গৃহহীনদের ঘর বানাচ্ছেন ইমরান

পাকিস্তানিদের পনির খাওয়া বন্ধ করছেন ‘কাপ্তান’ খান

প্রকাশ : ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

  যুগান্তর ডেস্ক

গৃহহীনদের জন্য পাকিস্তানজুড়ে ৫০ লাখ ভবন নির্মাণের পরিকল্পনা হাতে নিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে এ প্রকল্প কাজ শুরুর জন্য আবাসন মন্ত্রণালয়কে তাগিদ দিয়েছেন তিনি। মঙ্গলবার কর্মকর্তাদের সঙ্গে এক বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

পরে প্রধানমন্ত্রীর দফতর থেকে এক বিবৃতিতে বলা হয়, নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নের অংশ হিসেবে ভবন নির্মাণ প্রকল্পটির নিঁখুত ও সঠিক বাস্তবায়ন চান ইমরান খান। আর এজন্যই এটি সরাসরি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে নিয়ন্ত্রিত ও বাস্তবায়িত হবে। খবর ডনের।

ঘর নির্মাণের জন্য একটি কমিটি তৈরি করেছেন প্রধানমন্ত্রী। কমিটিকে আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে কাজের গঠন ও সময়সীমা সংক্রান্ত পরিকল্পনার খসড়া দাখিল করতে নির্দেশনা দিয়েছেন তিনি। বৈঠকে প্রধানমন্ত্রীকে পাকিস্তানের বার্ষিক আবাসন খাতের ঘাটতির বিষয়টি ব্রিফিং করেন সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের এক সচিব। এ প্রকল্প বাস্তবায়নের জন্য ব্যক্তিগত ও বিদেশি বিনিয়োগ এবং প্রয়োজনীয় প্রশাসনিক ব্যবস্থা নেয়ার ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীর সাহায্য কামনা করেছেন তিনি।

ইমরান খান জোর দিয়ে বলেন, পাকিস্তান তেহরিক-ই ইনসাফ (পিটিআই) দলের নির্বাচনী প্রতিশ্র“তি অনুসারে দেশজুড়ে ৫০ লাখ ঘর নির্মাণ এ সরকারের প্রধান অগ্রাধিকারে রয়েছে। এসব ভবনে প্রাথমিক সব ধরনের সুযোগ-সুবিধা থাকবে বলেও আশ্বস্ত করেন তিনি। তথ্যমন্ত্রী ফাওয়াদ চৌধুরী বলেন, আবাসন মন্ত্রণালয়ের পরিবর্তে গৃহহীনদের জন্য এ ঘর নির্মাণ প্রকল্পের দেখভাল ও বাস্তবায়ন করবে প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়।

এদিকে ক্ষমতায় আসার পর থেকেই বারবার নতুন প্রধানমন্ত্রী ‘কাপ্তান’ খান দাবি করছেন যে পাকিস্তান ঋণের বোঝায় আক্রান্ত। আর সেই ঋণ থেকে মুক্তি পেতে নানা উপায় খুঁজে বের করছেন তিনি।

এবার উঠে এসেছে এক নতুন তথ্য। পাকিস্তানে নিষিদ্ধ হয়ে যেতে পারে পনির। এছাড়া বিলাসী ফল, গাড়ি ও স্মার্টফোনও নিষিদ্ধ করতে পারেন ইমরান।

রয়টার্স জানায়, পাকিস্তানের ইকোনমিক অ্যাডভাইজরি কাউন্সিল এক আলোচনায় সিদ্ধান্ত নিয়েছে যে, বিভিন্ন বিলাসবহুল জিনিসের আমদানি বন্ধ করা হবে পাকিস্তানে। এসব জিনিসের তালিকায় রয়েছে বিদেশি গাড়ি, স্মার্টফোন ও পনির।

আচমকা পনির নিষিদ্ধ হওয়ার কথায় ব্যাপক প্রতিক্রিয়া তৈরি হয়েছে পাকিস্তানিদের মধ্যে। পনির নিষিদ্ধ করে কীভাবে ঘুরে দাঁড়াবে পাকিস্তানের অর্থনীতি, সেটাই ভেবে পাচ্ছেন না অনেকে।

ওমর কুরেশি নামে এক নাগরিক রীতিমতো হিসাব কষে দেখিয়েছেন, পাকিস্তানের ২০১৭-১৮ অর্থবছরের বাণিজ্য ঘাটতির পরিমাণ ৩৭.৭ বিলিয়ন ডলার। আর পাকিস্তানের মোট পনির আমদানি হয় ১৩ মিলিয়ন ডলারের, যা নাকি ঘাটতির তুলনায় মাত্র ০.০৩৪৪ শতাংশ। তাই পনির নিষিদ্ধ করে পাকিস্তান কতটুকু লাভের মুখ দেখবে, কার্যত সেই প্রশ্নই তুলে ধরেছেন তিনি।

এক পাকিস্তানি টুইট করে বলেন, ‘নতুন পাকিস্তান আসলে নির্মম। তাই পনির নিষিদ্ধ করছে।’