প্রাথমিক শিক্ষাসমাপনীর পড়াশোনা

প্রাথমিক বিজ্ঞান

  আফরোজা বেগম ০৫ জুলাই ২০২০, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

সিনিয়র শিক্ষক, উত্তরা হাইস্কুল অ্যান্ড কলেজ উত্তরা, ঢাকা

সুস্থ জীবনের জন্য খাদ্য

প্রশ্ন : খাদ্য সংরক্ষণের উপকারিতা কী?

উত্তর : খাদ্য সংরক্ষণের উপকারিতা অনেক। যেমন-

* মাছ, মাংস, সবজি, ফল, দুগ্ধজাত খাদ্য ইত্যাদি খুব সহজেই ব্যাকটেরিয়া দ্বারা পচে নষ্ট হয়ে যায়। খাদ্য সংরক্ষণ খাবারে পচন সৃষ্টিকারী ব্যাকটেরিয়া জন্মাতে বাধা দেয়।

* খাদ্য সংরক্ষণ অপচয় রোধ করে।

* খাদ্য সংরক্ষণের মাধ্যমে বিভিন্ন মৌসুমি খাদ্যদ্রব্য সারা বছর পাওয়া যায়।

* খাদ্য সংরক্ষণের মাধ্যমে অনেক দূরবর্তী এলাকায় সহজে খাবার সরবরাহ করা যায়।

* খাদ্যদ্রব্যকে টাটকা ও তাজা রাখে।

* পরিবারের তথা দেশের ভবিষ্যৎ খাদ্য নিশ্চয়তার ব্যবস্থা করে।

সুতরাং খাদ্য সংরক্ষণের উপকারিতা অনেক।

প্রশ্ন : সুষম খাদ্য গ্রহণ করা প্রয়োজন কেন?

উত্তর : সুষম খাদ্য : যে খাদ্যে বা খাদ্য তালিকায় খাদ্যের ছয়টি উপাদান বয়স, পেশা ও দৈহিক চাহিদা অনুসারে সঠিক পরিমাণে থাকে তাকে সুষম খাদ্য বলে। যেমন : দুধ, খিচুড়ি ইত্যাদি।

প্রয়োজনীয়তা :

* কর্মক্ষম থাকার জন্য আমাদের সঠিক পরিমাণ পুষ্টি উপাদান প্রয়োজন। সুষম খাদ্য গ্রহণ না করলে শরীরের কর্মক্ষমতা হ্রাস পায়।

* সুষম খাদ্যের অভাবে শরীর দুর্বল হয়ে পড়ে।

* সহজেই রোগে আক্রান্ত হয়।

* অপুষ্টিজনিত কারণে শিশুর স্বাভাবিক বৃদ্ধি ও বিকাশ বাধাগ্রস্ত হয়।

* অতিরিক্ত খাদ্য গ্রহণের ফলে ওজনজনিত সমস্যা সৃষ্টি হতে পারে।

* যারা শারীরিক পরিশ্রম করে তাদের খাদ্য বেশি খাওয়া প্রয়োজন।

সুতরাং, প্রত্যেকেরই উচিত নিয়মিত সুষম খাদ্য খেয়ে রোগমুক্ত ও সুস্থ থাকা।

আরও খবর

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত