ভারতের সুপ্রিমকোর্ট

আসামি নেতাদের ভোটে দাঁড়াতে বাধা নেই

  কৃষ্ণকুমার দাস, কলকাতা ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

আসামি নেতাদের ভোটে দাঁড়াতে বাধা নেই
ভারতের সুপ্রিমকোর্ট

স্বস্তি মিলল ফৌজদারি মামলায় অভিযুক্ত বিচারাধীন ভারতীয় রাজনীতিকদের। কিন্তু একইসঙ্গে সর্বসমক্ষে জনতার কাছে মুখোশ খুলে যাওয়ার ভয়ে অস্বস্তির কাঁটাও কিছুটা রয়েই গেল।

মঙ্গলবার ভারতীয় সুপ্রিমকোর্র্টের এ রায়ের পর আপাতত আর ভোটে দাঁড়াতে বাধা রইল না ফৌজদারি মামলায় অভিযুক্ত সব দলের রাজনীতিবিদদের। দোষী সাব্যস্ত না হওয়া পর্যন্ত তারা নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারবেন। দেশটির বহু রাজনীতিককে স্বস্তি দিয়ে এদিন এমনই রায় ঘোষণা করেছে সুপ্রিমকোর্ট।

কিন্তু এই রায় ঘোষণার পাশাপাশি প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্রের বেঞ্চ স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন, ফৌজদারি অভিযুক্ত নেতাকে মনোনয়ন জমা দেয়ার সময় নিজের মামলার কথা স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের দ্বারা জনতাকে জানাতে হবে। অভিযুক্ত রাজনীতিক যে দলের প্রতিনিধি সেই দলকেও নিজেদের ওয়েবসাইটে ওই রাজনীতিকের অপরাধের তথ্য প্রকাশ করতে হবে। বিচারপতিদের মতে, এতেই জনতা বুঝতে পারবেন কে ভোট পাওয়া যোগ্য আর কে নন।

অন্যদিকে আইনজীবী পেশার সংসদ সদস্য বা বিধায়করা পদে থাকাকালীন আইনজীবী পেশার সঙ্গে যুক্ত থাকতে পারবেন কিনা এ সংক্রান্ত আরেকটি মামলাতেও এদিন রায় দিয়েছেন শীর্ষ আদালত। সুপ্রিমকোর্টের তরফে বলা হয়েছে, সংসদ সদস্য ও বিধায়করা যেহেতু সরকারের স্থায়ী কর্মী নন তাই তাদের আইনজীবী হিসেবে দায়িত্ব পালনে বাধা দেয়া যায় না। আগামী বছরেই ভারতের জাতীয় সংসদীয় নির্বাচন। তার আগে এই রায় বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ।

কারণ, ভারতে বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ, লালকৃষ্ণ আদভানি থেকে শুরু করে মায়াবতী, মুলায়মের মতো বিভিন্ন দলের বহু নেতার বিরুদ্ধে দুর্নীতিসহ একাধিক অপরাধের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগ রয়েছে। মামলাও চলছে তাদের বিরুদ্ধে।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
×