয়ায় সশস্ত্রবাহিনীতে মোট ১০ লাখ সক্রিয় সেনা রয়েছে।

আর রিজার্ভে আছে ২৫ লাখের বেশি সেনা। এর আগে রাশিয়ার চেলিয়াবিনস্ক অঞ্চলের চেবারকুল শহরে ২২ আগস্ট থেকে শুরু হয়েছে সন্ত্রাসবিরোধী মেগা মহড়া। চলবে আগামী ২৯ আগস্ট পর্যন্ত।

সাংহাই কো-অপারেশন অর্গানাইজেশন (এসসিও) আয়োজিত এ মহড়ার লক্ষ্য হচ্ছে, সন্ত্রাসবাদ ও চরমপন্থার ক্রমবর্ধমান হুমকি মোকাবেলায় সদস্য দেশগুলোর মধ্যে সহযোগিতা বাড়ানো।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter