অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের পড়াশোনা

বিজ্ঞান

  মো. আমিনুল ইসলাম ১৪ মে ২০২০, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

সিনিয়র শিক্ষক,

মিরপুর বাংলা উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়, ঢাকা

সমন্বয় ও নিঃসরণ : সৃজনশীল প্রশ্নোত্তর

ক. রেচন তন্ত্র কী? ১

খ. বৃক্কের কাজ বর্ণনা কর। ২

গ. নিচের তন্ত্রটি কীভাবে রেচন কার্য সম্পন্ন করে? ৩

ঘ. A, B, C ও D অংশের মধ্যে কোনটি অধিক গুরুত্বপূর্ণ কারণ উল্লেখপূর্বক বিশ্লেষণ কর। ৪

ক. উ. রেচনতন্ত্র : যে তন্ত্র রেচন কার্যে সাহায্য করে তাকে রেচনতন্ত্র বলে।

খ. উ. বৃক্ককে মূত্র তৈরির কারখানা বলা হয়। যকৃত আমাদের দেহের অতিরিক্ত অ্যামাইনো এসিডকে ভেঙে ইউরিয়া ইউরিক এসিড অ্যামোনিয়া ইত্যাদি নাইট্রোজেন দ্বারা গঠিত বর্জ্য পদার্থ তৈরি করে। এগুলো দেহের জন্য ক্ষতিকর। মূত্রের মাধ্যমে বৃক্ক দেহের শতকরা ৮০ ভাগ নাইট্রোজেন ঘটিত বর্জ্য দেহের বাইরে বের করে দেয়। আবার বৃক্ক থেকে ক্ষতিকর পদার্থ ছেঁকে নেয়। ফলে আমাদের দেহ সুস্থ থাকে। তাই বৃক্ককে রেচনতন্ত্রের প্রধান অঙ্গ বিবেচনা করা হয়।

গ. উ. চিত্রে প্রদর্শিত তন্ত্রটি হচ্ছে রেচনতন্ত্র। রেচনতন্ত্রের মাধ্যমে রেচন কার্য সম্পন্ন হয়। নিুে তা আলোচনা করা হল : রেচন বলতে দেহের বর্জ্য পদার্থ নিষ্কাশন ব্যবস্থাকে বোঝায়। আর রেচন পদার্থ হল সেসব পদার্থ যেগুলো দেহের জন্য ক্ষতিকর ও অপ্রয়োজনীয়। নাইট্রোজেন ঘটিত পদার্থগুলোই মূলত দেহের প্রদান রেচন পদার্থ। যকৃত আমাদের দেহের অতিরিক্ত অ্যামাইনো এসিডকে ভেঙে ইউরিয়া ইউরিক এসিড অ্যামোনিয়া ইত্যাদি নাইট্রোজেন ঘটিত বর্জ্য পদার্থ তৈরি করে। বৃক্ক ছাঁকনি হিসেবে রক্ত থেকে এসব ক্ষতিকর পদার্থ ছেঁকে নেয়। এই ক্ষতিকর পদার্থগুলো পানির সঙ্গে মিশে হালকা হলুদ বর্ণের মূত্র তৈরি করে এবং ইউরেটারের মাধ্যমে মূত্র থলিতে জমা হয়। মলদ্বারের মতো মূত্রথলির দ্বারেও সংকোচন ও প্রসারণ পেশি থাকে। একে মূত্র পথ বলে। প্রয়োজনে পেশি সংকোচন ও প্রসারণের ফলে দেহ থেকে মূত্র নির্গত হয়।

ঘ. উ. A, B, C ও D যথাক্রমে বৃক্ক ইউরেটার মূত্রথলি এবং মূত্রনালি। এদের মধ্যে এ তথা বৃক্ক বা কিডনি হল প্রধান রেচন অঙ্গ। B, C ও D শুধুমাত্র রেচন দ্রব্য পরিবহন জমা রাখা এবং নিষ্কাশন করে। কিন্তু বৃক্ক রেচন দ্রব্য ছাঁকনির মতো গুরুত্বপূর্ণ কাজ করে।

যকৃত আমাদের দেহের অতিরিক্ত অ্যামাইনো এসিডকে ভেঙে ইউরিয়া ইউরিক এসিড অ্যামোনিয়া ইত্যাদি নাইট্রোজেন দ্বারা গঠিত বর্জ্য পদাথ্য তৈরি করে। এগুলো দেহের জন্য ক্ষতিকর। বৃক্ক রক্ত থেকে ক্ষতিকর পদার্থ ছেঁকে নেয়। এই ক্ষতিকর পদার্থগুলো পানির সঙ্গে মিশে হালকা হলুদ বর্ণের মূত্র তৈরি করে। মূত্রের মাধ্যমে শতকরা ৮০ ভাগ নাইট্রোজেন ঘটিত। বর্জ্য পদার্থ বের হয়ে যায় এবং দেহকে সুস্থ রাখে। তাই বৃক্ককে রেচনতন্ত্রের প্রধান অঙ্গ হিসেবে বিবেচনা করা হয়। সুতরাং বৃক্ক অধিক গুরুত্বপূর্ণ।

আরও খবর
 

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত