প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষার প্রস্তুতি

ইংরেজি * বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয়

ইংরেজি

  মো. সিদ্দিকুর রহমান ২৬ আগস্ট ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

সিনিয়র শিক্ষক, প্রগতি মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজ, নন্দীপাড়া, ঢাকা

Short Questions No. 11

By using information related to days, weeks, months, time or cardinal & ordinal numbers in tables or columns st

udents will answer SCRQs/ fill in the gaps.

1. Write five sentences about your daily habit of life considering the following points. [Write the time in

number and daily activity in ordinal numbers in your writing.]

-When do you wake up from sleep?

-When do you say your Fayar Prayer?

-What is the time of your breakfast?

-When do you start for school?

Ans.

I wake up from sleep at 5.00 am. After that at first I say my Fayar prayer at 5.30 am. Then I start my reading. at

7.30 am, I take my breakfast at 8.00 am. Then I start for school at 9.30 am.

2. Write five sentences about leisure activities in your class considering the following points. [Write the number

in your writing.]

-When do you go to school library?

-Hwo long do you stay in the library?

-When do you come back from the library?

-What time does your class start again?

Ans : I usually go to school library at 12.00 pm. I stay there for 1 hour. I come back from the library at 1.00

pm. I attend my class at 2.00 pm. Our class starts at 3.00 pm again.

2. Write 5 sentences about the days in a calendar considering the following points. [Use cardinal and ordinal

numbers in your writing]

-What date is the first day of February?

-What date is the International Mother Language Day of February?

-What date is second day of February?

-What date is the last day of February in a leap year?

-How many hours make a day?

Ans : The date of the first day of February is first February 2015. 21 February is the International Mother Language

Day. The date of the second day of February is 2 February. The last day of February in a leap year 29. 24 hours make

a day.

3. Write 5 sentences about your daily routine considering the following points.

[Write the time in cardinal numbers in your writing]

-What time do you get up?

-When do you have breakfast?

-When do you go to school?

-When do you come back home?

-When do you go to bed.

Ans : I get up at 6 am. I have breakfast at 7 am. I go to school at 9 am. I come back home at 4 pm. I go to

bed at 9 pm.

B. Fill in the gaps by writing the time so that the story makes sense.

I am Sakib. My home town is Khulna, One day I started for Dhaka at (a) .......... I reached Faridpur at (b)

.............. I arrived Paturia Ghat at (c) .............. Then I reached Manikgonj at (d) ........... Lastly I arrived Dhaka

at (e) .............

Ans : (a) 7.00 am; (b) 8.00 am; (c) 9.00 am; (d) 10.30 am; (e) 11.50 pm.

5. Fill in the gaps by writing the time so that the story makes sense.

Mrs. Sakila is a housewife. She watches T.V Programme regularly. She starts watching T.V at (a) ............ At (b)

................... she watches the news. At (c) .................... she watches the Btv. At (d) .............. she watches talk

show.

Ans : (a) 8.00; (b) 8.30; (c) 9.30 pm; (d) 11.30 pm.

বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয়

আফরোজা বেগম

সিনিয়র শিক্ষক, উত্তরা হাইস্কুল অ্যান্ড কলেজ, উত্তরা, ঢাকা

জলবায়ু ও দুর্যোগ

প্রশ্ন : বাংলাদেশের জলবায়ু পরিবর্তনের তিনটি কারণ উল্লেখ কর।

উত্তর : অন্যতম কারণ হল মানবসৃষ্ট কারণ দূষণ। যেমন : শিল্প কারখানা এবং যানবাহনের দূষণ। ফলে বৈশ্বিক তাপমাত্রা বৃদ্ধি পাচ্ছে ও জলবায়ুর পরিবর্তন হচ্ছে।

* বন-জঙ্গল কেটে সাফ করলে এবং গাছপালা কেটে ফেললে জীববৈচিত্র্য ধ্বংস হয় ও জলবায়ুর পরিবর্তন হয়।

* নদীশাসনের ফলে নদী ধ্বংস হওয়া, জলাধার ভরাট করা ইত্যাদি কারণে প্রকৃতির ক্ষতি হয় ও জলবায়ুর পরিবর্তন হয়।

সুতরাং, প্রাকৃতিক কারণ ছাড়াও পরিবেশবিরোধী মানুষের নানা কর্মকাণ্ডই জলবায়ু পরিবর্তনের মূল কারণ।

প্রশ্ন : ২. বাংলাদেশের কোন অঞ্চলগুলোতে খরা বেশি হয়?

উত্তর : বাংলাদেশের বিভিন্ন প্রাকৃতিক দুর্যোগের অন্যতম হল খরা। দীর্ঘকাল ধরে শুষ্ক আবহাওয়া এবং অপর্যাপ্ত বৃষ্টিপাতের কারণে ও ভূগর্ভস্থ পানির মাত্রাতিরিক্ত ব্যবহারের ফলে পরিবেশের তাপমাত্রা বেড়ে যায়। ফলে জনজীবনে নেমে আসে নানা দুর্ভোগ। এটাই খরা। খরা বেশি দেখা যায় বাংলাদেশের উত্তরাঞ্চলের জেলাগুলোতে যেমন : দিনাজপুর, রংপুর, বগুড়া, রাজশাহী ইত্যাদি অঞ্চলে। বাংলাদেশের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে দীর্ঘকাল ধরে শুষ্ক আবহাওয়া এবং অপর্যাপ্ত বৃষ্টিপাত ও অল্প সংখ্যক নদী থাকার কারণে এসব অঞ্চলে খরা বেশি দেখা দেয়। ফলে ‘মঙ্গা’ তথা খাদ্য ও কাজের অভাব এসব এলাকার মানুষের নিত্যসঙ্গী। প্রতিকূলতার সঙ্গে, বিরূপ প্রকৃতির সঙ্গে প্রতিনিয়ত লড়াই করে এদের বেঁচে থাকতে হয়।

প্রশ্ন : বাংলাদেশের কোন অঞ্চলগুলো ভূমিকম্পপ্রবণ?

উত্তর : বিভিন্ন প্রাকৃতিক দুর্যোগের অন্যতম হল ভূমিকম্প। এ দুর্যোগে প্রকৃতিগত কারণে ভূমি কেঁপে ওঠে। ফলে পৃথিবীর বুকে তৈরি নানা স্থাপনা ভেঙে পড়ে জনজীবনে ব্যাপক ক্ষতিসাধিত হয়। ভূমিকম্প পাহাড়ি এলাকার দুর্যোগ হলেও সাম্প্রতিককালে বাংলাদেশে প্রায়ই মৃদু ও মাঝারি ধরনের ভূমিকম্প হচ্ছে। বিজ্ঞানীদের মতে ছোট ছোট ভূমিকম্প বড় ভূমিকম্পের পূর্বাভাস। তাই পূর্ব প্রস্তুতি হিসেবে সরকার ভূমিকম্পপ্রবণ এলাকা চিহ্নিত করেছে। ভৌগোলিক অবস্থানের কারণে ভূমিকম্পের নিশ্চিত ঝুঁকিতে থাকা বাংলাদেশকে তিনটি অঞ্চলে ভাগ করা হয়েছে।

যথা :

এলাকা-১ :

এ অঞ্চলের অন্তর্গত এলাকা হল বাংলাদেশের দক্ষিণ-পশ্চিম অঞ্চলে অবস্থিত জেলাগুলো।

এলাকা-২:

এলাকা-২-এ বাংলাদেশের উত্তর-পশ্চিম থেকে দক্ষিণ-পূর্ব দিকের জেলাগুলো অর্থাৎ দেশের উত্তর থেকে দক্ষিণে দেশের মধ্যভাগের এলাকাগুলো এ অঞ্চলের অন্তর্গত।

এলাকা-৩ : এ অঞ্চলের অন্তর্গত এলাকা হল বাংলাদেশের উত্তর-পূর্ব অঞ্চলের এলাকাগুলো।

ওপরের তিনটি এলাকার মধ্যে ‘এলাকা-৩’ হল সবচেয়ে বেশি ভূমিকম্পপ্রবণ এলাকা। এ এলাকায় অবস্থিত দেশের উত্তর-পূর্ব অঞ্চলের এলাকার জেলাগুলো যেমন : বৃহত্তর সিলেট জেলা, শেরপুর জেলা, কুড়িগ্রাম ইত্যাদি মারাত্মক ভূমিকম্পের ঝুঁকিতে রয়েছে।

সুতরাং, ভূমিকম্পকে ভয় পেয়ে আতঙ্কিত না হয়ে তা মোকাবিলার জন্য প্রয়োজনীয় পূর্বপ্রস্তুতি নিতে হবে।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×