মূল বইয়ের তথ্যগুলো মুখস্থ রাখবে

  মো. শহীদুল্লাহ ২৩ অক্টোবর ২০১৯, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

প্রধান শিক্ষক, ন্যাশনাল

আইডিয়াল স্কুল, ঢাকা

২ নভেম্বর শুরু হতে যাচ্ছে জেএসসি পরীক্ষা। চলছে শেষ সময়ের প্রস্তুতি। শিক্ষার্থীদের মন এখন আশা-নিরাশার দোলাচলে দোদুল্যমান। না জানি ফাইনাল পরীক্ষা কেমন হবে। জিপিএ ৫ পাব নাকি ছুটে যাবে অল্পের জন্য। বন্ধুরা সব জিপিএ ৫ পেয়ে মিষ্টি বিলাবে ঘরে ঘরে আর আমার কী হবে যদি জিপিএ ৫ না পাই? এ রকম নানা চিন্তা ঘুরপাক খাচ্ছে তাদের মনের মুকুরে। কিন্তু প্রকৃতপক্ষে এসব চিন্তা ও অস্থিরতাই ফলাফল খারাপ হওয়ার প্রধান কারণ।

মূল বইয়ের তথ্যগুলো মাথায় রাখতে হবে, কঠিন বানানের শব্দগুলো না দেখে লেখার অভ্যাস করতে হবে, সৃজনশীলের নিয়ম ঠিক রেখে উত্তর করতে হবে নিজের ভাষায়। তা হলেই পাওয়া যাবে পূর্ণ নম্বর।

পরীক্ষকের হৃদয় জয় করার জন্য উত্তরপত্রের ডেকোরেশন একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। পৃষ্ঠার ওপরে দেড় থেকে দুই ইঞ্চি, নিচে এক ইঞ্চি, বামে সোয়া ইঞ্চি এবং ডানে আধা ইঞ্চি পরিমাণ ফাঁক রাখতে হবে। প্রতিটি উত্তর শেষে এক থেকে সোয়া ইঞ্চি জায়গা বাদ দিয়ে পরের উত্তর শুরু করতে হবে। ‘১ নম্বর প্রশ্নের উত্তর’ কথাটা উত্তরের ওপরে একটু বড় সাইজে লিখতে হবে আন্ডার লাইনসহ। ভুল হলে ঘষাঘষি না করে কাটতে হবে এক টানে। মনে রাখতে হবে, হস্তাক্ষর সুন্দর করা ভালো ফলাফলের পূর্বশর্ত।

অতিরিক্ত কাগজ নেয়ার সঙ্গে সঙ্গে পৃষ্ঠা নম্বর দিয়ে নেবে। সিরিয়াল মতো সাজিয়ে সেলাই করে নেবে যথাসময়ে। সম্ভব হলে রিভিশন দেবে প্রশ্নের নম্বরের সঙ্গে মিলিয়ে মিলিয়ে। কাভারে নিজের রোল নং, রেজি. নং, বিষয় কোড ইত্যাদি তথ্যগুলো সঠিকভাবে লেখা হয়েছে কিনা তা দেখে নেবে। ঘণ্টা পড়ার পর উত্তরপত্র পরিদর্শকের কাছে জমা দেবে সময়মতো, দাঁড়িয়ে যত্নের সঙ্গে।

যে পরীক্ষাগুলো হয়ে গেছে তার ভালো-মন্দ নিয়ে ভাবনা করা অবান্তর। আগামীকাল যে বিষয়ের পরীক্ষা হবে তা নিয়ে ভাবতে হবে, প্রস্তুতি নিতে হবে ধৈর্যের সঙ্গে। পরীক্ষার শেষ দিনটি পর্যন্ত স্বাস্থ্যবিধির প্রতি একটু বেশিই নজর রাখতে হবে।

সবশেষে সবচেয়ে দরকারি কথাটা বলতে চাই। আর তা হল জিপিএ ৫ পাওয়াটাই জীবনের সব কিছু নয়। সঙ্গে সঙ্গে ভালো মানুষ, হ্যাঁ একজন ভালো মানুষ এবং দেশপ্রেমী মানুষ হিসেবে নিজেকে তৈরি করাটা বেশি জরুরি। তবেই বাবা-মায়ের রক্ত পানি করা পরিশ্রম স্বার্থক হবে।

আরও খবর

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত