শেষ মুহূর্তে ঐক্যের চেষ্টা বিরোধীদের

পাকিস্তানে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন আজ

  যুগান্তর ডেস্ক ০৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

পাকিস্তানে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন আজ

পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন আজ (মঙ্গলবার)। এ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে শেষ মুহূর্তে ব্যাপক দৌড়ঝাঁপ করেছে বিরোধী দলগুলো। একক প্রার্থী নির্ধারণের চেষ্টায় এ দৌড়ঝাঁপ।

প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ক্ষমতাসীন দল পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফের (পিটিআই) প্রার্থী ড. আরিফ আলভি। আগে থেকেই পিটিআইকে চ্যালেঞ্জ জানাতে বিরোধী দলগুলোর মধ্যে একটি ঐক্য গড়ে তোলার চেষ্টা চলছিল।

তারা চাইছিল প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে সব বিরোধী দলের ঐকমত্যের ভিত্তিতে তাদের একক প্রার্থী থাকবে। কিন্তু তাতে ফাটল ধরে। ফলে পাকিস্তান পিপলস পার্টি (পিপিপি) তাদের প্রার্থী নির্ধারণ করে এজাজ আহসানকে।

সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের দল পাকিস্তান মুসলিম লীগ-নওয়াজ (পিএমএলএন) ভর করে জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের (জেইউআই-এফ) ওপর। এ দল থেকে প্রেসিডেন্ট প্রার্থী করা হয় এর প্রধান মাওলানা ফজলুর রহমানকে। তার ওপর কোনো আস্থা রাখতে পারেনি পিপিপি। তাই তারা আলাদা প্রার্থী দেয়।

পাকিস্তানের সাধারণ নির্বাচনে জয়ী সংসদ সদস্যরাই ভোট দিয়ে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত করবেন। ডন জানায়, বিরোধী দল বিভক্ত হয়ে প্রার্থী দেয়ায় প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের দল সুবিধাজনক অবস্থানে চলে আসে।

তারা হেসেখেলে প্রেসিডেন্ট প্রার্থীকে বিজয়ী করে আনতে পারবে। এ বিষয়টি শেষ মুহূর্তে মাথায় এসেছে পাকিস্তানের বিরোধী দলগুলোর মধ্যে। ফলে তারা আবার একক প্রার্থী নির্ধারণের জন্য কোমর বেঁধে মাঠে নামে।

রোববার পিএমএলএন নেতারা পিপিপির নেতৃত্বের কাছে আহ্বান জানিয়েছে, তাদের প্রার্থী এজাজ আহসানকে প্রত্যাহার করে নিতে। একই সঙ্গে আহ্বান জানিয়েছে বিরোধীদলীয় প্রার্থী হিসেবে মাওলানা ফজলুর রহমানকে সমর্থন দিতে।

সোমবার ইসলামাবাদে জবাবদিহিতা বিষয়ক আদালতে হাজির হন নওয়াজ শরিফ। এ সময় তার সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করেন পিপিপির কিছু নেতা। ওদিকে রোববারই মডেল টাউনে অবস্থিত পিএমএলএনের বর্তমান সভাপতি শাহবাজ শরিফের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন মাওলানা ফজলুর রহমান। পিপিপির নেতাদেরকে তাদের প্রার্থী প্রত্যাহার করে নেয়ার জন্য অনুরোধ করতে তিনি আহ্বান জানান শাহবাজকে। ফজলুর রহমান বলেন, ‘পিপিপির প্রার্থী এজাজ আহমেদকে প্রত্যাহার করে না নেয়ার অর্থ হল পিটিআইয়ের প্রার্থী ড. আরিফ আলভিকে পথ ছেড়ে দেয়া, যেমনটা প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনে করেছিল পিপিপি। বিষয়টি পিপিপিও ভালো করে জানে।’

পিপিপির একজন নেতা বলেন, আমাদেরকে পরিপক্বতা প্রদর্শন করতে হবে। আসিফ আলী জারদারি আশাবাদী যে, দিনশেষে বিরোধী দলগুলোর একক প্রার্থী হবেন এজাজ আহসান। তিনি আরও জানান, এখনও পিএমএলএন ও পিপিপি নেতারা এক হয়ে একজন যৌথ প্রার্থী দেয়ার সুযোগ আছে। তার কথায়, এ দুটি দল এখনও সমঝোতায় পৌঁছার আশা ছাড়েনি। ওদিকে মাওলানা ফজলুর রহমানের বিষয়ে পিপিপি যে একমত নয় তাতে কিছুটা হতাশ পিএমএলএন। নওয়াজ শরিফ ও শাহবাজ শরিফ মনে করেন, পিপিপি নেতৃত্বের সঙ্গে চমৎকার সম্পর্ক রয়েছে মাওলানা ফজলুর রহমানের। তাই আসিফ আলি জারদারি প্রেসিডেন্ট পদে তাকে সমর্থন করবেন বলে তারা বিশ্বাস করেন।

ঘটনাপ্রবাহ : পাকিস্তানের জাতীয় নির্বাচন ২০১৮

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter