নবম দশম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের পড়াশোনা

ব্যবসায় উদ্যোগ * ভূগোল ও পরিবেশ

ব্যবসায় উদ্যোগ

  এইচ. এম. মতিউর রহমান ১৯ আগস্ট ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

সহকারী শিক্ষক (ব্যবসায় শিক্ষা)

পটুয়াখালী সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, পটুয়াখালী।

ব্যবসায় পরিচিতি

১. ব্যবসায়ের উৎপত্তির মূল কারণ- মানুষের অভাববোধ।

২. অভাব পূরণের লক্ষ্যে মানুষ জড়িত হয়- অর্থনৈতিক কাজে।

৩. অর্থনৈতিক কাজ বলা হয়- উপার্জন করার জন্য।

৪. ব্যবসায়ের প্রধান লক্ষ্য- মুনাফা অর্জন।

৫. অর্থনৈতিক কাজ হতে হবে- দেশের আইনে বৈধ।

৬. ব্যবসায়ের পণ্য বা সেবার থাকতে হবে- আর্থিক মূল্য।

৭. ব্যবসায়ে সর্বদা বিদ্যমান থাকে- ঝুঁকি।

৮. ব্যবসায়ী অর্থ বিনিয়োগ করে- মুনাফা অর্জনের আশায়।

৯. মুনাফার পাশাপাশি ব্যবসায়ে থাকে- সেবার মনোভাব।

১০. ব্যবসায়ে নৈতিকতা ও সামাজিক দায়বদ্ধতা- গুরুত্বপূর্ণ।

১১. মানুষের চাহিদার কারণে বাড়তে থাকে- অর্থনৈতিক কাজ।

১২. ব্যবসায়ের ক্রমবিকাশকে ভাগ করা যায়- তিন ভাগে।

১৩. দ্রব্য বিনিময় করে প্রয়োজন মেটাতে হতো- প্রাচীন যুগে।

১৪. বাজার ও শহর সৃষ্টি হয়- মধ্য যুগে।

১৫. বিনিময়ের মাধ্যম হিসেবে ধাতব মুদ্রার প্রচলন হয়- মধ্য যুগে।

১৬. কাগজি মুদ্রার প্রচলনের সময়কাল- মধ্য যুগ।

১৭. ব্যবসায় সংগঠনের উদ্ভব হয়- মধ্য যুগে।

১৮. শিল্পবিপ্লবের সময়কাল- আধুনিক যুগ।

১৯. তথ্যপ্রযুক্তির উন্নয়ন হয়- আধুনিক যুগে।

২০. বৃহদায়তন উৎপাদন ও বণ্টনের প্রচলন হয় -আধুনিক যুগে।

২১. পণ্য দ্রব্য ও সেবাকর্ম উৎপাদন, বিনিময় ও এর সহায়ক কাজের সমষ্টি হল- ব্যবসায়।

২২. আধুনিক ব্যবসায়কে ভাগ করা হয়- তিন ভাগে।

২৩. পণ্য উৎপাদনের সঙ্গে জড়িত থাকে- শিল্প।

২৪. উৎপাদিত সামগ্রী পুনরায় সৃষ্টির কাজে ব্যবহৃত হয়- প্রজনন শিল্পে।

২৫. ভূগর্ভ, পানি বা বায়ু থেকে প্রাকৃতিক সম্পদ আহরণ হল- নিষ্কাশন শিল্প।

২৬. ব্যবসায়ের পণ্য সামগ্রী বণ্টনকারি শাখা হল- বাণিজ্য।

২৭. ব্যবসায়ের স্থানগত বাধা দূর করে- পরিবহন।

২৮. ব্যবসায়ের ঝুঁকিগত বাধা দূর করে- বিমা।

২৯. ব্যবসায় টু ব্যবসায় বলা হয়- বাণিজ্যকে।

৩০. অর্থের বিনিময়ে সেবাকর্মকে বলে- প্রত্যক্ষ সেবা।

৩১. ব্যবসায়ের ক্রমবিকাশের ধারা হল- প্রাচীন, মধ্য ও আধুনিক।

৩২. দেশের সামগ্রিক উন্নয়নে অবদান রাখছে- ব্যবসায়।

৩৩. ব্যবসায়ের প্রয়োজনে গড়ে উঠেছে- ছোট-বড় দোকান ও শিল্প কারখানা।

৩৪. সম্পদের সদ্ব্যবহার হয়- ব্যবসায়ের মাধ্যমে।

৩৫. উন্নতির শিখরে অবস্থান করে- ব্যবসা-বাণিজ্যে উন্নত দেশ।

৩৬. জাতীয় আয় বাড়ে- ব্যবসায়ের মাধ্যমে।

৩৭. মানুষের কর্মসংস্থান সৃষ্টি করে- ব্যবসায়।

৩৮. গবেষণা ও সৃজনশীল কাজের উন্নয়ন করে- ব্যবসায়।

৩৯. সংস্কৃতির বিনিময় হয়- পণ্য দ্রব্য আদান-প্রদানের কারণে।

৪০. নতুন শহর, বন্দর গড়ে ওঠে- ব্যবসায়-বাণিজ্যের কারণে।

৪১. মানুষের জীবনধারা ও অর্থনৈতিক কাজ প্রভাবিত হয়- পরিবেশ দ্বারা।

৪২. প্রাকৃতিক ও অপ্রাকৃতিক উপাদান প্রভাব ফেলে- ব্যবসায়ে।

৪৩. ব্যবসায় পরিবেশের উপাদানকে ভাগ করা হয়- ছয় ভাগে।

৪৪. ব্যবসায়-বাণিজ্যের উন্নতি নির্ভর করে- ব্যবসায়িক পরিবেশের ওপর।

৪৫. জলবায়ু ও ভূমি হল- প্রাকৃতিক পরিবেশের উপাদান।

৪৬. সঞ্চয়, বিনিয়োগ ও মূলধন- অর্থনৈতিক পরিবেশের উপাদান।

৪৭. ভোক্তাদের মনোভাব, শিক্ষা ও সংস্কৃতি অন্তর্ভুক্ত- সামাজিক পরিবেশের।

৪৮. সার্বভৌমত্ব ও আন্তর্জাতিক সম্পর্ক- রাজনৈতিক পরিবেশের উপাদান।

৪৯. পরিবেশ সংরক্ষণ ও শিল্প আইন- আইনগত পরিবেশের উপাদান।

৫০. কারিগরি দক্ষতা, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি- প্রযুক্তিগত পরিবেশের অন্তর্গত।

ভূগোল ও পরিবেশ

দেওয়ান সামছুর রহমান

সিনিয়র শিক্ষক, গোয়ালপাড়া হাইস্কুল, সোনারগাঁ

বাংলাদেশের ভৌগোলিক বিবরণ

১। কোন রেখাটি বাংলাদেশের মধ্যভাগদিয়ে অতিক্রম করেছে?

ক) কর্কটক্রান্তি রেখা খ) মকরক্রান্তি রেখা গ) মূলমধ্য রেখা ঘ) অক্ষরেখা

২। বাংলাদেশের অবস্থান এশিয়ার কোন অঞ্চলে?

ক) উত্তর খ) দক্ষিণ গ) পূর্ব ঘ) পশ্চিম

৩। বাংলাদেশের আয়তন কত বর্গ কিলোমিটার?

ক) ৫৫,৫৯৮ খ) ১,০৫,০০০ গ) ১,৪৭,৫৭০ ঘ) ১,৮৭.২০০

৪। বাংলাদেশ ভারতের মধ্যে স্থল সীমানা চুক্তি স্বাক্ষরিত হয় কত সালে?

ক) ২০০৫ খ) ২০০৯ গ) ২০১২ ঘ) ২০১৫

৫। বাংলাদেশের টেলিটোরিয়াল সমুদ্রসীমা কত?

ক) ৭ নটিক্যাল মাইল খ) ৮ নটিক্যাল মাইল

গ) ১০ নটিক্যাল মাইল ঘ) ১২ নটিক্যাল মাইল

৬। সমুদ্রে বাংলাদেশের একান্ত অর্থনৈতিক অঞ্চল কত নটিক্যাল মাইল?

ক) ১২০ খ) ১৫০ গ) ২০০ ঘ) ২৫০

৭। বাংলাদেশের নদী অঞ্চলের আয়তন কত?

ক) ৮,৯০০ ব.কি.মি. খ) ৯,৪০৫ ব.কি.মি. গ) ৯,৯১০ ব.কি.মি. ঘ) ১০,৩০৫ ব.কি.মি.

৮। বাংলাদেশের বনাঞ্চলের আয়তন কত ব.কি.মি.?

ক) ২১,৬৫৭ খ) ১৮,১২৮ গ) ১৫,৯০৫ ঘ) ১৪,৮৬৪

৯। বাংলাদেশের সীমা-

i. ভারত-বাংলাদেশের মধ্যে ৩,৭১৫ কি.মি. ii. বাংলাদেশ-মিয়ানমারের মধ্যে ২৮০ কি.মি. iii. বঙ্গোপসাগরের তটরেখার দৈর্ঘ্য ৭১৬ কি.মি.

নিচের কোনটি সঠিক

ক) i, ii খ) i, iii গ) ii, iii ঘ) i, ii, iii

১০। বাংলাদেশের দক্ষিণ-পূর্বে ভারত মিয়ানমারের সীমানায় কোন নদী অবস্থিত?

ক) মেঘনা খ) হাড়িয়াভাঙ্গা গ) নাফ ঘ) করতোয়া

১১। বাংলাদেশের-

i. উত্তরে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ, মেঘালয় ও আসাম রাজ্য ii.পূর্বে বঙ্গোপসাগর iii. পশ্চিমে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য

নিচের কোনটি সঠিক

ক) i, ii খ) i, iii গ) ii, iii ঘ) i, ii, iii

১২। ভূপ্রকৃতি অনুসারে বাংলাদেশকে প্রধানত কয়টি শ্রেণিতে ভাগ করা হয়?

ক) পাঁচটি খ) চারটি গ) তিনটি ঘ) দুইটি

১৩। বাংলাদেশের-

i. দক্ষিণ-পূর্বের পাহাড়গুলোর গড় উচ্চতা ৬১০ মিটার ii.কিওক্রাডং-এর উচ্চতা ১,২৩০ মিটার iii. তাজিনডং-এর উচ্চতা ১,২৮০ মিটার

নিচের কোনটি সঠিক

ক) i, ii খ) i, iii গ) ii, iii ঘ) i, ii, iii

১৪। স্থায়ী বসবাসের জন্য কোন ধরনের ভূমি আদর্শ?

ক) মালভূমি খ) মরুভূমি গ) সমভূমি ঘ) পার্বত্যভূমি

১৫। টারশিয়ারি যুগের পাহাড় সমূহকে কয়ভাগে ভাগ করা হয়েছে?

ক) দুই খ) তিন গ) চার ঘ) পাঁচ

১৬। বাংলাদেশের সর্বোচ্চ পর্বত শৃঙ্গের নাম কী?

ক) এভারেস্ট খ) কিওক্রাডং গ) তাজিনডং ঘ) লালমাই

১৭। টিলার গড় উচ্চতা কত?

ক) ৩০ থেকে ৯০ মিটার খ) ১০০ থেকে ১২০ মিটার গ) ১৫০ থেকে ২০০ মিটার ঘ) ৫০০ থেকে ৬০০ মিটার

১৮। আনুমানিক কত বছর পূর্বের সময়কে প্লাইস্টোসিন কাল বলে?

ক) ২০০০ বছর খ) ২৫০০ বছর গ) ৩০০০ বছর ঘ) ৩৫০০ বছর

১৯। লালমাই পাহাড়ের আয়তন কত বর্গ কিলোমিটার?

ক) ২৫ খ) ৩০ গ) ৩৪ ঘ) ৪২

২০। সমুদ্র সমতল থেকে নারায়ণগঞ্জ জেলার উচ্চতা কত?

ক) ২০ মিটার খ) ১৮ মিটার গ) ১২ মিটার ঘ) ৮ মিটার

২১। বাংলাদেশের কোন অঞ্চলের পাহাড়গুলো স্থানীয়ভাবে টিলা নামে পরিচিত?

ক) উত্তর খ) দক্ষিণ গ) পূর্ব ঘ) পশ্চিম

উত্তর : ১। ক ২। খ ৩। গ ৪। ঘ ৫। ঘ ৬। গ ৭। খ ৮। ক ৯। ঘ ১০। গ ১১। খ ১২। গ ১৩। ঘ ১৪। গ ১৫। ক ১৬। খ ১৭। ক ১৮। খ ১৯। গ ২০। ঘ ২১। ক

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×