ট্রাম্পের সাক্ষাতের আগে শি-পুতিনের ঘরে যাবেন কিম

পরমাণু স্থাপনা পরিদর্শনের অনুমতি দিতে প্রস্তুত কিম

প্রকাশ : ০৯ অক্টোবর ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

  যুগান্তর ডেস্ক

ছবি: এএফপি

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও বলেছেন, প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে শিগগরিই ফের বৈঠকের ব্যাপারে একমত হয়েছেন উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উন। সিউলে সোমবার এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানান তিনি।

তবে দক্ষিণের প্রেসিডেন্ট মুন জায়ে- ইন বলেন, তিনি মনে করেন, ট্রাম্পের সঙ্গে সাক্ষাতের আগেই রাশিয়া ও চীনের নেতার সঙ্গে বৈঠক করবেন কিম।

মুন সোমবার বলেন, কোরীয় উপদ্বীপের উত্তেজনা প্রশমনে চলমান কূটনৈতিক অংশ হিসেবে কিম চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং ও রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন বলে মনে করছেন তিনি।

তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্র ও উত্তর কোরিয়া দ্বিতীয় সম্মেলনের আগেই রাশিয়া সফরে যেতে পারেন কিম। এ ছাড়া শিগগিরই পিয়ংইয়ং সফরে আসতে পারেন জিনপিং।’ পম্পেও বলেন, ’বন্ধ করা পরমাণু স্থাপনা দেখানোর জন্য আন্তর্জাতিক পরিদর্শকদের স্বাগত জানাতে প্রস্তুত রয়েছেন কিম জং উন। গত ১২ জুন সিঙ্গাপুরে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও কিমের মধ্যে ঐতিহাসকি বৈঠক হয়।

এ বৈঠকে পরমাণু নিরস্ত্রীকরণে সম্মত হয় পিয়ংইয়ং। তবে স্পষ্ট কোনো দিনক্ষণ উল্লেখ করেনি তারা। নিরস্ত্রীকরণের অংশ হিসেবে পুঙ্গে-রি পরমাণু পরীক্ষা বন্ধ করে দেয়। এখনও আন্তর্জাতিক পর্যবেক্ষকদের কেন্দ্রটি পরিদর্শনের অনুমতি দেয়া হয়নি। তবে পরিদর্শনের সুযোগ দেয়ার দাবি জানিয়ে আসছিল ওয়াশিংটন।

গত জুলাইয়ে প্রথম সফরের পর রোববার চতুর্থবারের জন্য পিয়ংইয়ং সফর করেন পম্পেও। সোমবার দক্ষিণ কোরিয়ার রাজধানী সিউলে এক সংবাদ সম্মেলনে পম্পেও বলেন, কিমের সঙ্গে বৈঠকে পরমাণু ইস্যুর দীর্ঘ প্রক্রিয়া নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ অগ্রগতি অর্জিত হয়েছে। বন্ধ ঘোষিত পরমাণু কেন্দ্র পরিদর্শনে আন্তর্জাতিক পরিদর্শকদের অনুমতি দিতে প্রস্তুত কিম।’

সিঙ্গাপুর বৈঠকের পরমাণু নিরস্ত্রীকরণ মৌখিক চুক্তির বাস্তবায়নের ব্যাপারে অবিশ্বাসের দোলাচলে পিয়ংইয়ং-ওয়াশিংটন। সম্পূর্ণ নিরস্ত্রীকরণের পরই উত্তর কোরিয়ার ওপর থেকে সব নিষেধাজ্ঞা সরিয়ে নেয়ার কথা বলছে ট্রাম্প প্রশাসন।

অন্যদিকে গত মাসেই নিউইয়র্কে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৩তম অধিবেশনে উত্তর কোরিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী স্পষ্ট করে জানিয়ে দেন, নিষেধাজ্ঞা তুলে না নিলে নিরস্ত্রীকরণের কোনো সুযোগ নেই।